ইপেপার । আজবৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দর্শনায় তীব্র গরমের মাঝে ঘন ঘন লোডশেডিং

দর্শনা অফিস:
  • আপলোড টাইম : ০৯:০৪:১৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১০ জুন ২০২৪
  • / ৯ বার পড়া হয়েছে

দর্শনায় বিদ্যুতের ঘন ঘন লোডশেডিংয়ে চরম বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে জনজীবন। গত কয়েক দিনের প্রচণ্ড গরমে দিন-রাতে সমান তালে বিদ্যুৎ যাওয়া-আসা করছে। এত জনজীবন এক প্রকার দুর্বিসহ হয়ে উঠেছে।

গতকাল রোববার বেলা একটার দিকে দর্শনা সোনালী ব্যাংকের সিকিউরিটি গার্ড ফেরদৌস আলী (৫০) প্রচণ্ড গরমে অসুস্থ হয়ে পড়েন। এসময় ব্যাংকের ম্যানেজার আব্দুল লতিফ তাকে প্রথমে দর্শনা মা ও শিশু হাসপাতালে নেয়। এরপর অবস্থা বেগতিক দেখে তাকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ও পরে ঢাকায় নেয়া হয়।

এছাড়া দর্শনা পৌর এলাকায় গত দুই দিন ধরে রাতে ৯-১০ বার বিদ্যুৎ আসা-যাওয়া করেছে। ফলে প্রচণ্ড গরমে মানুষের নাভিশ^াস অবস্থা। স্থানীয়রা ক্ষোভ প্রকাশ বলেন, ‘বিদ্যুৎ নিবা গো বিদ্যুৎ, সে বিদ্যুতের ফেরিওয়ালা এখন কোথায়। জাতীয় সংসদে দাঁড়িয়ে সে দিন যে একজন সংসদ সদস্য বলেছিল, দেশে এতো পরিমাণ বিদ্যুৎ উৎপাদন হবে যে ঝুঁড়িতে করে বলতে হবে বিদ্যুৎ নিবা গো বিদ্যুৎ। সেই বিদ্যুৎ এখন কোথায়?’

এ বিষয়ে দর্শনা পল্লী বিদ্যুতের এজিএম শামীম আহম্মেদের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘চুয়াডাঙ্গা ট্রান্সফর্মায় অতিরিক্ত ওভার লোডিং হওয়ার ফলে বিদ্যুৎ বন্ধ রাখতে হচ্ছে। বিদ্যুৎ চাহিদার তুলনায় বেশি ব্যবহার হচ্ছে। ফলে বিদ্যুৎ লাইন বন্ধ রাখছে চুয়াডাঙ্গা থেকে।

ট্যাগ :

নিউজটি শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন

দর্শনায় তীব্র গরমের মাঝে ঘন ঘন লোডশেডিং

আপলোড টাইম : ০৯:০৪:১৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১০ জুন ২০২৪

দর্শনায় বিদ্যুতের ঘন ঘন লোডশেডিংয়ে চরম বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে জনজীবন। গত কয়েক দিনের প্রচণ্ড গরমে দিন-রাতে সমান তালে বিদ্যুৎ যাওয়া-আসা করছে। এত জনজীবন এক প্রকার দুর্বিসহ হয়ে উঠেছে।

গতকাল রোববার বেলা একটার দিকে দর্শনা সোনালী ব্যাংকের সিকিউরিটি গার্ড ফেরদৌস আলী (৫০) প্রচণ্ড গরমে অসুস্থ হয়ে পড়েন। এসময় ব্যাংকের ম্যানেজার আব্দুল লতিফ তাকে প্রথমে দর্শনা মা ও শিশু হাসপাতালে নেয়। এরপর অবস্থা বেগতিক দেখে তাকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ও পরে ঢাকায় নেয়া হয়।

এছাড়া দর্শনা পৌর এলাকায় গত দুই দিন ধরে রাতে ৯-১০ বার বিদ্যুৎ আসা-যাওয়া করেছে। ফলে প্রচণ্ড গরমে মানুষের নাভিশ^াস অবস্থা। স্থানীয়রা ক্ষোভ প্রকাশ বলেন, ‘বিদ্যুৎ নিবা গো বিদ্যুৎ, সে বিদ্যুতের ফেরিওয়ালা এখন কোথায়। জাতীয় সংসদে দাঁড়িয়ে সে দিন যে একজন সংসদ সদস্য বলেছিল, দেশে এতো পরিমাণ বিদ্যুৎ উৎপাদন হবে যে ঝুঁড়িতে করে বলতে হবে বিদ্যুৎ নিবা গো বিদ্যুৎ। সেই বিদ্যুৎ এখন কোথায়?’

এ বিষয়ে দর্শনা পল্লী বিদ্যুতের এজিএম শামীম আহম্মেদের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘চুয়াডাঙ্গা ট্রান্সফর্মায় অতিরিক্ত ওভার লোডিং হওয়ার ফলে বিদ্যুৎ বন্ধ রাখতে হচ্ছে। বিদ্যুৎ চাহিদার তুলনায় বেশি ব্যবহার হচ্ছে। ফলে বিদ্যুৎ লাইন বন্ধ রাখছে চুয়াডাঙ্গা থেকে।