৭০০ ভরি স্বর্ণালংকার লুট, ১২ আনা উদ্ধার!

312

সমীকরণ ডেস্ক: মানিকগঞ্জ শহরের নাগ জুয়েলার্স থেকে গত বুধবার রাতে ৬০০ থেকে ৭০০ ভরি স্বর্ণালংকার লুট করে ডাকাতরা। এর মধ্যে মাত্র ১২ আনা সোনা উদ্ধার করতে পেরেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার করতে পেরেছে একজনকে। পরিত্যক্ত অবস্থায় উদ্ধার করেছে ছয়টি গুলিসহ একটি রিভলবার, দুটি চাপাতি ও ১১টি ককটেল। গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তির নাম মো. সোহেল মোল্লা (৩০)। তাঁর বাড়ি পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলার মেদিরাবাদ গ্রামে। এদিকে ডাকাতির প্রতিবাদে স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা গতকাল বৃহস্পতিবার দোকান বন্ধ রেখে ধর্মঘট পালন করেন। গত বুধবার রাতে ডাকাতির পরপর সাটুরিয়া বাসস্ট্যান্ডে ব্যারিকেড দিয়ে পুলিশের স্টিকার সম্বলিত একটি মাইক্রোবাসও আটক করা হয়। তবে মাইক্রোবাসে থাকা অন্যরা পালিয়ে যায়। গ্রেপ্তারের সময় ডাকাতদের সঙ্গে গুলিবিনিময়ে পুলিশের তিন উপপরিদর্শকসহ (এসআই) চার পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। তাঁদের ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে এক প্রেস বিফিংয়ে পুলিশ সুপার মাহফুজুর রহমান জানান, স্বর্ণের দোকানে ডাকাতির সঙ্গে সম্পৃক্তদের শনাক্ত করা হয়েছে। এরা সংঘবদ্ধ আন্তজেলা ডাকাতদল ও সবাই পেশাদার। অন্য ডাকাতদের গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে। মানিকগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাবিবুল্লাহ সরকার জানান, এ ঘটনায় নাগ জুয়েলার্সের মালিক তপন নাগ একটি ডাকাতি মামলা দায়ের করেছেন। মামলার এজাহারে উল্লেখ করেছেন, ডাকাতরা ৬০০ থেকে ৭০০ ভরি স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে গেছে।