ইপেপার । আজ মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ঝোপ বুঝে কোপ!

সমীকরণ প্রতিবেদন
  • আপলোড টাইম : ০৯:৪০:৩০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৫ ডিসেম্বর ২০২৩
  • / ১৮ বার পড়া হয়েছে

ঝিনাইদহ অফিস:
পরিবারের সবাই যখন নির্বাচনী প্রচারণায় ব্যস্ত, তখন ফাঁকা বাড়িতে ঢুকে চোরেরা একটি বাড়ি থেকে ৯ লাখ টাকা ও ১০ ভরি সোনার গহনা নিয়ে গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত শনিবার রাতে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার বলরামপুর গ্রামে। ওই গ্রামের প্রবাসী আব্দুর রশিদ মোল্লার বাড়িতে এই চুরির ঘটনা ঘটেছে।

প্রবাসী আব্দুর রশিদের ভাই জাহিদুল ইসলাম জানান, তিনি শনিবার রাতে বলরামপুর বাজারে স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুর রশিদ খোকনের সমর্থকদের মাঝে খাবার বিতরণ করছিলেন। এসময় প্রতিবেশীরা ফোন করে জানায় তার বাড়িতে কে বা কারা ঢুকে সব নিয়ে গেছে। বাড়িতে এসে দেখেন ঘরের তালা ভাঙা ও আলমারিসহ বিভিন্ন আসবাবপত্র তছনছ করা। জাহিদুল অভিযোগ করেন, তিনি দীর্ঘ ১৭ বছর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে কাজ করার কারণে তার বাড়িতে পরিকল্পিতভাবে চুরির ঘটনা ঘটানো হয়েছে।

প্রবাসী আব্দুর রশিদের মেয়ে মিম খাতুন জানান, মা, চাচীসহ তারা তিনজন বলরামপুর বাজারে স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুর রশিদ খোকনের নির্বাচনী প্রচারণায় গিয়েছিলেন। যাওয়ার সময় তারা বাড়ি তালাবদ্ধ করে রেখে যান। ফিরে এসে দেখেন ঘরের তালা ভাঙা। তিনি আরও জানান, আলমারির ড্রয়ার ভেঙে বিদেশ থেকে তার পিতার পাঠানো প্রায় ১০ ভরি সোনার গহনা ও নগদ ৯ লাখ নিয়ে গেছে চোরেরা। এটি পরিকল্পিতভাবে কেউ ঘটিয়েছে বলেও জানান তিনি।
প্রবাসীর স্ত্রী বিউটি বেগম বলেন, ঘরে তার ভাসুরের হালখাতার সাড়ে ৪ লাখ টাকা ও স্বামীর পাঠানোসহ নগদ ৯ লাখ টাকা ছিল। এছাড়া সোনার গহনা ছিল। সবই চোরে নিয়ে গেছে। কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবু আজিফ জানান, চুরির খবর শুনে রাতেই সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ট্যাগ :

নিউজটি শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন

ঝোপ বুঝে কোপ!

আপলোড টাইম : ০৯:৪০:৩০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৫ ডিসেম্বর ২০২৩

ঝিনাইদহ অফিস:
পরিবারের সবাই যখন নির্বাচনী প্রচারণায় ব্যস্ত, তখন ফাঁকা বাড়িতে ঢুকে চোরেরা একটি বাড়ি থেকে ৯ লাখ টাকা ও ১০ ভরি সোনার গহনা নিয়ে গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত শনিবার রাতে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার বলরামপুর গ্রামে। ওই গ্রামের প্রবাসী আব্দুর রশিদ মোল্লার বাড়িতে এই চুরির ঘটনা ঘটেছে।

প্রবাসী আব্দুর রশিদের ভাই জাহিদুল ইসলাম জানান, তিনি শনিবার রাতে বলরামপুর বাজারে স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুর রশিদ খোকনের সমর্থকদের মাঝে খাবার বিতরণ করছিলেন। এসময় প্রতিবেশীরা ফোন করে জানায় তার বাড়িতে কে বা কারা ঢুকে সব নিয়ে গেছে। বাড়িতে এসে দেখেন ঘরের তালা ভাঙা ও আলমারিসহ বিভিন্ন আসবাবপত্র তছনছ করা। জাহিদুল অভিযোগ করেন, তিনি দীর্ঘ ১৭ বছর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে কাজ করার কারণে তার বাড়িতে পরিকল্পিতভাবে চুরির ঘটনা ঘটানো হয়েছে।

প্রবাসী আব্দুর রশিদের মেয়ে মিম খাতুন জানান, মা, চাচীসহ তারা তিনজন বলরামপুর বাজারে স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুর রশিদ খোকনের নির্বাচনী প্রচারণায় গিয়েছিলেন। যাওয়ার সময় তারা বাড়ি তালাবদ্ধ করে রেখে যান। ফিরে এসে দেখেন ঘরের তালা ভাঙা। তিনি আরও জানান, আলমারির ড্রয়ার ভেঙে বিদেশ থেকে তার পিতার পাঠানো প্রায় ১০ ভরি সোনার গহনা ও নগদ ৯ লাখ নিয়ে গেছে চোরেরা। এটি পরিকল্পিতভাবে কেউ ঘটিয়েছে বলেও জানান তিনি।
প্রবাসীর স্ত্রী বিউটি বেগম বলেন, ঘরে তার ভাসুরের হালখাতার সাড়ে ৪ লাখ টাকা ও স্বামীর পাঠানোসহ নগদ ৯ লাখ টাকা ছিল। এছাড়া সোনার গহনা ছিল। সবই চোরে নিয়ে গেছে। কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবু আজিফ জানান, চুরির খবর শুনে রাতেই সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।