চুয়াডাঙ্গা রবিবার , ৬ ডিসেম্বর ২০২০
আজকের সর্বশেষ সবখবর

হেফাজত ও জামায়াত ঐক্যবদ্ধ হয়ে দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টির ষড়যন্ত্র করছে

সমীকরণ প্রতিবেদন
ডিসেম্বর ৬, ২০২০ ১০:২০ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙার প্রতিবাদে চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর ও ঝিনাইদহে যুবলীগের বিক্ষোভ মিছিল : প্রধান অতিথির বক্তব্যে নঈম জোয়ার্দ্দার
সমীকরণ প্রতিবেদন:
কুষ্টিয়ায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাঙার প্রতিবাদে চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর ও ঝিনাইদহে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে যুবলীগ। গতকাল শনিবার পৃথক আয়োজনে এ বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে যুবলীগ।
চুয়াডাঙ্গা:
কুষ্টিয়ায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাঙার প্রতিবাদে চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী যুবলীগ বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে। গতকাল শনিবার রাত ৯টায় চুয়াডাঙ্গা মোহাম্মদী শপিং কমপ্লেক্সের সামনে থেকে জেলা আওয়ামী যুবলীগের আহ্বায়ক নঈম হাসান জোয়ার্দ্দার ও যুগ্ম আহ্বায়ক জিল্লুর রহমানের নেতৃত্বে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদিক্ষণ করে পুনরায় একই স্থানে এসে শেষ হয়। পরে সেখানে একটি প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিবাদ সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন জেলা আওয়ামী যুবলীগের আহ্বায়ক নঈম হাসান জোয়ার্দ্দার।
জাতির জনকের ভাস্কর্য ভাঙার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে নঈম হাসান জোয়ার্দ্দার বলেন, এ ধরণের নোংরা কাজ কোনোভাবেই বরদাস্ত করা হবে না। যারাই এ ঘটনা ঘটিয়েছে এবং মদদ দিয়েছে, তাদের প্রত্যেককেই খুঁজে বের করে কঠিন শাস্তির আওতায় আনতে হবে। যে বা যারা ভাঙচুর করেছে, তাদের কাউকে এক চুলও ছাড় দেওয়া যাবে না। স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি এ ধরনের ন্যাক্কারজনক কাজ করতে পারে না। হেফাজত ইসলাম ও জামায়াত-শিবির দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করার জন্য এ ধরনের কাজ করছে। বহির্বিশ্বের কাছে তারা দেশের ভাবমূর্তি খারাপ করতে চাচ্ছে। আসলে এর পিছনে তাদের খারাপ উদ্দেশ্য আছে। পৃথিবীর সব মুসলিম দেশগুলোতেই ভাস্কর্য থাকলেও বাংলাদেশে জাতির জনকের ভাস্কর্য নিয়ে ধর্ম ব্যবসায়ীরা বিভ্রান্তি সৃষ্টির চেষ্টা করছে। হেফাজত ইসলাম ও জামায়াত-শিবির জোট ঐক্যবদ্ধ হয়ে আবারও দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টির ষড়যন্ত্র করছে।
জেলা আওয়ামী যুগলীগের আহ্বায়ক নঈম হাসান জোয়ার্দ্দার আরও বলেন, ‘এই দেশ এখন সমৃদ্ধির পথে। উন্নয়নের উচ্চশিখরে পৌঁছে যাচ্ছে। সেই উন্নয়নকে থামানোর এক নোংরা ষড়যন্ত্র চলছে। যা আমরা মেনে নেব না। এখন থেকে চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী যুবলীগের প্রত্যেকটি নেতা-কর্মীকে সতর্ক থাকতে হবে। আমরা আগামীকাল (আজ) বিকেল তিনটায় আবারো মিছিল ও বিক্ষোভ সমাবেশ করব। আমরা বসে থাকব না। প্রয়োজনে আরও কঠোর আন্দোলনে যাওয়া হবে।’
এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক জিল্লুর রহমান, জেলা আওয়ামী যুবলীগ সদস্য হাফিজুর রহমান হাপু, আজাদ আলী, আবু বকর সিদ্দিক আরিফ, সাজিদুর ইসলাম লাবলু, শরিফ হোসেন দুদু, আলমগীর আজম খোকা ও অ্যাড. তসলিম উদ্দিন ফিরোজ। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী যুবলীগ নেতা পিরু মিয়া, দরূদ হাসান, মাসুদুর রহমান মাসুদ, ফটিক, বিপ্লব, জুয়েল জোয়ার্দ্দার, আলিম, আলী ইমরান শুভ, রামিম হাসান সৈকত, সামিউল শেখ সুইট, তানভীর রেজা টুটুল, দিপু, আসাদ, কবির, সজল, বাচ্চু প্রমুখ।
আলমডাঙ্গা:

কুষ্টিয়ায় নির্মাণাধীন বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙচুরের প্রতিবাদে আলমডাঙ্গায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে যুবলীগ। গতকাল শনিবার রাতে উপজেলা ও পৌর যুবলীগের কার্যালয়ের সামনে থেকে বের হওয়া মিছিলটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে পুরাতন বাসস্ট্যান্ডের দলীয় আফিসের সামনে গিয়ে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে বক্তব্য দেন উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক আনোয়ার হোসেনে সোনাহার, যুগ্ম আহ্বায়ক রাজু আহম্মেদ, পৌর যুবলীগের আহ্বায়ক আসাদুল হক ডিটু, মামুন আর রশিদ হাসান, জাইদুল ইসলাম, মনিরুজ্জামান হিটু, কুমারী ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মোজাম্মেল হক প্রমুখ। বক্তারা বলেন, এ কোন অশনিসংকেত। কুষ্টিয়া হল সাংস্কৃতিক রাজধানী। ইতিহাসের প্রেক্ষাপটে কুষ্টিয়া ছিল বৃটিশ আমলে নদীয়ার মহকুমা শহর। এ মাটি সাংস্কৃতিক চর্চা ও আধ্যাত্মিকতার একটি পবিত্র স্থান সেই আদিকাল থেকে। এখানে লালনের দর্শন, কবিগুরুর সাহিত্যে চর্চার এক পবিত্র জায়গা। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের প্রথম সরকার এই কুষ্টিয়া জেলা। সেই ঐতিহাসিক এলাকায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙল স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি। এই অপশক্তির বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হয়ে দাঁতভাঙ্গা জবাব দিতে হবে। এটা বিজয়ের মাস, সেই মাসে বঙ্গবন্ধুুর ভাস্কর্য ভাঙা এটা কোনো অশনিসংকেত।
মেহেরপুর:

কুষ্টিয়াতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাঙার প্রতিবাদে পৃথক পৃথক বিক্ষোভ মিছিল করেছে মেহেরপুর জেলা যুবলীগ। গতকাল শনিবার রাতে যুবলীগের আহ্বায়ক মাহফুজুর রহমান রিটন ও যুগ্ম আহ্বায়ক সরফরাজ হোসেন মৃদুলের নেতৃতে পৃথক এ বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। মেহেরপুর জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক মাহফুজুর রহমান রিটনের নেতৃত্বে মেহেরপুর পৌর কমিউনিটি সেন্টারের সামনে থেকে শুরু করে বিক্ষোভ মিছিলটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে মেহেরপুর প্রেসক্লাবের সামনে গিয়ে শেষ হয়। পরে সেখানে এক প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করা হয়। মেহেরপুর জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক ও পৌর মেয়র মাহফুজুর রহমান রিটনের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য দেন মেহেরপুর শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মেহেরপুর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাড. ইয়ারুল ইসলাম, যুবলীগ নেতা সাজাদুর রহমান সাজু ও জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি শোভন সরকার। বিক্ষোভ মিছিলে অন্যদের মধ্যে যুবলীগ নেতা মাহবুব ডালিম, হাসানুজ্জামান হিলন, ইউনুস আলী, মেহেরপুর পৌর কাউন্সিলর নুরুল আশরাফ রাজিব প্রমুখ।
অপর দিকে, মেহেরপুর জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক সরফরাজ হোসেন মৃদুলের নেতৃত্বে এ বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেনের বাসভবনের সামনে থেকে শুরু করে বিক্ষোভ মিছিলটি মেহেরপুর শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে একই স্থানে গিয়ে শেষ হয়। পরে সেখানে এক প্রতিবাদ পথসভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিবাদ পথসভায় জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক সরফরাজ হোসেন মৃদুলের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন মেহেরপুর সদর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন আনু, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি বারিকুল ইসলাম লিজন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মতিউর রহমান মতি, শহর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক তৌহিদুল ইসলাম প্রমুখ।
ঝিনাইদহ:

কুষ্টিয়ায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাঙচুরের প্রতিবাদে ঝিনাইদহে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে গতকাল শনিবার রাতে শহরের পাঁয়রা চত্বর থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি শহরের বিভিন্ন সড়ক ঘুরে পোস্ট অফিস মোড়ে গিয়ে শেষ হয়। পরে সেখানে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এসময় ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌরসভার মেয়র সাইদুল করিম মিণ্টু, জেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশবিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. ইসমাইল হোসেন, সদর থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জে এম রশিদুল আলম রশিদ ও পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন জেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক মঞ্জুর পারভেজ তুষার। বক্তারা, কুষ্টিয়ায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙচুরের সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তারের দাবি জানান। সেই সঙ্গে ভাস্কর্যের বিরোধিতাকারীদের বিরুদ্ধে ঐক্য গড়ে তুলতে সবার প্রতি আহ্বান জানান।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।