ইপেপার । আজবৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চুয়াডাঙ্গায় প্রকৃতি ও জীবন ক্লাবের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী এবং বিশ্ব পরিবেশ দিবস উদ্যাপন

বাসযোগ্য সুন্দর পৃথিবী গড়তে বেশি বেশি গাছ লাগানোর আহ্বান

নিজস্ব প্রতিবেদক:
  • আপলোড টাইম : ০৮:২৬:২৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ জুন ২০২৪
  • / ২৯ বার পড়া হয়েছে

চুয়াডাঙ্গায় ‘সুন্দর প্রকৃতিতে গড়ি সুস্থ জীবন’ স্লোগানে প্রকৃতি ও জীবন ক্লাবের ২য় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও বিশ্ব পরিবেশ দিবস উদ্যাপন করা হয়েছে। গতকাল বুধবার দুপুর ১২টায় দৈনিক সময়ের সমীকরণ পত্রিকার অডিটরিয়ামে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রকৃতি ও জীবন ক্লাব চুয়াডাঙ্গা শাখার সমন্বয়কারী রাজীব হাসান কচি। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দৈনিক পশ্চিমাঞ্চল পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক আজাদ মালিতা। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন দৈনিক সময়ের সমীকরণ প্রধান সম্পাদক নাজমুল হক স্বপন ও বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ এম এম আলাউদ্দীন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক শেখ সেলিম, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা লোকমোর্চার সভাপতি অ্যাড. মানিক আকবর, সিনিয়র সাংবাদিক কামাল উদ্দীন জোয়ার্দ্দার, এটিএম বাংলা ও এটিএন নিউজের চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি রফিক রহমান, জিটিভি ও বণিক বার্তার চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি রিফাত রহমান, তারাদেবী ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তা আলমগীর কবির শিপলু, নাগরিক টিভির প্রতিনিধি হুসাইন মালিক, সময় টিভির প্রতিনিধি মাহফুজ মামুন, ডিবিসি টিভির প্রতিনিধি কামরুজ্জামান সেলিম, চুয়াডাঙ্গা বিতর্ক চর্চা কেন্দ্রের আহ্বায়ক ও অধিকারকর্মী মেহেরাব্বিন সানভী, ঢাকা টাইমস প্রতিনিধি আহসান আলম, পশ্চিমাঞ্চল প্রতিনিধি কামরুল ইসলাম, আমার সংবাদ প্রতিনিধি আব্দুল্লাহ হক, কলেজ ছাত্র প্রান্ত, নাজমুল প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে দৈনিক পশ্চিমাঞ্চল পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক আজাদ মালিতা বলেন, প্রকৃতি ও জীবন ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা মুকিত মজুমদার বাবুকে যে ‘প্রকৃতিবন্ধু’ আখ্যা দেওয়া হয়, তার মধ্যে অত্যুক্তি নেই। প্রকৃতির সঙ্গে রয়েছে তার নিবিড় সখ্য। অন্তর দিয়ে অনুধাবন করেন তিনি প্রকৃতির ভাষা। জন্মভূমির প্রতি আজন্ম ঋণই তাকে করে তুলেছে প্রকৃতির প্রতি দায়বদ্ধ। নতুন প্রজন্মের কাছে তিনি দূষণমুক্ত সুস্থ-সুন্দর প্রাণ-প্রাচুর্যে ভরা বাংলাদেশ উপহার দেওয়ার প্রত্যয়ে ২০০৯ সালে প্রতিষ্ঠা করেন প্রকৃতি ও জীবন ক্লাব। পরিবেশ, জীববৈচিত্র্য, বন ও বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ এবং জলবায়ুর পরিবর্তনজনিত অভিঘাত মোকাবিলা ও অভিযোজন সম্পর্কিত গণসচেতনতা সৃষ্টিতে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ চ্যানেল আইতে ধারাবাহিক প্রামাণ্য অনুষ্ঠান ‘প্রকৃতি ও জীবন’।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে দৈনিক সময়ের সমীকরণ পত্রিকার প্রধান সম্পাদক নাজমুল হক স্বপন বলেন, বন্যপ্রাণী অবমুক্তকরণ, প্রতি বছর বিশ্ব জলবায়ু সম্মেলনে অংশগ্রহণ, দেশি প্রজাতির বৃক্ষরোপণ, গোলটেবিল বৈঠক, পরিবেশ সংরক্ষণে বিভিন্ন কর্মশালা, জাতীয় উদ্ভিদ উদ্যান ও চিড়িয়াখানায় গাছের পরিচিতি ফলক সংযুক্তকরণ, পরিবেশ ও প্রকৃতিবিষয়ক বিভিন্ন কর্মকাণ্ড ও মাঠ পর্যায়ে বিভিন্ন গবেষণা কার্যক্রম এগিয়ে নেওয়া, পরিবেশ সচেতনতামূলক স্কুল প্রোগ্রাম, প্রকৃতিপল্লি প্রতিষ্ঠা, প্রকৃতি ও জীবন স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র স্থাপনসহ বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে প্রকৃতি ও জীবন ক্লাব কাজ করে যাচ্ছে। চুয়াডাঙ্গাতেও বিভিন্ন কার্যক্রম চোখে পড়েছে। এটি প্রশংসনীয় একটি সংগঠন।

বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ এম এম আলাউদ্দীন বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বলেন, প্রকৃতি ও জীবন ক্লাবের বিভিন্ন কার্যক্রম চোখে পড়ার মতো। তাদের উদ্যোগগুলো মানুষের জন্য, পরিবেশ তথা প্রকৃতির জন্য। আজকে বিশ্ব পরিবেশ দিবসের দিনেই সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। আমরা ক্লাবটির সাফল্য কামনা করি। সেই পরিবেশ রক্ষায় আমাদের সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। আলোচনা সভায় বক্তারা একটি বাসযোগ্য সুন্দর পৃথিবী গড়ে তুলতে পরিবেশ সংরক্ষণসহ বেশি বেশি করে গাছ লাগানোর আহ্বান জানান। অনুষ্ঠান শেষে প্রকৃতি ও জীবন ক্লাবের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কেক কাটায় অংশগ্রহণ করেন ক্লাবের উপদেষ্টা ও সদস্যসহ অতিথিবৃন্দ।

ট্যাগ :

নিউজটি শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন

চুয়াডাঙ্গায় প্রকৃতি ও জীবন ক্লাবের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী এবং বিশ্ব পরিবেশ দিবস উদ্যাপন

বাসযোগ্য সুন্দর পৃথিবী গড়তে বেশি বেশি গাছ লাগানোর আহ্বান

আপলোড টাইম : ০৮:২৬:২৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ জুন ২০২৪

চুয়াডাঙ্গায় ‘সুন্দর প্রকৃতিতে গড়ি সুস্থ জীবন’ স্লোগানে প্রকৃতি ও জীবন ক্লাবের ২য় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও বিশ্ব পরিবেশ দিবস উদ্যাপন করা হয়েছে। গতকাল বুধবার দুপুর ১২টায় দৈনিক সময়ের সমীকরণ পত্রিকার অডিটরিয়ামে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রকৃতি ও জীবন ক্লাব চুয়াডাঙ্গা শাখার সমন্বয়কারী রাজীব হাসান কচি। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দৈনিক পশ্চিমাঞ্চল পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক আজাদ মালিতা। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন দৈনিক সময়ের সমীকরণ প্রধান সম্পাদক নাজমুল হক স্বপন ও বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ এম এম আলাউদ্দীন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক শেখ সেলিম, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা লোকমোর্চার সভাপতি অ্যাড. মানিক আকবর, সিনিয়র সাংবাদিক কামাল উদ্দীন জোয়ার্দ্দার, এটিএম বাংলা ও এটিএন নিউজের চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি রফিক রহমান, জিটিভি ও বণিক বার্তার চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি রিফাত রহমান, তারাদেবী ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তা আলমগীর কবির শিপলু, নাগরিক টিভির প্রতিনিধি হুসাইন মালিক, সময় টিভির প্রতিনিধি মাহফুজ মামুন, ডিবিসি টিভির প্রতিনিধি কামরুজ্জামান সেলিম, চুয়াডাঙ্গা বিতর্ক চর্চা কেন্দ্রের আহ্বায়ক ও অধিকারকর্মী মেহেরাব্বিন সানভী, ঢাকা টাইমস প্রতিনিধি আহসান আলম, পশ্চিমাঞ্চল প্রতিনিধি কামরুল ইসলাম, আমার সংবাদ প্রতিনিধি আব্দুল্লাহ হক, কলেজ ছাত্র প্রান্ত, নাজমুল প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে দৈনিক পশ্চিমাঞ্চল পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক আজাদ মালিতা বলেন, প্রকৃতি ও জীবন ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা মুকিত মজুমদার বাবুকে যে ‘প্রকৃতিবন্ধু’ আখ্যা দেওয়া হয়, তার মধ্যে অত্যুক্তি নেই। প্রকৃতির সঙ্গে রয়েছে তার নিবিড় সখ্য। অন্তর দিয়ে অনুধাবন করেন তিনি প্রকৃতির ভাষা। জন্মভূমির প্রতি আজন্ম ঋণই তাকে করে তুলেছে প্রকৃতির প্রতি দায়বদ্ধ। নতুন প্রজন্মের কাছে তিনি দূষণমুক্ত সুস্থ-সুন্দর প্রাণ-প্রাচুর্যে ভরা বাংলাদেশ উপহার দেওয়ার প্রত্যয়ে ২০০৯ সালে প্রতিষ্ঠা করেন প্রকৃতি ও জীবন ক্লাব। পরিবেশ, জীববৈচিত্র্য, বন ও বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ এবং জলবায়ুর পরিবর্তনজনিত অভিঘাত মোকাবিলা ও অভিযোজন সম্পর্কিত গণসচেতনতা সৃষ্টিতে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ চ্যানেল আইতে ধারাবাহিক প্রামাণ্য অনুষ্ঠান ‘প্রকৃতি ও জীবন’।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে দৈনিক সময়ের সমীকরণ পত্রিকার প্রধান সম্পাদক নাজমুল হক স্বপন বলেন, বন্যপ্রাণী অবমুক্তকরণ, প্রতি বছর বিশ্ব জলবায়ু সম্মেলনে অংশগ্রহণ, দেশি প্রজাতির বৃক্ষরোপণ, গোলটেবিল বৈঠক, পরিবেশ সংরক্ষণে বিভিন্ন কর্মশালা, জাতীয় উদ্ভিদ উদ্যান ও চিড়িয়াখানায় গাছের পরিচিতি ফলক সংযুক্তকরণ, পরিবেশ ও প্রকৃতিবিষয়ক বিভিন্ন কর্মকাণ্ড ও মাঠ পর্যায়ে বিভিন্ন গবেষণা কার্যক্রম এগিয়ে নেওয়া, পরিবেশ সচেতনতামূলক স্কুল প্রোগ্রাম, প্রকৃতিপল্লি প্রতিষ্ঠা, প্রকৃতি ও জীবন স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র স্থাপনসহ বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে প্রকৃতি ও জীবন ক্লাব কাজ করে যাচ্ছে। চুয়াডাঙ্গাতেও বিভিন্ন কার্যক্রম চোখে পড়েছে। এটি প্রশংসনীয় একটি সংগঠন।

বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ এম এম আলাউদ্দীন বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বলেন, প্রকৃতি ও জীবন ক্লাবের বিভিন্ন কার্যক্রম চোখে পড়ার মতো। তাদের উদ্যোগগুলো মানুষের জন্য, পরিবেশ তথা প্রকৃতির জন্য। আজকে বিশ্ব পরিবেশ দিবসের দিনেই সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। আমরা ক্লাবটির সাফল্য কামনা করি। সেই পরিবেশ রক্ষায় আমাদের সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। আলোচনা সভায় বক্তারা একটি বাসযোগ্য সুন্দর পৃথিবী গড়ে তুলতে পরিবেশ সংরক্ষণসহ বেশি বেশি করে গাছ লাগানোর আহ্বান জানান। অনুষ্ঠান শেষে প্রকৃতি ও জীবন ক্লাবের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কেক কাটায় অংশগ্রহণ করেন ক্লাবের উপদেষ্টা ও সদস্যসহ অতিথিবৃন্দ।