ইপেপার । আজ রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মুজিবনগরের ভিজিএফের ৪ শ কেজি চাল জব্দ!

সমীকরণ প্রতিবেদন
  • আপলোড টাইম : ০৭:৫৮:৪৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২১ জুলাই ২০২২
  • / ২ বার পড়া হয়েছে

মুজিবনগর প্রতিবেদক: মেহেরপুরের মুজিবনগরে ৪ শ কেজি ভিজিএফের চাল জব্দ করেছে উপজেলা প্রশাসন। গতকাল বুধবার বিকেল ৪টার দিকে মুজিবনগর উপজেলার মোনাখালী ইউনিয়নের শিবপুর থেকে এই চাল জব্দ করা হয়। মুজিবনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সুজন সরকার চালগুলো জব্দ করে ইউনিয়ন পরিষদের জিম্মায় রাখার নির্দেশ দেন। চালগুলো ইউনিয়ন পরিষদ থেকে একটি ভ্যানযোগে প্যানেল চেয়ারম্যান ও ৫ নম্বর ওয়ার্ড মেম্বার মোমিনের উদ্দিনের বাড়িতে নেওয়া হচ্ছিল।

স্থানীয়রা জানান, দুপুরের দিকে একটি ভ্যানযোগে সাড়ে ৫ বস্তা চাল (প্রতি বস্তায় ৭৫ কেজি করে) ভ্যানযোগে যেতে দেখে সন্দেহ হয়। এসময় ভ্যানটিকে আটকিয়ে ভ্যান চালককে জিজ্ঞাসা করলে তিনি জানান, মোনাখালী ইউনিয়ন পরিষদ থেকে চাল নিয়ে ৫ নম্বর ওয়ার্ড মেম্বর মোমিনের বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। খবর পেয়ে চেয়ারম্যান মফিজুর রহমান ও সচিব রাশিদুল ইসলাম ঘটনাস্থলে পৌঁছান। এসময় স্থানীয়রা চেয়ারম্যান ও সচিবকে লাঞ্ছিত করে অবরুদ্ধ করে রাখে। খবর পেয়ে মুজিবনগরের ইউএনও সুজন সরকার, মুজিবনগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মেহেদী রাসেল, পিআইও নাহিদা আকতার ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। সেখানে চালগুলো জব্দ করে ইউনিয়নের পরিষদের জিম্মায় রাখার নির্দেশ দেন মুজিবনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুজন সরকার। এসময় স্থানীয়দের নিকট থেকে সচিবকে উদ্ধার করা হয়। 

অভিযুক্ত মেম্বার মোমিন উদ্দিন বলেন, আমার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের ৩০ জন সুবিধাভোগী চাল নেননি। সেই চাল তাদের দেওয়ার জন্য বাড়িতে নেওয়া হচ্ছিলো। বিষয়টি চেয়ারম্যান ও সচিব জানেন বলেও দাবি করেন তিনি।

তবে চেয়ারম্যান মফিজুর রহমান জানান, এ চালের বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না। মুজিবনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুজন সরকার বলেন, প্রাথমিকভাবে চাল জব্দ করে ইউনিয়ন পরিষদে রাখা হয়েছে। এবিষয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হচ্ছে। তদন্ত শেষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ট্যাগ :

নিউজটি শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন

মুজিবনগরের ভিজিএফের ৪ শ কেজি চাল জব্দ!

আপলোড টাইম : ০৭:৫৮:৪৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২১ জুলাই ২০২২

মুজিবনগর প্রতিবেদক: মেহেরপুরের মুজিবনগরে ৪ শ কেজি ভিজিএফের চাল জব্দ করেছে উপজেলা প্রশাসন। গতকাল বুধবার বিকেল ৪টার দিকে মুজিবনগর উপজেলার মোনাখালী ইউনিয়নের শিবপুর থেকে এই চাল জব্দ করা হয়। মুজিবনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সুজন সরকার চালগুলো জব্দ করে ইউনিয়ন পরিষদের জিম্মায় রাখার নির্দেশ দেন। চালগুলো ইউনিয়ন পরিষদ থেকে একটি ভ্যানযোগে প্যানেল চেয়ারম্যান ও ৫ নম্বর ওয়ার্ড মেম্বার মোমিনের উদ্দিনের বাড়িতে নেওয়া হচ্ছিল।

স্থানীয়রা জানান, দুপুরের দিকে একটি ভ্যানযোগে সাড়ে ৫ বস্তা চাল (প্রতি বস্তায় ৭৫ কেজি করে) ভ্যানযোগে যেতে দেখে সন্দেহ হয়। এসময় ভ্যানটিকে আটকিয়ে ভ্যান চালককে জিজ্ঞাসা করলে তিনি জানান, মোনাখালী ইউনিয়ন পরিষদ থেকে চাল নিয়ে ৫ নম্বর ওয়ার্ড মেম্বর মোমিনের বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। খবর পেয়ে চেয়ারম্যান মফিজুর রহমান ও সচিব রাশিদুল ইসলাম ঘটনাস্থলে পৌঁছান। এসময় স্থানীয়রা চেয়ারম্যান ও সচিবকে লাঞ্ছিত করে অবরুদ্ধ করে রাখে। খবর পেয়ে মুজিবনগরের ইউএনও সুজন সরকার, মুজিবনগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মেহেদী রাসেল, পিআইও নাহিদা আকতার ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। সেখানে চালগুলো জব্দ করে ইউনিয়নের পরিষদের জিম্মায় রাখার নির্দেশ দেন মুজিবনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুজন সরকার। এসময় স্থানীয়দের নিকট থেকে সচিবকে উদ্ধার করা হয়। 

অভিযুক্ত মেম্বার মোমিন উদ্দিন বলেন, আমার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের ৩০ জন সুবিধাভোগী চাল নেননি। সেই চাল তাদের দেওয়ার জন্য বাড়িতে নেওয়া হচ্ছিলো। বিষয়টি চেয়ারম্যান ও সচিব জানেন বলেও দাবি করেন তিনি।

তবে চেয়ারম্যান মফিজুর রহমান জানান, এ চালের বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না। মুজিবনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুজন সরকার বলেন, প্রাথমিকভাবে চাল জব্দ করে ইউনিয়ন পরিষদে রাখা হয়েছে। এবিষয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হচ্ছে। তদন্ত শেষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।