ইপেপার । আজ রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

চাঁদ দেখা যায়নি সৌদি আরবে ঈদ ১২ সেপ্টেম্বর

সমীকরণ প্রতিবেদন
  • আপলোড টাইম : ০৭:৩৭:৫৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২ সেপ্টেম্বর ২০১৬
  • / ২৬০ বার পড়া হয়েছে

zdfসমীকরণ ডেস্ক: সৌদি আরবের আকাশে বৃহস্পতিবার কোথাও জিলহজ মাসের চাঁদ দেখা না যাওয়ায় জিলকদ মাস ৩০ দিনে পূর্ণ হলো। এজন্য ১২ সেপ্টেম্বর (সোমবার) সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে ঈদুল আজহা উদযাপিত হবে।
বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সৌদি সুপ্রিম কোর্ট রাজকীয় ফরমান জারির মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করে। সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর একদিন পর বাংলাদেশে উদযাপিত হয় পবিত্র ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আজহা। সেই হিসেব অনুযায়ী, আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর (মঙ্গলবার) বাংলাদেশে উদযাপিত হবে ঈদুল আজহা। আল্লাহ রাব্বুল আলামিন নবী ইব্রাহীমকে (আ.) স্বপ্নে তার সবচেয়ে প্রিয় বস্তু কোরবানি করার নির্দেশ দেন। এই আদেশ অনুযায়ী, ইব্রাহিম (আ.) তার প্রিয় পুত্র ইসমাইলকে (আ.) কোরবানি করার জন্য প্রস্তুত হলে আল্লাহ তার পরিবর্তে পশু কোরবানির আদেশ দেন। এ ঘটনাকে স্মরণ করেই সারা বিশ্বের মুসলিম ধর্মাবলম্বীরা প্রতি বছর ঈদুল আজহা পালন করে। হিজরি বর্ষপঞ্জি হিসেবে জিলহজ মাসের ১০ তারিখ থেকে শুরু করে ১২ তারিখ পর্যন্ত তিন দিন ধরে ঈদুল আজহা চলে। হিজরি চন্দ্র বছরের গণনা অনুযায়ী, ঈদুলৎ ফিতর এবং ঈদুল আজহার মধ্যে দুই মাস ১০ দিনের ব্যবধান থাকে। দিনের হিসেবে যা সর্বোচ্চ ৭০ দিন পর্যন্ত হতে পারে।

ট্যাগ :

নিউজটি শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন

চাঁদ দেখা যায়নি সৌদি আরবে ঈদ ১২ সেপ্টেম্বর

আপলোড টাইম : ০৭:৩৭:৫৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২ সেপ্টেম্বর ২০১৬

zdfসমীকরণ ডেস্ক: সৌদি আরবের আকাশে বৃহস্পতিবার কোথাও জিলহজ মাসের চাঁদ দেখা না যাওয়ায় জিলকদ মাস ৩০ দিনে পূর্ণ হলো। এজন্য ১২ সেপ্টেম্বর (সোমবার) সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে ঈদুল আজহা উদযাপিত হবে।
বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সৌদি সুপ্রিম কোর্ট রাজকীয় ফরমান জারির মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করে। সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর একদিন পর বাংলাদেশে উদযাপিত হয় পবিত্র ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আজহা। সেই হিসেব অনুযায়ী, আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর (মঙ্গলবার) বাংলাদেশে উদযাপিত হবে ঈদুল আজহা। আল্লাহ রাব্বুল আলামিন নবী ইব্রাহীমকে (আ.) স্বপ্নে তার সবচেয়ে প্রিয় বস্তু কোরবানি করার নির্দেশ দেন। এই আদেশ অনুযায়ী, ইব্রাহিম (আ.) তার প্রিয় পুত্র ইসমাইলকে (আ.) কোরবানি করার জন্য প্রস্তুত হলে আল্লাহ তার পরিবর্তে পশু কোরবানির আদেশ দেন। এ ঘটনাকে স্মরণ করেই সারা বিশ্বের মুসলিম ধর্মাবলম্বীরা প্রতি বছর ঈদুল আজহা পালন করে। হিজরি বর্ষপঞ্জি হিসেবে জিলহজ মাসের ১০ তারিখ থেকে শুরু করে ১২ তারিখ পর্যন্ত তিন দিন ধরে ঈদুল আজহা চলে। হিজরি চন্দ্র বছরের গণনা অনুযায়ী, ঈদুলৎ ফিতর এবং ঈদুল আজহার মধ্যে দুই মাস ১০ দিনের ব্যবধান থাকে। দিনের হিসেবে যা সর্বোচ্চ ৭০ দিন পর্যন্ত হতে পারে।