ইপেপার । আজ রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ভূমি কর্মকর্তাকে লাঞ্ছিত, দেড় ঘণ্টায় জামিন পেলেন আ.লীগ নেতা!

সমীকরণ প্রতিবেদন
  • আপলোড টাইম : ১০:০০:৪২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১
  • / ৫৩ বার পড়া হয়েছে

ঝিনাইদহ অফিস:
ঝিনাইদহে মতিয়ার রহমান নামে ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তাকে লাঞ্ছিত করা মামলায় দেড় ঘণ্টার মধ্যে জামিন পেয়েছেন সদর উপজেলার হরিশংকরপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক চেয়ারম্যান খন্দকার ফারুকুজ্জামান ফরিদ। মারধরের শিকার ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মতিয়ার রহমান গত শুক্রবার মামলাটি করেন।
পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার নবগঙ্গা নদী থেকে অবৈধভাবে মাটি খনন করছিলেন ফরিদ। সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নির্দেশে ঘটনাস্থলে গিয়ে বাঁধা দেন স্থানীয় ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মতিয়ার রহমান। নিষেধ করা মাত্রই ক্ষিপ্ত হয়ে সরকারি কর্মকর্তার ওপর হামলা করেন ফরিদ। প্রকাশ্যে একজন সরকারি কর্মকর্তাকে কিল-ঘুষি ও গলাটিপে ধরে হত্যার চেষ্টা করা হয়। এদিকে জামিন পেয়ে নিজের ফেসবুকে ফারুকুজ্জামান ফরিদ লিখেছেন ‘সকলের উদ্দেশ্য বলতে চাই, আমাকে নিয়ে গত দুইদিন আগে একটি মিথ্যা মামলা করা হয়! অতঃপর আইনের প্রতি সম্মান দেখিয়ে ও আমার নৈতিকতার জায়গা থেকে আমি নিজে আজ ১৯-০৪-২০২১ তারিখ সকাল ১১টায় ঝিনাইদহ সদর থানায় নিজেকে সোপর্দ করি। ১৯-০৪-২১ তারিখ বেলা ১২:৩০টায় আমাকে ঝিনাইদহ জজ্ কোর্টে হাজির করা হয় এবং আমি নির্দোষ প্রমাণিত হওয়ায় মহামান্য আদালত আমাকে জামিন দেন। অতএব, কোনো প্রকার গুজবে কান না দেওয়ার জন্য সকলকে অনুরোধ করছি’।
জামিনের বিষয় নিয়ে ঝিনাইদহের পিপি অ্যাড. ইসমাইল হোসেন জানান, সাবেক চেয়ারম্যান ও মহামারি করোনা বিবেচনায় ইচ্ছা করলে বিজ্ঞ আদালত এই মামলায় জামিন দিতে পারেন।
ঝিনাইদহ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এস এম শাহিন জানান, ‘সরকারি কর্মকর্তা লাঞ্ছিত হয়েছেন। সরকারি বিভাগ পুলিশ তদন্ত করেছে। সরকারি আদালত জামিন দিয়েছেন। এ নিয়ে আমার বলার কিছু নেই। আদালত যা ভালো মনে করেছেন, সেটাই করেছেন।’

ট্যাগ :

নিউজটি শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন

ভূমি কর্মকর্তাকে লাঞ্ছিত, দেড় ঘণ্টায় জামিন পেলেন আ.লীগ নেতা!

আপলোড টাইম : ১০:০০:৪২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১

ঝিনাইদহ অফিস:
ঝিনাইদহে মতিয়ার রহমান নামে ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তাকে লাঞ্ছিত করা মামলায় দেড় ঘণ্টার মধ্যে জামিন পেয়েছেন সদর উপজেলার হরিশংকরপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক চেয়ারম্যান খন্দকার ফারুকুজ্জামান ফরিদ। মারধরের শিকার ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মতিয়ার রহমান গত শুক্রবার মামলাটি করেন।
পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার নবগঙ্গা নদী থেকে অবৈধভাবে মাটি খনন করছিলেন ফরিদ। সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নির্দেশে ঘটনাস্থলে গিয়ে বাঁধা দেন স্থানীয় ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মতিয়ার রহমান। নিষেধ করা মাত্রই ক্ষিপ্ত হয়ে সরকারি কর্মকর্তার ওপর হামলা করেন ফরিদ। প্রকাশ্যে একজন সরকারি কর্মকর্তাকে কিল-ঘুষি ও গলাটিপে ধরে হত্যার চেষ্টা করা হয়। এদিকে জামিন পেয়ে নিজের ফেসবুকে ফারুকুজ্জামান ফরিদ লিখেছেন ‘সকলের উদ্দেশ্য বলতে চাই, আমাকে নিয়ে গত দুইদিন আগে একটি মিথ্যা মামলা করা হয়! অতঃপর আইনের প্রতি সম্মান দেখিয়ে ও আমার নৈতিকতার জায়গা থেকে আমি নিজে আজ ১৯-০৪-২০২১ তারিখ সকাল ১১টায় ঝিনাইদহ সদর থানায় নিজেকে সোপর্দ করি। ১৯-০৪-২১ তারিখ বেলা ১২:৩০টায় আমাকে ঝিনাইদহ জজ্ কোর্টে হাজির করা হয় এবং আমি নির্দোষ প্রমাণিত হওয়ায় মহামান্য আদালত আমাকে জামিন দেন। অতএব, কোনো প্রকার গুজবে কান না দেওয়ার জন্য সকলকে অনুরোধ করছি’।
জামিনের বিষয় নিয়ে ঝিনাইদহের পিপি অ্যাড. ইসমাইল হোসেন জানান, সাবেক চেয়ারম্যান ও মহামারি করোনা বিবেচনায় ইচ্ছা করলে বিজ্ঞ আদালত এই মামলায় জামিন দিতে পারেন।
ঝিনাইদহ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এস এম শাহিন জানান, ‘সরকারি কর্মকর্তা লাঞ্ছিত হয়েছেন। সরকারি বিভাগ পুলিশ তদন্ত করেছে। সরকারি আদালত জামিন দিয়েছেন। এ নিয়ে আমার বলার কিছু নেই। আদালত যা ভালো মনে করেছেন, সেটাই করেছেন।’