চুয়াডাঙ্গা শুক্রবার , ২৪ নভেম্বর ২০২৩
আজকের সর্বশেষ সবখবর

আওয়ামী লীগের সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভায় খুলনা বিভাগের আলোচনা হয়নি

চুয়াডাঙ্গার দুটি আসনের চূড়ান্ত মনোনয়ন নিয়ে দিনভর নানা গুঞ্জন!

নিউজ রুমঃ
নভেম্বর ২৪, ২০২৩ ১০:৩৫ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

নিজস্ব প্রতিবেদক:
চুয়াডাঙ্গার দুটি আসনে কে কে হচ্ছেন নৌকার মাঝি, এ নিয়ে যেন জল্পনা-কল্পনা শেষ হচ্ছে না। তবে চূড়ান্ত প্রার্থী কে হচ্ছেন, তা জানতে অপেক্ষা করতে হবে আগামীকাল শনিবার পর্যন্ত। গতকাল বৃহস্পতিবার আওয়ামী লীগের সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভা অনুষ্ঠিত হলেও চুয়াডাঙ্গা তথা খুলনা বিভাগের আলোচনা হয়নি। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের জানিয়েছেন, শুক্রবার খুলনা বিভাগের আলোচনা হবে। এছাড়াও, সব বিভাগের প্রার্থী ঠিক করার পর শনিবার ২৫ নভেম্বর চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হবে।

চুয়াডাঙ্গায় দিনভর নানা রকম গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল চুয়াডাঙ্গার দুটি আসনে নৌকার মনোনয়ন নিয়ে। তবে সব জল্পনা-কল্পনা, নিশ্চিত হওয়া নামগুলোকে ব্যর্থ করে বিকেলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের জানান খুলনা বিভাগের মনোনয়ন নিয়ে আলোচনাই হয়নি। তবে চুয়াডাঙ্গা জেলার গ্রামেগঞ্জে, শহরে, পাড়া-মহল্লায় চায়ের দোকান থেকে শুরু করে খাওয়ার টেবিলে এখন আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু কোন দুজন রাজনৈতিক নেতা চুয়াডাঙ্গা-১ ও ২ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাচ্ছেন। বৃহস্পতিবার দিনভর নানা দিকে নানা রকম গুঞ্জন ওঠে। কখনো শোনা যাচ্ছিন চুয়াডাঙ্গা-১ আসনে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বর্তমান সংসদ সদস্য সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এমপি এবারও নৌকা পেয়েছেন। আবার কোনো দিক থেকে চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহসভাপতি ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আসাদুল হক বিশ্বাস, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য বাবু দিলীপ কুমার আগরওয়ালা, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক আহ্বায়ক ও সাবেক পৌর মেয়র ওবাইদুর রহমান চৌধুরী জিপুর নামও শোনা যাচ্ছিল।

অপরদিকে, চুয়াডাঙ্গা-২ আসনে বর্তমান সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহসভাপতি আলী আজগর টগর, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আজাদুল ইসলাম আজাদের নাম শোনা যাচ্ছিল। তাঁদের মধ্যে থেকেই কেউ নৌকার মাঝি হবেন, এমন আলোচনা-সমালোচনা রয়েছে জেলাজুড়ে। এছাড়াও, চুয়াডাঙ্গা-২ আসনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য বাবু দিলীপ কুমার আগরওয়ালার মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করার পর তাঁর নামও শোনা যাচ্ছিল। তবে আলোচনা-সমালোচনা যাইহোক না কেন, শেষ পর্যন্ত শনিবার ছাড়া চূড়ান্তভাবে বলা যাচ্ছে না, কে হবেন চুয়াডাঙ্গার দুটি আসনে নৌকার মাঝি। উল্লেখ্য, আওয়ামী লীগের ফরম বিক্রির শেষ দিন গত মঙ্গলবার পর্যন্ত মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ ও জমা দিয়েছেন চুয়াডাঙ্গা-১ আসনে ১৬ জন ও চুয়াডাঙ্গা-২ আসনে আরও ১৮ জন।

চুয়াডাঙ্গা-১ আসনে আওয়ামী লীগের ফরম সংগ্রহ ও জমা দিয়েছেন বর্তমান সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন, বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির ১ নম্বর সহসভাপতি, চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক ১ নম্বর সদস্য এবং সাবেক সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য শিরিন নাঈম পুনম, চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহসভাপতি ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আসাদুল হক বিশ্বাস, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য বাবু দিলীপ কুমার আগরওয়ালা, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক আহ্বায়ক ও সাবেক পৌর মেয়র ওবাইদুর রহমান চৌধুরী জিপু, চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ শামসুল আবেদিন খোকন, জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক নঈম হাসান জোর্য়াদ্দার, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক প্রফেসর ডা. মাহবুব হোসেন মেহেদী, যুবলীগ নেতা যুবায়ের আহমেদ, জেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি আফরোজা পারভীন ঢাকা মহানগর উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান সুমন ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের অর্থ উপ-কমিটির সদস্য রাজ্জাক, কেন্দ্রীয় কৃষক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নাজমুল ইসলাম পানু, চুয়াডাঙ্গা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জেমস অলোক চৌধুরী, হেলাল উদ্দিন ও মোস্তাফিজুর রহমান।

চুয়াডাঙ্গা-২ আসনে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ ও জমা দিয়েছেন চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহসভাপতি ও বর্তমান সংসদ সদস্য হাজী আলী আজগর টগর, চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আজাদুল ইসলাম আজাদ, চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও দামুড়হুদা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহফুজুর রহমান মনজু, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য বাবু দিলীপ কুমার আগরওয়ালা, জীবননগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম, জীবননগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জীবননগর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আবু মো. আব্দুল লতিফ অমল, বাংলাদেশ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালক হামিদুর রহমান, দর্শনা সরকারি কলেজের সাবেক ভিপি ও পারকৃষ্ণপুর-মদনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এস এ এম জাকারিয়া আলম, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য হাসেম রেজা, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহসভাপতি নজরুল মল্লিক, দৈনিক সকালের সময়ের সম্পাদক ও প্রকাশক নূর হাকিম, মির্জা শাহরিয়ার মাহমুদ, আবু বকর, অ্যাডভোকেট শাহারিয়ার কবির, সাদিকুর রহমান বকুল, জেলা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সভপাতি এখলস উদ্দিন সুজন, হাসান আলী ও শাসসুল হক।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।