ইপেপার । আজ রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

একুশের প্রথম প্রহরে শহিদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা

সমীকরণ প্রতিবেদন
  • আপলোড টাইম : ১১:৪৪:৩২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
  • / ২২ বার পড়া হয়েছে

সমীকরণ প্রতিবেদন:
অমর ২১ শে ফেব্রুয়ারি আজ। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। মায়ের ভাষার দাবিতে বাঙালির আত্মত্যাগের মহিমায় ভাস্বর এক দিন। বাঙালির আত্মগৌরবের স্মারক অমর একুশের গৌরবময় এদিনে জাতি শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করছে মহান ভাষা শহিদদের, যাদের আত্মত্যাগে আমরা পেয়েছিলাম মায়ের ভাষায় কথা বলার অধিকার। যাদের ত্যাগে বাংলা বিশ্ব আসনে পেয়েছে গৌরবের উচ্চাসন। একুশের প্রথম প্রহর থেকে বিনম্র শ্রদ্ধায় স্মরণ করা হচ্ছে মহান ভাষা শহিদদের। এ উপলক্ষে প্রথম প্রহরে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে ভাষা শহিদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়েছে।
প্রথম প্রহরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ঘড়ির কাঁটায় রাত ১২টা বাজার ৬ মিনিট আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে পৌঁছান। এর কিছুক্ষণ পর রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পৌঁছান। প্রথমে রাষ্ট্রপতি পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এর পরপরই প্রধানমন্ত্রী শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।

এসময় নেপথ্যে বাজছিল অমর একুশের কালজয়ী গান, ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি…’। ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর সামরিক সচিব কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থেকে ভাষা আন্দোলনের শহিদদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানান। এরপর বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জানানো হয়। পরে সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয় শহিদ মিনার। শ্রদ্ধা জানাতে ঢল নামে সাধারণ মানুষের। দিবসটি উপলক্ষে প্রেসিডেন্ট মো. আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন। দিবসটি উপলক্ষে বেতার, টেলিভিশন বিশেষ অনুষ্ঠানমালা প্রচার করছে। জাতীয় দৈনিকগুলো প্রকাশ করেছে বিশেষ ক্রোড়পত্র।
শুধু রাজধানী ঢাকাতেই নয়, চুয়াডাঙ্গা-মেহেরপুরসহ সারা দেশে স্কুল-কলেজে, জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে শহিদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছে সর্বস্তরের জনগণ। পাড়ায়-মহল্লায় শিশু-কিশোরদের নিজ হাতে গড়া শহিদ মিনারও আজ সেজে উঠবে নতুন প্রজন্মের ফুলেল শ্রদ্ধায়। জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি সংস্থা ইউনেস্কো ১৯৯৯ সালে মহান একুশের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের স্বীকৃতি দেয়। মাতৃভাষার অধিকার প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে ’৫২-এর একুশে ফেরুয়ারি ছিল ঔপনিবেশিক শাসন-শোষণ ও শাসকগোষ্ঠীর প্রভুসুলভ মনোভাবের বিরুদ্ধে বাঙালির প্রথম প্রতিরোধ এবং ভাষার ভিত্তিতে বাঙালির জাতীয় চেতনার প্রথম উন্মেষ।

প্রথম প্রহরে চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজ শহিদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন:
চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজ শহিদ মিনারে স্বাস্থ্যবিধি মেনে রাত ১২টা ১ মিনিটে শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন শুরু হয়। প্রথমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন জেলা প্রশাসনের পক্ষে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খান, পুলিশ বিভাগের পক্ষে পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ আল মামুন, বিচার বিভাগ, জেলা পরিষদের পক্ষে মাহফুজুর রহমান মন্জু, জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষে সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেয়র রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন, জেলা বিএনপির পক্ষে সদস্য সচিব শরীফুজ্জামান শরীফ, পুনাক এর পক্ষে সভানেত্রী ফরিদা ইয়াসমিন।
এরপর ফার্স্ট ক্যাপিটাল ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ, চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজে, চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার পক্ষে পৌর মেয়র জাহাঙ্গীর আলম মালিক, সদর উপজেলা প্রশাসনের পক্ষে চেয়ারম্যান আশাদুল হক বিশ্বাস ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামীম ভূইয়া, কৃষক লীগ, যুবলীগের আহ্বায়ক নঈম হাসান জোয়ার্দ্দার, মহিলা লীগ, ছাত্রলীগ ও এর অঙ্গসংগঠন, জেলা ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড, যুবদল, ছাত্রদল ও জেলা স্বেচ্ছাবক দল।

এরপর চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাব, বাংলাদেশ সাংবাদিক সমিতি চুয়াডাঙ্গা জেলা ইউনিট, বাংলাদেশ জাসদ, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি ও এর অঙ্গসংগঠন, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (ইনু)-জাসদ, স্বাধীনতার পক্ষের সকল রাজনৈতিক দল ও এর অঙ্গসংগঠন, জেলা আইনজীবী সমিতি, বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখা, ডায়াবেটিক সমিতি চুয়াডাঙ্গা, পৌর ডিগ্রি কলেজ, বাংলাদেশ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স অ্যাসোসিয়েশন চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখা, স্বাধীনতা ডিপ্লোমা চিকিৎসক পরিষদ-চুয়াডাঙ্গা, ইনস্টিটিউট অব ডিপ্লোমা ডক্টরস চুয়াডাঙ্গা, উপ-পরিচালক জেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিস, তারা দেবী ফাউন্ডেশন, সাহিত্য পরিষদ, জেলা স্কাউটস, বাংলাদেশের ওয়ার্কাস পার্টি, কমিউনিস্ট পার্টি, উদীচি, চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখা, হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ চুয়াডাঙ্গা, বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি চুয়াডাঙ্গা, এলজিইডি চুয়াডাঙ্গাসহ বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান।

এদিকে, একুশে ফেব্রুয়ারি মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের প্রথম প্রহরে চুয়াডাঙ্গার কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে ভাষা শহিদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন দৈনিক সময়ের সমীকরণের পক্ষে প্রধান সম্পাদক নাজমুল হক স্বপন।

অপরদিকে, জাতীয় শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাব আয়োজিত আলোচনাসভায় ভাষা শহীদদের প্রতি বিনর্ম শ্রদ্ধা জানিয়ে বাংলাভাষার প্রতি যত্মবান হওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে। গতকাল রাত ১০টায় প্রেসক্লাব মিলনতায়নে প্রেস ক্লাব সভাপতি সরদার আল আমিনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভার শুরুতে শহিদদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনাসহ শ্রদ্ধাভরে স্মরণের লক্ষে এক মিনিট নিরাবতা পালন করা হয়।

আলোচনাসাভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক রাজীব হাসান কচি, বাংলাদেশ সাংবাদিক সমিতি চুয়াডাঙ্গা ইউনিট সভাপতি নাজমুল হক স্বপন, সাধারণ সম্পাদক বিপুল আশরাফ, সাবেক সভাপতি আজাদ মালিতা। শাহ আলম সনির উপস্থাপিত সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তিলাওয়াত করেন এমএম আলাউদ্দীন। বক্তব্য দেন শেখ সেলিম, রফিকুল ইসলাম, রিফাত রহমান, এমএ মামুন প্রমুখ।

চুয়াডাঙ্গায় যেভাবে পালিত হবে দিনটি:
২১শে ফেব্রুয়ারি মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে নানা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসন। এ উপলক্ষে শহরের প্রধান প্রধান সড়কসমূহে আলপনা ও বাংলা বর্ণমালা সম্বলিত ফেস্টুন দ্বারা সাজানো হয়েছে। আজ সারাদিন জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত অবস্থায় রাখা হবে। সকাল ৬টা ৩০ মিনিট থেকে স্ব স্ব প্রতিষ্ঠান থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রভাতফেরি নিয়ে চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজ শহিদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হবে। সকাল সাড়ে ১০টা থেকে ডিসি সাহিত্য মঞ্চে আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হবে। বাদ যোহর/সুবিধামতো সময়ে জেলার সকল মসজিদ/মন্দির/গীর্জা/প্যাগোডায় শহিদদের রুহের মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত ও প্রার্থনা করা হবে। সুবিধাজনক সময়ে জেলা তথ্য অফিসের বাস্তবায়নে বড় বাজার শহিদ হাসান চত্বর, একাডেমি মোড়, চাঁদমারী মাঠ ও কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে ভ্রাম্যমাণ সংগীতানুষ্ঠান ও চলচ্চিত্র প্রদর্শন।
দিবসটি যথাযথ মর্যাদায় পালনের উদ্দেশ্যে সরকারি আয়োজনের বাইরেও জেলার বিভিন্ন আধাসরকারি, বেসরকারি ও স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠান, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সমূহের উদ্যোগে প্রভাতফেরি, শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন, আলোচনা সভা, দোয়া, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং প্রতিযোগিতারও আয়োজন রয়েছে।

আলমডাঙ্গা:
আলমডঙ্গায় শহিদ ও আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে ১২টা ১ মিনিটে উপজেলা পরিষদ ও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন আলমডাঙ্গা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আইয়ুব হোসেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার রনি আলম নুর, ভাইস চেয়ারম্যান সালমুন আহমেদ ডন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজী মারজাহান নিতু, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) রেজওয়ানা নাহিদ, থানার অফিসার ইনচার্জ সাইফুল ইসলাম, উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা আব্দুল্লাহিল কাফি, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সোহেল রানা, উপজেলা শিক্ষা অফিসার ফজলুল হক, প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার শামসুজ্জোহা, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পপিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা হাদী জিয়াউদ্দিন আহমেদ, মহিলাবিষয়ক কর্মকর্তা মাকসুরা জান্নাত, মৎস কর্মকর্তা ফাতেমা কামরুন্নাহার আঁখি, ইন্সেক্টটর জামাল হোসেন, ভিডিপি কর্মকর্তা এজাজুল হক, প্রকল্প কর্মকর্তা এনামুল হক, উপজেলা প্রকৌশলী। মুক্তিযোদ্ধাদের পক্ষে উপজেলা কমান্ডার রনি আলম নুর, বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ নুর মোহাম্মদ জকু, বীর মুক্তিযোদ্ধা মইনদ্দিন পারভেজ, বীর মুক্তিযোদ্ধা ওয়াজেদ আলী প্রমুখ।

দামুড়হুদা:
দামুড়হুদায় শহিদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ভাষা শহিদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার প্রথম প্রহরে উপজেলা পরিষদ ও উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে শহিদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়। ১২টা ১ মিনিটে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলী আজগার টগর শহিদদের প্রতি ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। পরে শহিদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলী মুনছুর বাবু, উপজেলা নির্বাহী অফিসার রোকসানা মিতা, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড, উপজেলা আওয়ামী লীগ, সদর ইউনিয়ন পরিষদ, দামুড়হুদা মডেল থানা, দর্শনা থানা, আব্দুল ওদুদ শাহ ডিগ্রি কলেজ, উপজেলা শিক্ষা অফিসার, দামোদর সাব-রেজিস্ট্রার, দামুড়হুদা প্রেসক্লাব, উপজেলা শ্রমিক লীগ, দামুড়হুদা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ, উপজেলা যুবলীগ।

মুজিবনগর:
মুজিবনগরে শহিদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে প্রথম প্রহরে মুজিবনগর শহিদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পন করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার অনিমেষ বিশ্বাস ও উপজেলা পরিষদের পক্ষে উপজেলা চেয়ারম্যান জিয়াউদ্দীন বিশ্বাস, মহিলা ভাইস চোয়ারম্যান আফরোজা খাতুন। পরে পর্যায়ক্রমে মুজিবনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মেহেদী রাসেল, মুজিবনগর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার পক্ষে আহসান আলী খান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম তোতা, সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি কামরুল হাসান চাঁদু, উপজেলা ছাত্রলীগের পক্ষে স্বপন গাজী, উপজেলা কৃষকলীগের পক্ষে সভাপতি জাহিদ হাসান রাজিব ও সাধারণ সম্পাদক শাহিনুজ্জামান, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের পক্ষে মতিউর রহমান মতিন, বাগোয়ান ইউপি পরিষদের পক্ষে চেয়ারম্যান আয়ূব হোসেন, মোনাখালী ইউপি পরিষদের পক্ষে চেয়ারম্যান মফিজুর রহমান প্রমুখ। পরে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এরপর শহিদের আত্মার মাগফিরাত কামনায় দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।

ট্যাগ :

নিউজটি শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন

একুশের প্রথম প্রহরে শহিদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা

আপলোড টাইম : ১১:৪৪:৩২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

সমীকরণ প্রতিবেদন:
অমর ২১ শে ফেব্রুয়ারি আজ। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। মায়ের ভাষার দাবিতে বাঙালির আত্মত্যাগের মহিমায় ভাস্বর এক দিন। বাঙালির আত্মগৌরবের স্মারক অমর একুশের গৌরবময় এদিনে জাতি শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করছে মহান ভাষা শহিদদের, যাদের আত্মত্যাগে আমরা পেয়েছিলাম মায়ের ভাষায় কথা বলার অধিকার। যাদের ত্যাগে বাংলা বিশ্ব আসনে পেয়েছে গৌরবের উচ্চাসন। একুশের প্রথম প্রহর থেকে বিনম্র শ্রদ্ধায় স্মরণ করা হচ্ছে মহান ভাষা শহিদদের। এ উপলক্ষে প্রথম প্রহরে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে ভাষা শহিদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়েছে।
প্রথম প্রহরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ঘড়ির কাঁটায় রাত ১২টা বাজার ৬ মিনিট আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে পৌঁছান। এর কিছুক্ষণ পর রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পৌঁছান। প্রথমে রাষ্ট্রপতি পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এর পরপরই প্রধানমন্ত্রী শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।

এসময় নেপথ্যে বাজছিল অমর একুশের কালজয়ী গান, ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি…’। ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর সামরিক সচিব কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থেকে ভাষা আন্দোলনের শহিদদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানান। এরপর বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জানানো হয়। পরে সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয় শহিদ মিনার। শ্রদ্ধা জানাতে ঢল নামে সাধারণ মানুষের। দিবসটি উপলক্ষে প্রেসিডেন্ট মো. আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন। দিবসটি উপলক্ষে বেতার, টেলিভিশন বিশেষ অনুষ্ঠানমালা প্রচার করছে। জাতীয় দৈনিকগুলো প্রকাশ করেছে বিশেষ ক্রোড়পত্র।
শুধু রাজধানী ঢাকাতেই নয়, চুয়াডাঙ্গা-মেহেরপুরসহ সারা দেশে স্কুল-কলেজে, জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে শহিদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছে সর্বস্তরের জনগণ। পাড়ায়-মহল্লায় শিশু-কিশোরদের নিজ হাতে গড়া শহিদ মিনারও আজ সেজে উঠবে নতুন প্রজন্মের ফুলেল শ্রদ্ধায়। জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি সংস্থা ইউনেস্কো ১৯৯৯ সালে মহান একুশের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের স্বীকৃতি দেয়। মাতৃভাষার অধিকার প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে ’৫২-এর একুশে ফেরুয়ারি ছিল ঔপনিবেশিক শাসন-শোষণ ও শাসকগোষ্ঠীর প্রভুসুলভ মনোভাবের বিরুদ্ধে বাঙালির প্রথম প্রতিরোধ এবং ভাষার ভিত্তিতে বাঙালির জাতীয় চেতনার প্রথম উন্মেষ।

প্রথম প্রহরে চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজ শহিদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন:
চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজ শহিদ মিনারে স্বাস্থ্যবিধি মেনে রাত ১২টা ১ মিনিটে শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন শুরু হয়। প্রথমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন জেলা প্রশাসনের পক্ষে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খান, পুলিশ বিভাগের পক্ষে পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ আল মামুন, বিচার বিভাগ, জেলা পরিষদের পক্ষে মাহফুজুর রহমান মন্জু, জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষে সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেয়র রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন, জেলা বিএনপির পক্ষে সদস্য সচিব শরীফুজ্জামান শরীফ, পুনাক এর পক্ষে সভানেত্রী ফরিদা ইয়াসমিন।
এরপর ফার্স্ট ক্যাপিটাল ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ, চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজে, চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার পক্ষে পৌর মেয়র জাহাঙ্গীর আলম মালিক, সদর উপজেলা প্রশাসনের পক্ষে চেয়ারম্যান আশাদুল হক বিশ্বাস ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামীম ভূইয়া, কৃষক লীগ, যুবলীগের আহ্বায়ক নঈম হাসান জোয়ার্দ্দার, মহিলা লীগ, ছাত্রলীগ ও এর অঙ্গসংগঠন, জেলা ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড, যুবদল, ছাত্রদল ও জেলা স্বেচ্ছাবক দল।

এরপর চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাব, বাংলাদেশ সাংবাদিক সমিতি চুয়াডাঙ্গা জেলা ইউনিট, বাংলাদেশ জাসদ, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি ও এর অঙ্গসংগঠন, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (ইনু)-জাসদ, স্বাধীনতার পক্ষের সকল রাজনৈতিক দল ও এর অঙ্গসংগঠন, জেলা আইনজীবী সমিতি, বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখা, ডায়াবেটিক সমিতি চুয়াডাঙ্গা, পৌর ডিগ্রি কলেজ, বাংলাদেশ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স অ্যাসোসিয়েশন চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখা, স্বাধীনতা ডিপ্লোমা চিকিৎসক পরিষদ-চুয়াডাঙ্গা, ইনস্টিটিউট অব ডিপ্লোমা ডক্টরস চুয়াডাঙ্গা, উপ-পরিচালক জেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিস, তারা দেবী ফাউন্ডেশন, সাহিত্য পরিষদ, জেলা স্কাউটস, বাংলাদেশের ওয়ার্কাস পার্টি, কমিউনিস্ট পার্টি, উদীচি, চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখা, হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ চুয়াডাঙ্গা, বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি চুয়াডাঙ্গা, এলজিইডি চুয়াডাঙ্গাসহ বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান।

এদিকে, একুশে ফেব্রুয়ারি মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের প্রথম প্রহরে চুয়াডাঙ্গার কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে ভাষা শহিদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন দৈনিক সময়ের সমীকরণের পক্ষে প্রধান সম্পাদক নাজমুল হক স্বপন।

অপরদিকে, জাতীয় শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাব আয়োজিত আলোচনাসভায় ভাষা শহীদদের প্রতি বিনর্ম শ্রদ্ধা জানিয়ে বাংলাভাষার প্রতি যত্মবান হওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে। গতকাল রাত ১০টায় প্রেসক্লাব মিলনতায়নে প্রেস ক্লাব সভাপতি সরদার আল আমিনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভার শুরুতে শহিদদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনাসহ শ্রদ্ধাভরে স্মরণের লক্ষে এক মিনিট নিরাবতা পালন করা হয়।

আলোচনাসাভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক রাজীব হাসান কচি, বাংলাদেশ সাংবাদিক সমিতি চুয়াডাঙ্গা ইউনিট সভাপতি নাজমুল হক স্বপন, সাধারণ সম্পাদক বিপুল আশরাফ, সাবেক সভাপতি আজাদ মালিতা। শাহ আলম সনির উপস্থাপিত সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তিলাওয়াত করেন এমএম আলাউদ্দীন। বক্তব্য দেন শেখ সেলিম, রফিকুল ইসলাম, রিফাত রহমান, এমএ মামুন প্রমুখ।

চুয়াডাঙ্গায় যেভাবে পালিত হবে দিনটি:
২১শে ফেব্রুয়ারি মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে নানা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসন। এ উপলক্ষে শহরের প্রধান প্রধান সড়কসমূহে আলপনা ও বাংলা বর্ণমালা সম্বলিত ফেস্টুন দ্বারা সাজানো হয়েছে। আজ সারাদিন জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত অবস্থায় রাখা হবে। সকাল ৬টা ৩০ মিনিট থেকে স্ব স্ব প্রতিষ্ঠান থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রভাতফেরি নিয়ে চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজ শহিদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হবে। সকাল সাড়ে ১০টা থেকে ডিসি সাহিত্য মঞ্চে আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হবে। বাদ যোহর/সুবিধামতো সময়ে জেলার সকল মসজিদ/মন্দির/গীর্জা/প্যাগোডায় শহিদদের রুহের মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত ও প্রার্থনা করা হবে। সুবিধাজনক সময়ে জেলা তথ্য অফিসের বাস্তবায়নে বড় বাজার শহিদ হাসান চত্বর, একাডেমি মোড়, চাঁদমারী মাঠ ও কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে ভ্রাম্যমাণ সংগীতানুষ্ঠান ও চলচ্চিত্র প্রদর্শন।
দিবসটি যথাযথ মর্যাদায় পালনের উদ্দেশ্যে সরকারি আয়োজনের বাইরেও জেলার বিভিন্ন আধাসরকারি, বেসরকারি ও স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠান, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সমূহের উদ্যোগে প্রভাতফেরি, শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন, আলোচনা সভা, দোয়া, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং প্রতিযোগিতারও আয়োজন রয়েছে।

আলমডাঙ্গা:
আলমডঙ্গায় শহিদ ও আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে ১২টা ১ মিনিটে উপজেলা পরিষদ ও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন আলমডাঙ্গা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আইয়ুব হোসেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার রনি আলম নুর, ভাইস চেয়ারম্যান সালমুন আহমেদ ডন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজী মারজাহান নিতু, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) রেজওয়ানা নাহিদ, থানার অফিসার ইনচার্জ সাইফুল ইসলাম, উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা আব্দুল্লাহিল কাফি, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সোহেল রানা, উপজেলা শিক্ষা অফিসার ফজলুল হক, প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার শামসুজ্জোহা, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পপিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা হাদী জিয়াউদ্দিন আহমেদ, মহিলাবিষয়ক কর্মকর্তা মাকসুরা জান্নাত, মৎস কর্মকর্তা ফাতেমা কামরুন্নাহার আঁখি, ইন্সেক্টটর জামাল হোসেন, ভিডিপি কর্মকর্তা এজাজুল হক, প্রকল্প কর্মকর্তা এনামুল হক, উপজেলা প্রকৌশলী। মুক্তিযোদ্ধাদের পক্ষে উপজেলা কমান্ডার রনি আলম নুর, বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ নুর মোহাম্মদ জকু, বীর মুক্তিযোদ্ধা মইনদ্দিন পারভেজ, বীর মুক্তিযোদ্ধা ওয়াজেদ আলী প্রমুখ।

দামুড়হুদা:
দামুড়হুদায় শহিদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ভাষা শহিদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার প্রথম প্রহরে উপজেলা পরিষদ ও উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে শহিদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়। ১২টা ১ মিনিটে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলী আজগার টগর শহিদদের প্রতি ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। পরে শহিদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলী মুনছুর বাবু, উপজেলা নির্বাহী অফিসার রোকসানা মিতা, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড, উপজেলা আওয়ামী লীগ, সদর ইউনিয়ন পরিষদ, দামুড়হুদা মডেল থানা, দর্শনা থানা, আব্দুল ওদুদ শাহ ডিগ্রি কলেজ, উপজেলা শিক্ষা অফিসার, দামোদর সাব-রেজিস্ট্রার, দামুড়হুদা প্রেসক্লাব, উপজেলা শ্রমিক লীগ, দামুড়হুদা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ, উপজেলা যুবলীগ।

মুজিবনগর:
মুজিবনগরে শহিদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে প্রথম প্রহরে মুজিবনগর শহিদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পন করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার অনিমেষ বিশ্বাস ও উপজেলা পরিষদের পক্ষে উপজেলা চেয়ারম্যান জিয়াউদ্দীন বিশ্বাস, মহিলা ভাইস চোয়ারম্যান আফরোজা খাতুন। পরে পর্যায়ক্রমে মুজিবনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মেহেদী রাসেল, মুজিবনগর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার পক্ষে আহসান আলী খান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম তোতা, সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি কামরুল হাসান চাঁদু, উপজেলা ছাত্রলীগের পক্ষে স্বপন গাজী, উপজেলা কৃষকলীগের পক্ষে সভাপতি জাহিদ হাসান রাজিব ও সাধারণ সম্পাদক শাহিনুজ্জামান, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের পক্ষে মতিউর রহমান মতিন, বাগোয়ান ইউপি পরিষদের পক্ষে চেয়ারম্যান আয়ূব হোসেন, মোনাখালী ইউপি পরিষদের পক্ষে চেয়ারম্যান মফিজুর রহমান প্রমুখ। পরে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এরপর শহিদের আত্মার মাগফিরাত কামনায় দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।