ইপেপার । আজরবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ৬ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দামুড়হুদা লোকনাথপুরের যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

প্রতিবেদক, দামুড়হুদা:
  • আপলোড টাইম : ০৮:০২:২৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪
  • / ৪১ বার পড়া হয়েছে


দামুড়হুদা উপজেলার লোকনাথপুর গ্রামের কাজল (২৫) নামের এক যুবকের ঝুলন্ত লাশ ঢাকা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। গত মঙ্গলবার বেলা দুইটার দিকে ঢাকার তিব্বত এলাকায় ভাড়া বাসা থেকে তার লাশ উদ্ধার করে তেঁজগাও শিল্পাঞ্চল থানা-পুলিশ। কাজল লোকনাথপুর গ্রামের পূর্বপাড়ার আব্দুর রবের ছেলে। চাকরির সুবাদে তিনি ঢাকায় থাকতেন। কর্মস্থলে মাথার যন্ত্রণা সহ্য করতে না পেরে আত্মহত্যা করে বলে তার পরিবার জানিয়েছে।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, দামুড়হুদা উপজেলার লোকনাথপুর গ্রামের কাজল তেঁজগাও শিল্পাঞ্চল থানাধীন এলাকায় একটা কনজ্যুমার কোম্পানিতে চাকরিতে করত। তিনি প্রায় এক বছর ধরে মাথার যন্ত্রণা রোগে ভুগছিলেন। মাথার যন্ত্রণা সহ্য করতে না পেরে তিব্বত এলাকার ভাড়া বাসায় ফ্যানের সাথে কারেন্টের তার পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন। খবর পেয়ে তেঁজগাও শিল্পাঞ্চল থানা-পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে মর্গে প্রেরণ করে। ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের নিকট লাশ হস্তান্তর করে পুলিশ। গতকাল বুধবার এশার নামাজের পর জানাজা শেষে এলাকার কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

কাজলের বাবা আব্দুর রব বলেন, ‘আমার ছেলে মাথা যন্ত্রণা সহ্য করতে না পেরে আত্মহত্যা করেছে বলে আমাদের ধারণা। আমরা কারো প্রতি কোনো অভিযোগ করিনি।’ তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এবিএম মশিউর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলার লোকনাথপুর গ্রামের কাজল নামের এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করা হয়। পরে লাশ ময়নাতদন্ত শেষে তার পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়। এই মর্মে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

ট্যাগ :

নিউজটি শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন

দামুড়হুদা লোকনাথপুরের যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

আপলোড টাইম : ০৮:০২:২৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪


দামুড়হুদা উপজেলার লোকনাথপুর গ্রামের কাজল (২৫) নামের এক যুবকের ঝুলন্ত লাশ ঢাকা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। গত মঙ্গলবার বেলা দুইটার দিকে ঢাকার তিব্বত এলাকায় ভাড়া বাসা থেকে তার লাশ উদ্ধার করে তেঁজগাও শিল্পাঞ্চল থানা-পুলিশ। কাজল লোকনাথপুর গ্রামের পূর্বপাড়ার আব্দুর রবের ছেলে। চাকরির সুবাদে তিনি ঢাকায় থাকতেন। কর্মস্থলে মাথার যন্ত্রণা সহ্য করতে না পেরে আত্মহত্যা করে বলে তার পরিবার জানিয়েছে।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, দামুড়হুদা উপজেলার লোকনাথপুর গ্রামের কাজল তেঁজগাও শিল্পাঞ্চল থানাধীন এলাকায় একটা কনজ্যুমার কোম্পানিতে চাকরিতে করত। তিনি প্রায় এক বছর ধরে মাথার যন্ত্রণা রোগে ভুগছিলেন। মাথার যন্ত্রণা সহ্য করতে না পেরে তিব্বত এলাকার ভাড়া বাসায় ফ্যানের সাথে কারেন্টের তার পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন। খবর পেয়ে তেঁজগাও শিল্পাঞ্চল থানা-পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে মর্গে প্রেরণ করে। ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের নিকট লাশ হস্তান্তর করে পুলিশ। গতকাল বুধবার এশার নামাজের পর জানাজা শেষে এলাকার কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

কাজলের বাবা আব্দুর রব বলেন, ‘আমার ছেলে মাথা যন্ত্রণা সহ্য করতে না পেরে আত্মহত্যা করেছে বলে আমাদের ধারণা। আমরা কারো প্রতি কোনো অভিযোগ করিনি।’ তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এবিএম মশিউর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলার লোকনাথপুর গ্রামের কাজল নামের এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করা হয়। পরে লাশ ময়নাতদন্ত শেষে তার পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়। এই মর্মে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।