ইপেপার । আজবৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ট্রেনে অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে প্রাণ হারালেন বৃদ্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক:
  • আপলোড টাইম : ০৭:৫৯:১৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪
  • / ১২ বার পড়া হয়েছে

চুয়াডাঙ্গা রেল স্টেশন থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার হওয়া শ্যাম কুমার দাশ (৭০) নামের এক বৃদ্ধর মৃত্যু হয়েছে। গত মঙ্গলবার রাত তিনটার দিকে চুয়াডাঙ্গা রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় কিছুক্ষণ পর তিনি মারা যান। অজ্ঞাত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করা হলেও গতকাল বুধবার পুলিশ তার পরিচয় পায়। নিহত ব্যক্তির নাম শ্যাম কুমার দাশ। তিনি সিরাজগঞ্জের শাহাজাদপুর উপজেলার খোকশাবাড়ি গ্রামের অবন্ত চন্দ্র দাশের ছেলে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত শ্যাম কুমার দাশের মরদেহ হাসপাতালের লাশঘরে রাখা ছিল।

রেলওয়ে ফাঁড়ি পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার দিবাগত রাতে চিলাহাটি থেকে ছেড়ে আসা খুলনাগামী আন্তঃনগর সীমান্ত এক্সপ্রেস ট্রেনে ওই বৃদ্ধকে অচেতন অবস্থায় দেখতে পান ট্রেনের দায়িত্বর সদস্যরা। ট্রেনটি চুয়াডাঙ্গা প্লাটফর্মে পৌঁছালে চিকিৎসার জন্য শ্যাম কুমার দাশকে রেলওয়ে ফাঁড়ির পুলিশের নিকট হস্তান্তর করে। এসময় তাকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেয়া হয়। সেখানে কিছুক্ষণ চিকিৎসাধীন থাকার পর শ্যাম কুমার দাশের মৃত্যু হয়।

চুয়াডাঙ্গা রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক (এসআই) মাসুদ রানা বলেন, সীমান্ত এক্সপ্রেস ট্রেন থেকে রাত তিনটার দিকে অচেতন অবস্থায় ওই বৃদ্ধকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাকে ভর্তি করে। এর কিছুক্ষণ পর তার মৃত্যুর বিষয়ে জানতে পারি। ধারণা করা হচ্ছে, তিনি ট্রেনে অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়েছিলেন। অজ্ঞাত পরিচয়ে উদ্ধার হলেও পরে তার পরিচয় পাওয়া গেছে। পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। আইনানুগ প্রক্রিয়ায় লাশ হস্তান্তর করা হবে।

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. আব্দুল কাদের বলেন, রাতে রেলওয়ে পুলিশের সদস্যরা অজ্ঞাত পরিচয়ে অচেতন ওই বৃদ্ধকে জরুরি বিভাগে আনে। জরুরি বিভাগ থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা শুরু করা হলেও এর কিছুক্ষণ পরই তিনি মারা যান। তিনি বলেন, ধারণা করা হচ্ছে তার শরীরে অতিরিক্ত মাত্রায় চেতনানাশক প্রয়োগের ফলে তার মৃত্যু হয়েছে। ময়নাতদন্ত হলে মৃত্যুর সঠিক কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত করে জানা যাবে।

ট্যাগ :

নিউজটি শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন

ট্রেনে অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে প্রাণ হারালেন বৃদ্ধ

আপলোড টাইম : ০৭:৫৯:১৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪

চুয়াডাঙ্গা রেল স্টেশন থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার হওয়া শ্যাম কুমার দাশ (৭০) নামের এক বৃদ্ধর মৃত্যু হয়েছে। গত মঙ্গলবার রাত তিনটার দিকে চুয়াডাঙ্গা রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় কিছুক্ষণ পর তিনি মারা যান। অজ্ঞাত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করা হলেও গতকাল বুধবার পুলিশ তার পরিচয় পায়। নিহত ব্যক্তির নাম শ্যাম কুমার দাশ। তিনি সিরাজগঞ্জের শাহাজাদপুর উপজেলার খোকশাবাড়ি গ্রামের অবন্ত চন্দ্র দাশের ছেলে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত শ্যাম কুমার দাশের মরদেহ হাসপাতালের লাশঘরে রাখা ছিল।

রেলওয়ে ফাঁড়ি পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার দিবাগত রাতে চিলাহাটি থেকে ছেড়ে আসা খুলনাগামী আন্তঃনগর সীমান্ত এক্সপ্রেস ট্রেনে ওই বৃদ্ধকে অচেতন অবস্থায় দেখতে পান ট্রেনের দায়িত্বর সদস্যরা। ট্রেনটি চুয়াডাঙ্গা প্লাটফর্মে পৌঁছালে চিকিৎসার জন্য শ্যাম কুমার দাশকে রেলওয়ে ফাঁড়ির পুলিশের নিকট হস্তান্তর করে। এসময় তাকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেয়া হয়। সেখানে কিছুক্ষণ চিকিৎসাধীন থাকার পর শ্যাম কুমার দাশের মৃত্যু হয়।

চুয়াডাঙ্গা রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক (এসআই) মাসুদ রানা বলেন, সীমান্ত এক্সপ্রেস ট্রেন থেকে রাত তিনটার দিকে অচেতন অবস্থায় ওই বৃদ্ধকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাকে ভর্তি করে। এর কিছুক্ষণ পর তার মৃত্যুর বিষয়ে জানতে পারি। ধারণা করা হচ্ছে, তিনি ট্রেনে অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়েছিলেন। অজ্ঞাত পরিচয়ে উদ্ধার হলেও পরে তার পরিচয় পাওয়া গেছে। পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। আইনানুগ প্রক্রিয়ায় লাশ হস্তান্তর করা হবে।

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. আব্দুল কাদের বলেন, রাতে রেলওয়ে পুলিশের সদস্যরা অজ্ঞাত পরিচয়ে অচেতন ওই বৃদ্ধকে জরুরি বিভাগে আনে। জরুরি বিভাগ থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা শুরু করা হলেও এর কিছুক্ষণ পরই তিনি মারা যান। তিনি বলেন, ধারণা করা হচ্ছে তার শরীরে অতিরিক্ত মাত্রায় চেতনানাশক প্রয়োগের ফলে তার মৃত্যু হয়েছে। ময়নাতদন্ত হলে মৃত্যুর সঠিক কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত করে জানা যাবে।