চুয়াডাঙ্গা শুক্রবার , ২৬ আগস্ট ২০১৬
আজকের সর্বশেষ সবখবর

১০ হাজার দূরারোগ্য রোগীকে আর্থিক সহায়তা দেওয়ার প্রস্তাব

সমীকরণ প্রতিবেদন
আগস্ট ২৬, ২০১৬ ২:১৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

sdfghjuস্বাস্থ্য ডেস্ক: আর্থিকভাবে অস্বচ্ছল যে সব রোগী দূরারোগ্য রোগে ভুগছেন তাদের সহয়তা দিবে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়াধীন সমাজ সেবা অধিদপ্তর। আর এ সহায়তা ১০ হাজার রোগীকে দেওয়ার প্রস্তাব করেছে সংসদীয় কমিটি। জাতীয় সংসদ ভবনে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ প্রস্তাব দেওয়া হয়।
বৈঠক সূত্রে জানা যায়, বর্তমানে যে টাকা অধিদপ্তরের রয়েছে তাতে ৬ হাজার রোগীকে আর্থিক সহায়তা করা যাবে বলে কমিটিকে জানিয়েছে সমাজ সেবা অধিদপ্তর। দেশের ক্রমেই দূরারোগ্য রোগী সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়া এ আর্থিক সহায়তাভোগীর সংখ্যা ১০ হাজার করার প্রস্তাব করেছে কমিটি। প্রত্যেক রোগীকে এককালীন ৫০ হাজার টাকা আর্থিক সহায়তা দেওয়া হয়ে থাকে। বিষয়টি নিশ্চিত করে কমিটি সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল বলেন, আমরা আর্থিক সহায়তাভোগীর সংখ্যা ১০ হাজার করার প্রস্তাব করেছি। এছাড়া বৈঠকে চট্টগ্রাম মানসিক প্রতিবন্ধী হাসপাতালে দুজন বিশেষজ্ঞ ডাক্তার নিয়োগের সিদ্ধান্ত হয়েছে। একই সঙ্গে সমাজসেবা অধিদপ্তরের ২১২টি প্রথম শ্রেণীর পদে লোক নিয়োগের জন্য জোরালো সুপারিশ করা হয়। এবার ৩৪তম বিসিএস এর মাধ্যমে ৫৫ জনকে নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে বলে কমিটিকে জানিয়েছে অধিদপ্তর। এ ৫৫ জনের মধ্যে ১৬জন মুক্তিযোদ্ধা কোটায় নিয়োগ পাবেন। দূরারোগ্য রোগের মধ্যে রয়েছে ক্যান্সার, কিডনী ও লিভার সিরোসিস। এসব রোগীদের আর্থিক সহায়তা কর্মসূচির অবস্থা সম্পর্কে আলোচনা করে। এছাড়াও এ কর্মসূচির আওতায় সমাজের দরিদ্র জনগণ যাতে সার্বিক সহযোগিতা পায় সেদিকে সজাগ দৃষ্টি রাখার বিষয়ে জোরালো সুপারিশ করে। কমিটির সভাপতি মোজাম্মেল হোসেনের সভাপতিত্বে কমিটির সদস্য ও প্রতিমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ, মনোরঞ্জন শীল গোপাল, আয়েশা ফেরদাউস, হাবিবে মিল্লাত, আব্দুল মতিন, লুৎফা তাহের ও সৈয়দা সায়রা মহসীন বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন।  বৈঠকে সমাজকল্যাণ সচিব ড. চৌধুরী বাবুল হাসান, সমাজসেবা অধিদপ্তরের মহাপরিচালকসহ মন্ত্রণালয় ও জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।