চুয়াডাঙ্গা শনিবার , ২৪ এপ্রিল ২০২১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

স্বামীকে হত্যার চেষ্টা : শাশুড়ির মামলায় বউমা আটক!

সমীকরণ প্রতিবেদন
এপ্রিল ২৪, ২০২১ ১০:০৭ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

Girl in a jacket

স্ত্রীর পরকীয়া প্রেম জেনে যাওয়ায় বিপত্তি : বিষ মেশানো স্যালাইন খাইয়ে ও গলাই ওড়না পেচিঁয়ে
রুদ্র রাসেল:
দামুড়হুদায় পরকীয়া প্রেম জেনে যাওয়ায় নিজ স্বামী মাসুদ রানাকে (৩০) বিষ মেশানো স্যালাইন খাইয়ে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ উঠেছে কাকলী খাতুন (১৮) নামের এক যুবতীর বিরুদ্ধে। গতকাল শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা থানার মদনা ইউনিয়নের সড়াবাড়িয়া গ্রামের পালপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। পরে বেলা একটার দিকে পরিবারের সদস্যরা গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় মাসুদ রানাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। মাসুদ রানা সড়াবাড়িয়া গ্রামের পালপাড়ার মৃত আব্দুল কাদিরের ছেলে। অভিযুক্ত কাকলী খাতুন জীবননগর উপজেলার হরিহরনগর গ্রামের আব্দুল কুদ্দুসের মেয়ে।
এদিকে, ঘটনার পরে গতকাল বিকেলেই মাসুদ রানার মা মমতাজ বেগম বাদী হয়ে বউমা কাকলী খাতুনকে আসামি করে দর্শনা থানায় একটি হত্যাচেষ্টা মামলা দায়ের করেছেন। অভিযোগে পর দর্শনা থানা পুলিশ অভিযুক্ত কাকলীকে গ্রেপ্তার করে থানা হেফাজতে নিয়েছে।
মাসুদ রানার ছোট ভাই সোহেল রানা বলেন, ‘দামুড়হুদার কুনিয়াচাঁদপুরে এক নিকট আত্মীয় মারা যাওয়ায় বাড়ির সবাই সকালে সেখানে যায়। বাড়িত থেকে যায় মাসুদ ও তার স্ত্রী কাকলী। সেখান থেকে দুপুর ১২টার দিকে আমি ও আমার মা বাড়িতে এসে দেখি মাসুদ ভাই বারান্দায় পড়ে আছে। তার মুখ দিয়ে রক্ত বের হচ্ছে। মাথায় আঘাতের চিহ্ন। কি হয়েছে জানতে চাইলে সে বলে স্যালাইনের সঙ্গে বিষ খাইয়ে দিয়ে মাথাই ইট দিয়ে আঘাত করেছে কাকলী। এসময় স্থানীয়দের সহায়তায় তাকে দ্রুত উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসি। ডাক্তার মাসুদকে ভর্তি রেখেছে।’
এবিষয়ে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ভুক্তভোগী মাসুদ রানার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘বাড়িতে আমি আর আমার স্ত্রী কাকলী একা ছিলাম। ১২টার দিকে কাকলী আমাকে স্যালাইন খেতে দেয়। স্যালাইন খাওয়ার পরেই আমার মাথা ঝিমঝিম করতে থাকে, গলা এটে আসে। এসময় কাকলী আমার গলাই ওড়না পেচিঁয়ে ধরে। আমি ছাড়াতে চেষ্টা করলে একটি ইট দিয়ে আমার মাথায় আঘাত করে। এরপরেই আমার মা ও ভাই বাড়িতে চলে আসে। তারপরে কি হয়েছে আর কিছু মনে নেই।’
কী কারণে নিজ স্ত্রী তাকে বিষ খাইয়ে হত্যা করার চেষ্টা করল, জানতে চাইলে মাসুদ রানা আরও বলেন, ‘৯ মাস পূর্বে পারিবারিকভাবে আমার সঙ্গে কাকলীর বিবাহ হয়। বিয়ের পর থেকেই কাকলী অনেকটা একা একা থাকতে চাই। বাড়ির কারো সঙ্গে ঠিকমতো তথাও বলে না। এদিকে গত দুইদিন আগে কাকলী এক ছেলের সঙ্গে মোবাইলে কথা বলছিল, আমি ঘরে ঢুকতেই সে মোবাইল খাটের পাশে রেখে দেয়। আমি মোবাইল কানে ধরলে ওপর প্রান্ত থেকে একটি ছেলের কথা শুনতে পারি। কার সঙ্গে কথা বলছিল জানতে চাইলে, আমার স্ত্রী আমাকে কিছুই বলেনি। আমিও তাকে আর কিছু জিজ্ঞাসা করিনি। গতকাল আবার একই ঘটনা ঘটে। এসময় আমি তার প্রেমের কথা জেনে ফেলি। এ কারণেই সে আজ আমাকে বিষ খাইয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে।’
চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. মাহাবুবুর রহমান বলেন, দুপুর ১টার দিকে পরিবারের সদস্যরা গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় মাসুদ রানাকে উদ্ধার করে জরুরি বিভাগে নেয় তার পরিবারের সদস্যরা। কেউ স্যালাইনের সঙ্গে মাসুদকে বিষ খাইয়ে দিয়ে মাথাই ইট দিয়ে আঘাত করেছে বলে তার পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছে। মাসুদের মাথায় আঘাতের চিহ্ন পরিলক্ষিত হয়েছে। জরুরি বিভাগ থেকে তাকে তাৎক্ষণিক চিকিৎসা দিয়ে হাসপাতালে মেডিসিন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রাখা হয়েছে। মাসুদের অবস্থার অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রেফার্ড করা হতে পারে।
এবিষয়ে জানতে চাইলে দর্শনা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহাবুবুর রহমান বলেন, ‘এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর মা মমতাজ বেগম বাদী হয়ে দর্শনা থানায় কাকলীকে আসামি করে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। অভিযোগের পরেই অভিযুক্তকে আটক করে থানা হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।’

Girl in a jacket

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।