ইপেপার । আজ মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মহেশপুর সীমান্তে ইছামতি নদীতে অজ্ঞাত লাশ

সমীকরণ প্রতিবেদন
  • আপলোড টাইম : ১১:১৮:৩৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১ সেপ্টেম্বর ২০১৬
  • / ৩৫০ বার পড়া হয়েছে

saasdasdasd

ঝিনাইদহ অফিস: ঝিনাইদহ মহেশপুর উপজেলার বাঘাডাঙ্গা খোসালপুর সীমান্তে ইছামতি নদীতে ভাষমান লাশ দেখা যায়। পতাকা বৈঠকে কোন পক্ষ লাশ গ্রহন করেনি। বিজিবি ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার দুপুরে বাঘাডাঙ্গা বিওপির অধীনে খোসালপুর সীমান্তে ইছামতি নদীতে একটি লাশ দেখতে পেয়ে বিজিবি-কে খবর দেয় এলাকাবাসী। বিজিবি’র বাঘাডাঙ্গা ক্যাম্পের নায়েক সুবেদার আব্দুল ওয়াদুদ জানান, তারা দেখতে পায় একটি লাশ কলার ভেলাই বাধা। মুখে ও গায়ে আগুন দেওয়া এবং ধুতি পড়নে আছে। এই দেখে তাদের মনে হয়েছে লাশটি মুখ-আগুনে করে নদীতে ভাসিয়ে দিয়েছে। এ বিষয়ে কুমারী ক্যাম্পের সাথে বেলা ২টায় পতাকা বৈঠক করলে ভারতে পক্ষ থেকে লাশ নিতে অস্বীকৃতি জানায়। ৬০/৭৮আর পিলার কাছে অনুষ্ঠিত পতাকা বৈঠকে বিএসএফের পক্ষে কুমরী ক্যাম্পের এস.আই রাজেস কুমার ও বাংলাদেশের পক্ষে বাঘাডাঙ্গা বিওপির নায়েক সুবেদার আব্দুল ওয়াদুদ স্ব-স্ব পক্ষে নেতৃত্ব দেন। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত লাশটি নদীতে ভাসছিল। ৫৮বিজিজি’র সিও লেঃ কর্নেল তাজ জানান, উক্ত লাশটি ভারতের মধ্য থেকে কেউ নদীতে ভাসিয়ে দিয়েছে বলে তাদের ধারনা।

ট্যাগ :

নিউজটি শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন

মহেশপুর সীমান্তে ইছামতি নদীতে অজ্ঞাত লাশ

আপলোড টাইম : ১১:১৮:৩৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১ সেপ্টেম্বর ২০১৬

saasdasdasd

ঝিনাইদহ অফিস: ঝিনাইদহ মহেশপুর উপজেলার বাঘাডাঙ্গা খোসালপুর সীমান্তে ইছামতি নদীতে ভাষমান লাশ দেখা যায়। পতাকা বৈঠকে কোন পক্ষ লাশ গ্রহন করেনি। বিজিবি ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার দুপুরে বাঘাডাঙ্গা বিওপির অধীনে খোসালপুর সীমান্তে ইছামতি নদীতে একটি লাশ দেখতে পেয়ে বিজিবি-কে খবর দেয় এলাকাবাসী। বিজিবি’র বাঘাডাঙ্গা ক্যাম্পের নায়েক সুবেদার আব্দুল ওয়াদুদ জানান, তারা দেখতে পায় একটি লাশ কলার ভেলাই বাধা। মুখে ও গায়ে আগুন দেওয়া এবং ধুতি পড়নে আছে। এই দেখে তাদের মনে হয়েছে লাশটি মুখ-আগুনে করে নদীতে ভাসিয়ে দিয়েছে। এ বিষয়ে কুমারী ক্যাম্পের সাথে বেলা ২টায় পতাকা বৈঠক করলে ভারতে পক্ষ থেকে লাশ নিতে অস্বীকৃতি জানায়। ৬০/৭৮আর পিলার কাছে অনুষ্ঠিত পতাকা বৈঠকে বিএসএফের পক্ষে কুমরী ক্যাম্পের এস.আই রাজেস কুমার ও বাংলাদেশের পক্ষে বাঘাডাঙ্গা বিওপির নায়েক সুবেদার আব্দুল ওয়াদুদ স্ব-স্ব পক্ষে নেতৃত্ব দেন। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত লাশটি নদীতে ভাসছিল। ৫৮বিজিজি’র সিও লেঃ কর্নেল তাজ জানান, উক্ত লাশটি ভারতের মধ্য থেকে কেউ নদীতে ভাসিয়ে দিয়েছে বলে তাদের ধারনা।