ইপেপার । আজবৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রিমিয়ার লিগে আবাহনীর ‘ছক্কা’

খেলাধুলা প্রতিবেদন:
  • আপলোড টাইম : ০৮:৫৫:৩৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০২৪
  • / ১০৩ বার পড়া হয়েছে

প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা প্রত্যাশি তিন দলের মধ্যে পয়েন্ট হারিয়েছে মেরিনার্স ও মোহামেডান। দুই দলের পয়েন্টই কেড়ে নিয়েছে ঊষা ক্রীড়া চক্র। তবে আবাহনীকে স্পর্শ করতে পারেনি কোনো অঘটন। টানা ৬ ম্যাচ অপরাজিত আকাশি-নীলরা। গতকাল শুক্রবার মওলানা ভাসানী স্টেডিয়ামে আবাহনী ৭-১ গোলে অ্যাজাক্স স্পোর্টিং ক্লাবকে হারিয়েছে। প্রিমিয়ার লিগে এটি তাদের ষষ্ঠ জয়। দুই তরুণ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ এবং ওবায়দুল হোসেন জয়ের জোড়া গোলে বড় জয় তুলে নেয় সাবেক চ্যাম্পিয়নরা। এছাড়া রাকিবুল হাসান রকি, হুজাইফা হোসেন এবং ভারতের শিশে গাওয়াদ একটি করে গোল করেন। অ্যাজাক্সের একমাত্র গোলটি করেন ভারতের সিলহেইবার লিশাম। প্রথম মিনিটেই লিশামের ফিল্ড গোলে এগিয়ে যায় অ্যাজাক্স। গোল খেয়ে আবাহনী ঝাপিয়ে পড়ে অ্যাজাক্সের ওপর। এক এক করে ৭ গোল দিয়ে মাঠ ছাড়ে ক্লাব কাপের রানার্সআপরা। ১৩ মিনিটে জয়ের গোলে সমতায় ফেরে আবাহনী। দ্বিতীয় কোয়ার্টারে একের পর এক পেনাল্টি কর্নার তুলে নেয় আবাহনী। কিন্তু অ্যাজাক্সের গোলরক্ষক আজিম উদ্দিন এবং রক্ষণের দৃঢ়তায় গোলবঞ্চিত থাকে তারা। ২১ মিনিটে আব্দুল্লাহর গোলে এগিয়ে যায় আবাহনী। পরের মিনিটে আবারো গোল আকাশী-নীলদের। শিশে গাওয়াদের ফিল্ড গোলে ব্যবধান ৩-১ এবং ২৯ মিনিটে আব্দুল্লাহ’র গোলে ব্যবধান ৪-১ করে সাবেক চ্যাম্পিয়নরা। তৃতীয় কোয়ার্টারে আবাহনীর সঙ্গে সমানতালে লড়েও গোল আদায় করতে পারেনি অ্যাজাক্স। উল্টো ৩৮ মিনিটে জয়ের গোলে ব্যবধান বাড়িয়ে ৫-১ করে । ৪৩ মিনিটে রাকিবুল রকির গোলে অ্যাজাক্সের সঙ্গে ব্যবধান আরো বাড়িয়ে নেয় আবাহনী। পরের মিনিটে হুজাইফা গোল করলে আবাহনীর বড় জয় নিশ্চিত হয়।

ট্যাগ :

নিউজটি শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন

প্রিমিয়ার লিগে আবাহনীর ‘ছক্কা’

আপলোড টাইম : ০৮:৫৫:৩৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০২৪

প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা প্রত্যাশি তিন দলের মধ্যে পয়েন্ট হারিয়েছে মেরিনার্স ও মোহামেডান। দুই দলের পয়েন্টই কেড়ে নিয়েছে ঊষা ক্রীড়া চক্র। তবে আবাহনীকে স্পর্শ করতে পারেনি কোনো অঘটন। টানা ৬ ম্যাচ অপরাজিত আকাশি-নীলরা। গতকাল শুক্রবার মওলানা ভাসানী স্টেডিয়ামে আবাহনী ৭-১ গোলে অ্যাজাক্স স্পোর্টিং ক্লাবকে হারিয়েছে। প্রিমিয়ার লিগে এটি তাদের ষষ্ঠ জয়। দুই তরুণ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ এবং ওবায়দুল হোসেন জয়ের জোড়া গোলে বড় জয় তুলে নেয় সাবেক চ্যাম্পিয়নরা। এছাড়া রাকিবুল হাসান রকি, হুজাইফা হোসেন এবং ভারতের শিশে গাওয়াদ একটি করে গোল করেন। অ্যাজাক্সের একমাত্র গোলটি করেন ভারতের সিলহেইবার লিশাম। প্রথম মিনিটেই লিশামের ফিল্ড গোলে এগিয়ে যায় অ্যাজাক্স। গোল খেয়ে আবাহনী ঝাপিয়ে পড়ে অ্যাজাক্সের ওপর। এক এক করে ৭ গোল দিয়ে মাঠ ছাড়ে ক্লাব কাপের রানার্সআপরা। ১৩ মিনিটে জয়ের গোলে সমতায় ফেরে আবাহনী। দ্বিতীয় কোয়ার্টারে একের পর এক পেনাল্টি কর্নার তুলে নেয় আবাহনী। কিন্তু অ্যাজাক্সের গোলরক্ষক আজিম উদ্দিন এবং রক্ষণের দৃঢ়তায় গোলবঞ্চিত থাকে তারা। ২১ মিনিটে আব্দুল্লাহর গোলে এগিয়ে যায় আবাহনী। পরের মিনিটে আবারো গোল আকাশী-নীলদের। শিশে গাওয়াদের ফিল্ড গোলে ব্যবধান ৩-১ এবং ২৯ মিনিটে আব্দুল্লাহ’র গোলে ব্যবধান ৪-১ করে সাবেক চ্যাম্পিয়নরা। তৃতীয় কোয়ার্টারে আবাহনীর সঙ্গে সমানতালে লড়েও গোল আদায় করতে পারেনি অ্যাজাক্স। উল্টো ৩৮ মিনিটে জয়ের গোলে ব্যবধান বাড়িয়ে ৫-১ করে । ৪৩ মিনিটে রাকিবুল রকির গোলে অ্যাজাক্সের সঙ্গে ব্যবধান আরো বাড়িয়ে নেয় আবাহনী। পরের মিনিটে হুজাইফা গোল করলে আবাহনীর বড় জয় নিশ্চিত হয়।