চুয়াডাঙ্গা শনিবার , ৪ ডিসেম্বর ২০২১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ঘূর্ণিঝড় ‘জাওয়াদ’র গর্জন: ভারতের উপকূলে আঘাত আজ, বাংলাদেশে বৃষ্টি হবে

সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
ডিসেম্বর ৪, ২০২১ ১২:৫৩ অপরাহ্ণ
Link Copied!

দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর ও এর সংলগ্ন এলাকায় অবস্থান সুস্পষ্ট লঘুচাপটি উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে প্রথমে নিম্নচাপ এবং পরে গভীর নিম্নচাপে পরিণত এবং এর কিছুক্ষণ পরই এটি ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়েছে। এই ঘূর্ণিঝড়টির নাম জাওয়াদ (আরবিতে জুয়াদ)। এটি যাচ্ছে ভারতের উড়িষ্যা উপকূলে অপেক্ষাকৃত দুর্বল ঝড় হিসেবে।

আবহাওয়াবিদ মোস্তফা কামাল জানিয়েছেন, ‘ঘূর্ণিঝড়টি বর্তমানে যে স্থানে অবস্থান করছে সেই স্থানের সমুদ্রের পানির তাপমাত্রা সমগ্র বঙ্গোপসাগরের মধ্যে সবেচেয়ে কম। সে কারণে ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদ শক্তিশালী হওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় শক্তি সংগ্রহ করতে পারছে না। এ কারণে এটি একটি অপেক্ষাকৃত দুর্বল প্রকৃতির ঘূর্ণিঝড় হিসেবে ভারতের উড়িষ্যা উপকূলে আঘাত করবে। পরে উপকূল ঘেঁষে উত্তর-পূর্ব দিকে আরো কিছুটা সময় অগ্রসর হবে। সর্বশেষ পূর্বাভাষ অনুসারে ঘূর্ণিঝড়ের কেন্দ্র বাংলাদেশের উপকূলে আঘাত হানার আশঙ্কা নেই। তবে ঘূর্ণিঝড়টির প্রভাবে দেশব্যাপী বৃষ্টিপাত হবে।’

বাংলাদেশের আবহাওয়া অফিস গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় জানিয়েছে, পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও এর সংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদ আরো উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে একই এলাকায় অবস্থান করছে। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টায় চট্টগ্রাম বন্দর থেকে এক হাজার ৮৫ কিলোমিটার দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমে, কক্সবাজার বন্দর থেকে এক হজার ৪০ কিলোমিটার দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমে, মংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ৯৬০ কিলোমিটার দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ৯৬৫ কিলোমিটার দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছিল। এটি আরো ঘনীভূত হয়ে উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হতে পারে। ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৫৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা গতিবেগ ঘণ্টায় ৬২ কিলোমিটার, যা দমকা ও ঝড়ো হাওয়ার আকারে ৮৮ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পেতে পারে। ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের কাছে সাগর খুবই উত্তাল রয়েছে। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ২ নম্বর দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সঙ্কেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। তাদের গভীরে সাগরে বিচরণ না করতে বলা হয়েছে।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।