ইপেপার । আজবৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দামুড়হুদায় সচেতনতামূলক সভায় জেলা প্রশাসক ড. কিসিঞ্জার চাকমা

ছোট সোনামণিদের হাতে মোবাইল দেওয়া যাবে না

সমীকরণ প্রতিবেদন
  • আপলোড টাইম : ০৩:২৭:৪২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ জুন ২০২৪
  • / ৫ বার পড়া হয়েছে

দামুড়হুদায় প্রাথমিক শিক্ষার মানোন্নয়নে ও উত্তম চর্চা সম্পর্কে শিক্ষক ও অভিভাবকদের নিয়ে সচেতনতামূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার জুড়ানপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের আয়োজনে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) রোকসানা মিতার সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গার জেলা প্রশাসক ড. কিসিঞ্জার চাকমা।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘কোমলমতি বাঁচ্চাদের সময় দিতে হবে। ডিজিটাল প্রযুক্তির বিষয়ে সচেতন হতে হবে। ১৮ বছরের আগে বাঁচ্চাদের হাতে মোবাইল তুলে দেওয়া উচিত নয়। বাঁচ্চাদের খাবারে অবশ্যই পুষ্টির বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে। বাঁচ্চাদের ছোটবেলায় যা শেখানো যাবে, তাই কিন্তু তারা শিখবে। তাই আপনারা পিতা-মাতারা অবশ্যই বাঁচ্চাদের সুশিক্ষায় শিক্ষিত করতে চাইলে ছোটবেলা থেকেই তাদের নৈতিকতার শিক্ষা দিতে হবে। বড়দের সম্মান করা শেখাতে হবে।’

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. আবু হাসান, মেহেরপুর সরকারি মহিলা কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ আহসান আলী, জুড়ানপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক এবং প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মো. একরামুল হক, সাবেক প্রধান শিক্ষক হাবিবুর রহমান, ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সাফায়েত হোসেন, আওয়ামী লীগ নেতা শরিফ উদ্দিন, জুড়ানপুর ইউপি সদস্য মোখলেছুর রহমান, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এখলাছুর রহমান জাকির প্রমুখ।

ট্যাগ :

নিউজটি শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন

দামুড়হুদায় সচেতনতামূলক সভায় জেলা প্রশাসক ড. কিসিঞ্জার চাকমা

ছোট সোনামণিদের হাতে মোবাইল দেওয়া যাবে না

আপলোড টাইম : ০৩:২৭:৪২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ জুন ২০২৪

দামুড়হুদায় প্রাথমিক শিক্ষার মানোন্নয়নে ও উত্তম চর্চা সম্পর্কে শিক্ষক ও অভিভাবকদের নিয়ে সচেতনতামূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার জুড়ানপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের আয়োজনে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) রোকসানা মিতার সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গার জেলা প্রশাসক ড. কিসিঞ্জার চাকমা।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘কোমলমতি বাঁচ্চাদের সময় দিতে হবে। ডিজিটাল প্রযুক্তির বিষয়ে সচেতন হতে হবে। ১৮ বছরের আগে বাঁচ্চাদের হাতে মোবাইল তুলে দেওয়া উচিত নয়। বাঁচ্চাদের খাবারে অবশ্যই পুষ্টির বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে। বাঁচ্চাদের ছোটবেলায় যা শেখানো যাবে, তাই কিন্তু তারা শিখবে। তাই আপনারা পিতা-মাতারা অবশ্যই বাঁচ্চাদের সুশিক্ষায় শিক্ষিত করতে চাইলে ছোটবেলা থেকেই তাদের নৈতিকতার শিক্ষা দিতে হবে। বড়দের সম্মান করা শেখাতে হবে।’

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. আবু হাসান, মেহেরপুর সরকারি মহিলা কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ আহসান আলী, জুড়ানপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক এবং প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মো. একরামুল হক, সাবেক প্রধান শিক্ষক হাবিবুর রহমান, ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সাফায়েত হোসেন, আওয়ামী লীগ নেতা শরিফ উদ্দিন, জুড়ানপুর ইউপি সদস্য মোখলেছুর রহমান, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এখলাছুর রহমান জাকির প্রমুখ।