ইপেপার । আজবৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুজিবনগরে পদ্ম বিলের মাছ লুটের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

মুজিবনগর অফিস:
  • আপলোড টাইম : ১১:৩০:৩৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ জুন ২০২৪
  • / ১১ বার পড়া হয়েছে

মেহেরপুরের মুজিবনগর উপজেলার তারানগর গ্রামের পদ্ম বিলের মাছ লুটের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনার প্রতিবাদ ও প্রতিকার চেয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ওই গ্রামের উলফাত শেখ ও তার শরীকগণ। গতকাল বুধবার দুপুরে বিলের পাশে এই সংবাদ সম্মেলন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে জমির দখল ও মাছ লুটের ফিরিস্তি তুলে ধরা হয়েছে। মৎস্য চাষি উলফাত শেখের পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন খাইরুল ইসলাম ওরফে ইতা। বক্তব্যে তিনি বলেন, পদ্ম বিলের সরকারের খাস খতিয়ানের ১৬.৭০ একর জমি উলফাত শেখসহ কয়েকজন সরকারের কাছ থেকে চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত নেন। আরএস রেকর্ডের সময় ওই জমি ভুল করে সরকারের খতিয়ানভুক্ত হয়। বিষয়টি জানতে পেরে ও তা সংশোধনের জন্য বিভিন্ন সময় সংশ্লিষ্ট দপ্তরের শরণাপণ্ন হলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বিষয়টি সমাধানের আশ^াস দেন। সরকারের কাছ থেকে চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত ন্ওেয়া ওই জমিসহ উলফাত শেখসহ অন্তত ১৫ জন তাদের মোট ১০৫ বিঘা জমির জলকরের অংশে মাছ চাষ শুরু করেন।

তিনি আরও বলেন, ২০২০ সালে হঠাৎ করেই মুজিবনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের দপ্তর থেকে পদ্ম বিল লিজ দেওয়ার বিষয়ে স্থানীয় একটি পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দেওয়া হলে হতভম্ব হয়ে পড়েন মৎস্যচাষিরা। বাধ্য হয়ে আদালতের শরণাপন্ন হন। দীর্ঘদিন মামলা চলার একপর্যায়ে হাইকোর্ট লিজ প্রদানের বিষয়টি স্থগিত করেন। তারপর থেকে সকলেই ওই বিলে মাছ চাষ করছেন। যে যতটুকু অংশের মালিক তার ততটুকু অর্থ দেওয়া হয়। কিন্তু বিপত্তি দেখা দেয় গেল সংসদ নির্বাচনের সময় থেকে। তারানগর গ্রামের আরিফ গং চলতি গত ৭ জানুয়ারি থেকে ১১ এপ্রিল পর্যন্ত বিভিন্ন সময়ে ৩০ লাখ টাকার মাছ লুট করে।

তিনি বলেন, বিষয়টি মুজিবনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অবহিত করণ ছাড়াও মুজিবনগর থানায় দুটি অভিযোগ দেওয়া হলেও কোনো সমাধান হয়নি। বাধ্য হয়ে মেহেরপুর জজ আদালতে একটি মামলা করা হয়। যার নম্বর- ৪৭/২০২৪। এ ছাড়াও গত ৩১ মে ও পহেলা জুন ওই আরিফ গং রাজনীতিকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করে আবারো ৪/৫ লাখ টাকার মাছ লুট করে। ক্ষমতাসীন দলের একজন প্রভাবশালী ব্যক্তির নাম ভাঙ্গিয়ে এ মাছ লুট অব্যাহত রেখেছেন বলেও দাবি করা হয় সংবাদ সম্মেলনে। তারা মাছ লুটের প্রতিকার চেয়ে ও মাননীয় জনপ্রশাসনমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন।

ট্যাগ :

নিউজটি শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন

মুজিবনগরে পদ্ম বিলের মাছ লুটের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

আপলোড টাইম : ১১:৩০:৩৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ জুন ২০২৪

মেহেরপুরের মুজিবনগর উপজেলার তারানগর গ্রামের পদ্ম বিলের মাছ লুটের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনার প্রতিবাদ ও প্রতিকার চেয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ওই গ্রামের উলফাত শেখ ও তার শরীকগণ। গতকাল বুধবার দুপুরে বিলের পাশে এই সংবাদ সম্মেলন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে জমির দখল ও মাছ লুটের ফিরিস্তি তুলে ধরা হয়েছে। মৎস্য চাষি উলফাত শেখের পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন খাইরুল ইসলাম ওরফে ইতা। বক্তব্যে তিনি বলেন, পদ্ম বিলের সরকারের খাস খতিয়ানের ১৬.৭০ একর জমি উলফাত শেখসহ কয়েকজন সরকারের কাছ থেকে চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত নেন। আরএস রেকর্ডের সময় ওই জমি ভুল করে সরকারের খতিয়ানভুক্ত হয়। বিষয়টি জানতে পেরে ও তা সংশোধনের জন্য বিভিন্ন সময় সংশ্লিষ্ট দপ্তরের শরণাপণ্ন হলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বিষয়টি সমাধানের আশ^াস দেন। সরকারের কাছ থেকে চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত ন্ওেয়া ওই জমিসহ উলফাত শেখসহ অন্তত ১৫ জন তাদের মোট ১০৫ বিঘা জমির জলকরের অংশে মাছ চাষ শুরু করেন।

তিনি আরও বলেন, ২০২০ সালে হঠাৎ করেই মুজিবনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের দপ্তর থেকে পদ্ম বিল লিজ দেওয়ার বিষয়ে স্থানীয় একটি পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দেওয়া হলে হতভম্ব হয়ে পড়েন মৎস্যচাষিরা। বাধ্য হয়ে আদালতের শরণাপন্ন হন। দীর্ঘদিন মামলা চলার একপর্যায়ে হাইকোর্ট লিজ প্রদানের বিষয়টি স্থগিত করেন। তারপর থেকে সকলেই ওই বিলে মাছ চাষ করছেন। যে যতটুকু অংশের মালিক তার ততটুকু অর্থ দেওয়া হয়। কিন্তু বিপত্তি দেখা দেয় গেল সংসদ নির্বাচনের সময় থেকে। তারানগর গ্রামের আরিফ গং চলতি গত ৭ জানুয়ারি থেকে ১১ এপ্রিল পর্যন্ত বিভিন্ন সময়ে ৩০ লাখ টাকার মাছ লুট করে।

তিনি বলেন, বিষয়টি মুজিবনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অবহিত করণ ছাড়াও মুজিবনগর থানায় দুটি অভিযোগ দেওয়া হলেও কোনো সমাধান হয়নি। বাধ্য হয়ে মেহেরপুর জজ আদালতে একটি মামলা করা হয়। যার নম্বর- ৪৭/২০২৪। এ ছাড়াও গত ৩১ মে ও পহেলা জুন ওই আরিফ গং রাজনীতিকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করে আবারো ৪/৫ লাখ টাকার মাছ লুট করে। ক্ষমতাসীন দলের একজন প্রভাবশালী ব্যক্তির নাম ভাঙ্গিয়ে এ মাছ লুট অব্যাহত রেখেছেন বলেও দাবি করা হয় সংবাদ সম্মেলনে। তারা মাছ লুটের প্রতিকার চেয়ে ও মাননীয় জনপ্রশাসনমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন।