ইপেপার । আজরবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ৬ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আলমডাঙ্গা উপজেলা চেয়ারম্যান মুঞ্জিলুর রহমানের অভিষেক

ভ্রাম্যমাণ প্রতিবেদক, আলমডাঙ্গা:
  • আপলোড টাইম : ১১:০১:৩০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪
  • / ২১ বার পড়া হয়েছে

দলীয় নেতা-কর্মী ও সমর্থকের সরব উপস্থিতিতে জাম-জমকপূর্ণ পরিবেশে অভিষেক হলো আলমডাঙ্গা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কে এম মুঞ্জিলুর রহমান এবং ভাইস চেয়ারম্যান মাসুম বিল্লাহ ও মনিরা খাতুনের। গতকাল রোববার বেলা ১১টায় উপজেলা পরিষদ অডিটরিয়ামে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এর আগে চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন উপজেলা চেয়ারম্যান কে এম মুঞ্জিলুর রহমানকে সাথে নিয়ে উপজেলা চেয়ারম্যানের অফিসে গিয়ে তাকে চেয়ারে বসান।

এদিকে আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্বভার গ্রহণের পর উপজেলা পরিষদের প্রথম মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম সভায় সভাপতিত্ব করেন নবনির্বাচিত উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কে এম মুঞ্জিলুর রহমান। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন। স্বাগত বক্তব্য দেন আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) স্নিগ্ধা দাস।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন বলেন, ‘আমি শুধু এতটুকু বলব যে, আগামী পাঁচটি বছর সমন্বয় করে চলতে হবে। সমন্বয় ছাড়া কোনো কাজ হবে না। এখানে বিভিন্ন দপ্তরের অফিসাররা আছেন। চেয়ারম্যান ভাইয়েরা আছেন, সাংবাদিক ভাইয়েরা আছেন। এবং বিভিন্নভাবে অনেকে উপস্থিত হয়েছেন। অনেক রাজনীতিবিদ আছেন। সকলের উদ্দেশ্যে আমি শুধু একটা কথাই বলব যে, রাগ করবেন না। রাগ না, যুক্তি তর্কের সাথে আপনার কথাটা যুক্তি দিয়ে স্পষ্টভাবে বোঝানোর চেষ্টা করবেন। চিল্লায়ে বা গা গরম করে কোনো লাভ হয় না। সুতরাং আপনাদের কাছে আমার সম্মিলিতভাবে একটা আহ্বান থাকবে যে, আমাদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান আপনাদের সকলের সহযোগিতা কামনা করছে। আপনারা সকলে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেবেন।’
নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মঞ্জিল হক বলেন, ‘আপনারা আমাকে বিপুল ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী করেছেন, এ জন্য আমি আপনাদের কাছে কৃতজ্ঞ। আশা করি ভবিষ্যতেও আমার প্রতি আপনাদের দক্ষিণ হাত প্রসারিত থাকবে। আগামী পাঁচ বছর আমি আপনাদের কল্যাণে কাজ করার জন্য সর্বদা চেষ্টা করব। আমার সাধ্যের শূন্যতা উজাড় করে আপনাদের পাশে থাকতে চায়। উপজেলার সকল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের সাথে নিয়ে উন্নয়ন কার্যক্রম পরিচালনা করব। আমি আলমডাঙ্গাকে স্মার্ট উপজেলা উপজেলা হিসেবে গড়ে তুলতে চাই।’

সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন নবনির্বাচিত ভাইস চেয়ারম্যান মাসুম বিল্লাহ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মনিরা খাতুন, আলমডাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ গনি মিয়া, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডা. শারমিন আক্তার, প্রাণিসম্পদ অফিসার ডা. আব্দুল্লাহিল কাফি, কৃষি অফিসার রেহেনা পারভিন, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পৌর মেয়র রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুদুজ্জামান লিটু বিশ্বাস ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক প্রচার সম্পাদক মাসুদ রানা তুহিন।

উপজেলা রিসোর্স সেন্টারের ইন্সট্রাক্টর জামাল হোসেনের উপস্থাপনায় এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন ইউপি চেয়ারম্যান মোজাহিদুর রহমান জোয়ার্দ্দার লোটাস, আশিকুজ্জমান ওল্টু, আবু সাঈদ পিণ্টু, মাহমুদুল হাসান চঞ্চল, তরিকুল ইসলাম, এজাজ ইমতিয়াজ বিপুল জোয়ার্দ্দার, সোহানুর রহমান, আলহাজ¦ শেখ আশাদুল হক মিকা, মকলেছুর রহমান শিলন, তাফসির আহমেদ মল্লিক লাল, ইমদাদুল হক মুন্সি, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু মুছা, সাধারণ সম্পাদক ইয়াকুব আলী মাস্টার, আলমডাঙ্গা পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি দেলোয়ার হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহসভাপতি বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আলহাজ¦ লিয়াকত আলী লিপু মোল্লা, পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক সাইফুর রহমান পিণ্টু, উপজেলা প্রকৌশলী তাওহীদ আহমেদ, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিসার এ এফ মাহমুদ শাহারিয়ার, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার জিয়াউল হক, উপজেলা শিক্ষা অফিসার ভারপ্রাপ্ত শামীম সুলতান, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার এনামুল হক, সমাজসেবা অফিসার নাজমুল হোসেন, আনসার ভিডিপি অফিসার আজিজুল হাকিম, খাদ্য নিয়ন্ত্রণ আব্দুল হামিদ, বিআরডিবি অফিসার শায়লা শারমিন, মহিলা বিষয়ক অফিসার মাখছুরা জান্নাত, পল্লি সঞ্চয় ব্যাংক ব্যবস্থাপক শেফালি বেগম, তথ্য অফিসার স্নিগ্ধা দাস প্রমুখ।

ট্যাগ :

নিউজটি শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন

আলমডাঙ্গা উপজেলা চেয়ারম্যান মুঞ্জিলুর রহমানের অভিষেক

আপলোড টাইম : ১১:০১:৩০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪

দলীয় নেতা-কর্মী ও সমর্থকের সরব উপস্থিতিতে জাম-জমকপূর্ণ পরিবেশে অভিষেক হলো আলমডাঙ্গা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কে এম মুঞ্জিলুর রহমান এবং ভাইস চেয়ারম্যান মাসুম বিল্লাহ ও মনিরা খাতুনের। গতকাল রোববার বেলা ১১টায় উপজেলা পরিষদ অডিটরিয়ামে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এর আগে চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন উপজেলা চেয়ারম্যান কে এম মুঞ্জিলুর রহমানকে সাথে নিয়ে উপজেলা চেয়ারম্যানের অফিসে গিয়ে তাকে চেয়ারে বসান।

এদিকে আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্বভার গ্রহণের পর উপজেলা পরিষদের প্রথম মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম সভায় সভাপতিত্ব করেন নবনির্বাচিত উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কে এম মুঞ্জিলুর রহমান। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন। স্বাগত বক্তব্য দেন আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) স্নিগ্ধা দাস।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন বলেন, ‘আমি শুধু এতটুকু বলব যে, আগামী পাঁচটি বছর সমন্বয় করে চলতে হবে। সমন্বয় ছাড়া কোনো কাজ হবে না। এখানে বিভিন্ন দপ্তরের অফিসাররা আছেন। চেয়ারম্যান ভাইয়েরা আছেন, সাংবাদিক ভাইয়েরা আছেন। এবং বিভিন্নভাবে অনেকে উপস্থিত হয়েছেন। অনেক রাজনীতিবিদ আছেন। সকলের উদ্দেশ্যে আমি শুধু একটা কথাই বলব যে, রাগ করবেন না। রাগ না, যুক্তি তর্কের সাথে আপনার কথাটা যুক্তি দিয়ে স্পষ্টভাবে বোঝানোর চেষ্টা করবেন। চিল্লায়ে বা গা গরম করে কোনো লাভ হয় না। সুতরাং আপনাদের কাছে আমার সম্মিলিতভাবে একটা আহ্বান থাকবে যে, আমাদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান আপনাদের সকলের সহযোগিতা কামনা করছে। আপনারা সকলে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেবেন।’
নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মঞ্জিল হক বলেন, ‘আপনারা আমাকে বিপুল ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী করেছেন, এ জন্য আমি আপনাদের কাছে কৃতজ্ঞ। আশা করি ভবিষ্যতেও আমার প্রতি আপনাদের দক্ষিণ হাত প্রসারিত থাকবে। আগামী পাঁচ বছর আমি আপনাদের কল্যাণে কাজ করার জন্য সর্বদা চেষ্টা করব। আমার সাধ্যের শূন্যতা উজাড় করে আপনাদের পাশে থাকতে চায়। উপজেলার সকল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের সাথে নিয়ে উন্নয়ন কার্যক্রম পরিচালনা করব। আমি আলমডাঙ্গাকে স্মার্ট উপজেলা উপজেলা হিসেবে গড়ে তুলতে চাই।’

সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন নবনির্বাচিত ভাইস চেয়ারম্যান মাসুম বিল্লাহ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মনিরা খাতুন, আলমডাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ গনি মিয়া, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডা. শারমিন আক্তার, প্রাণিসম্পদ অফিসার ডা. আব্দুল্লাহিল কাফি, কৃষি অফিসার রেহেনা পারভিন, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পৌর মেয়র রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুদুজ্জামান লিটু বিশ্বাস ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক প্রচার সম্পাদক মাসুদ রানা তুহিন।

উপজেলা রিসোর্স সেন্টারের ইন্সট্রাক্টর জামাল হোসেনের উপস্থাপনায় এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন ইউপি চেয়ারম্যান মোজাহিদুর রহমান জোয়ার্দ্দার লোটাস, আশিকুজ্জমান ওল্টু, আবু সাঈদ পিণ্টু, মাহমুদুল হাসান চঞ্চল, তরিকুল ইসলাম, এজাজ ইমতিয়াজ বিপুল জোয়ার্দ্দার, সোহানুর রহমান, আলহাজ¦ শেখ আশাদুল হক মিকা, মকলেছুর রহমান শিলন, তাফসির আহমেদ মল্লিক লাল, ইমদাদুল হক মুন্সি, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু মুছা, সাধারণ সম্পাদক ইয়াকুব আলী মাস্টার, আলমডাঙ্গা পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি দেলোয়ার হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহসভাপতি বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আলহাজ¦ লিয়াকত আলী লিপু মোল্লা, পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক সাইফুর রহমান পিণ্টু, উপজেলা প্রকৌশলী তাওহীদ আহমেদ, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিসার এ এফ মাহমুদ শাহারিয়ার, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার জিয়াউল হক, উপজেলা শিক্ষা অফিসার ভারপ্রাপ্ত শামীম সুলতান, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার এনামুল হক, সমাজসেবা অফিসার নাজমুল হোসেন, আনসার ভিডিপি অফিসার আজিজুল হাকিম, খাদ্য নিয়ন্ত্রণ আব্দুল হামিদ, বিআরডিবি অফিসার শায়লা শারমিন, মহিলা বিষয়ক অফিসার মাখছুরা জান্নাত, পল্লি সঞ্চয় ব্যাংক ব্যবস্থাপক শেফালি বেগম, তথ্য অফিসার স্নিগ্ধা দাস প্রমুখ।