ইপেপার । আজবৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আলমডাঙ্গায় প্রবাসীর স্ত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

ভ্রাম্যমাণ প্রতিবেদক, আলমডাঙ্গা:
  • আপলোড টাইম : ০৯:৫৮:০৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০২৪
  • / ১১ বার পড়া হয়েছে

আলমডাঙ্গার পৌর এলাকার একটি বাড়ির পাঁচতলায় থেকে ভাড়াটিয়া ও সৌদি প্রবাসীর স্ত্রী রেশমা খাতুনের (২৮) মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে পৌর এলাকার গোবিন্দপুর মোল্লাবাড়ির ঘর থেকে ভাড়াটিয়া রেশমা খাতুনের (২৮) ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার হয়। রেশমা খাতুন আলমডাঙ্গার বেলগাছি রথখোলাপাড়ার সাইদুর ইসলামের মেয়ে ও চুয়াডাঙ্গা দৌলতদিয়াড় এলাকার সৌদি প্রবাসী শিমুল হোসেনের স্ত্রী। তিনি গোবিন্দপুর এলাকার ওই বাড়ির পঞ্চম তলার ১০ নম্বর ফ্ল্যাটে গত ছয় মাস ধরে ভাড়া থাকছিলেন।

পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা সদরের দৌলতদিয়াড় এলাকার শিমুল হোসেনের সাথে ১৩ বছর আগে বিয়ে হয় রেশমা খাতুনের। ৬ বছর আগে পরিবারের সচ্ছলতা ফেরাতে প্রবাসে পাড়ি জমান শিমুল হোসেন। এরপর রেশমা খাতুন তার ছয় বছর বয়সী মেয়েকে নিয়ে বেলগাছি গ্রামে নিজের বাবা-মায়ের সঙ্গে থাকত। তবে গত ৬ মাস আগে রেশমা তার স্কুলপড়ুয়া মেয়েকে নিয়ে মোল্লা বাড়িতে ভাড়া ওঠেন। প্রতিদিনের মতো গতকাল সকালে মেয়েকে স্কুলে পাঠায় রেশমা। স্কুল থেকে ফিরে মায়ের কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে পাশের ফ্ল্যাটের ভাড়াটিয়া ও প্রতিবেশিরা ঘরে প্রবেশ করলে রেশমা খাতুনকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায়।

একাধিক সূত্র জানায়, হারদী ইউনিয়নের শেখপাড়ার সবুর আলির সাথে পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক ছিল রেশমার। স্বামী বিদেশ যাওয়ার পর থেকেই পরকীয়া প্রেমে মেতে ওঠে রেশমা। অবাধে চলাফেরা, কথাবার্তা ও মেলামেশার সুবিধার্থেই ভাড়া বাসায় ওঠেন তিনি।
এ বিষয়ে আলমডাঙ্গা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বলেন, আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে দ্রুত পৌঁছে লাশের সুরতহাল রিপোর্ট সম্পন্ন করেছি। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট হাতে পেলে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ট্যাগ :

নিউজটি শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন

আলমডাঙ্গায় প্রবাসীর স্ত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

আপলোড টাইম : ০৯:৫৮:০৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০২৪

আলমডাঙ্গার পৌর এলাকার একটি বাড়ির পাঁচতলায় থেকে ভাড়াটিয়া ও সৌদি প্রবাসীর স্ত্রী রেশমা খাতুনের (২৮) মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে পৌর এলাকার গোবিন্দপুর মোল্লাবাড়ির ঘর থেকে ভাড়াটিয়া রেশমা খাতুনের (২৮) ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার হয়। রেশমা খাতুন আলমডাঙ্গার বেলগাছি রথখোলাপাড়ার সাইদুর ইসলামের মেয়ে ও চুয়াডাঙ্গা দৌলতদিয়াড় এলাকার সৌদি প্রবাসী শিমুল হোসেনের স্ত্রী। তিনি গোবিন্দপুর এলাকার ওই বাড়ির পঞ্চম তলার ১০ নম্বর ফ্ল্যাটে গত ছয় মাস ধরে ভাড়া থাকছিলেন।

পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা সদরের দৌলতদিয়াড় এলাকার শিমুল হোসেনের সাথে ১৩ বছর আগে বিয়ে হয় রেশমা খাতুনের। ৬ বছর আগে পরিবারের সচ্ছলতা ফেরাতে প্রবাসে পাড়ি জমান শিমুল হোসেন। এরপর রেশমা খাতুন তার ছয় বছর বয়সী মেয়েকে নিয়ে বেলগাছি গ্রামে নিজের বাবা-মায়ের সঙ্গে থাকত। তবে গত ৬ মাস আগে রেশমা তার স্কুলপড়ুয়া মেয়েকে নিয়ে মোল্লা বাড়িতে ভাড়া ওঠেন। প্রতিদিনের মতো গতকাল সকালে মেয়েকে স্কুলে পাঠায় রেশমা। স্কুল থেকে ফিরে মায়ের কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে পাশের ফ্ল্যাটের ভাড়াটিয়া ও প্রতিবেশিরা ঘরে প্রবেশ করলে রেশমা খাতুনকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায়।

একাধিক সূত্র জানায়, হারদী ইউনিয়নের শেখপাড়ার সবুর আলির সাথে পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক ছিল রেশমার। স্বামী বিদেশ যাওয়ার পর থেকেই পরকীয়া প্রেমে মেতে ওঠে রেশমা। অবাধে চলাফেরা, কথাবার্তা ও মেলামেশার সুবিধার্থেই ভাড়া বাসায় ওঠেন তিনি।
এ বিষয়ে আলমডাঙ্গা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বলেন, আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে দ্রুত পৌঁছে লাশের সুরতহাল রিপোর্ট সম্পন্ন করেছি। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট হাতে পেলে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।