চুয়াডাঙ্গা মঙ্গলবার , ৩ আগস্ট ২০২১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

স্কুলছাত্র ইমরানের পেনসিলে বঙ্গবন্ধুর স্কেচ

সমীকরণ প্রতিবেদন
আগস্ট ৩, ২০২১ ৮:১৬ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

Girl in a jacket

মেহেরাব্বিন সানভী:
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৮ ফুট দৈর্ঘ্য ও ৬.৫ ফুট প্রস্থের স্কেচ এঁকে সবাইকে তাক লাগিয়ে দিয়েছে চুয়াডাঙ্গার দশম শ্রেণি পড়ুয়া কিশোর ইমরান আহসান। পুরো স্কেচটি হাতে পেনসিলে আঁকা হলেও দেখতে যেন জীবন্ত। স্কুলছাত্র ইমরানের আঁকা স্কেচটি এখন সর্বমহলে প্রশংসিত হচ্ছে। ইমরানের ইচ্ছা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে স্কেচটি তুলে দেওয়ার।
জানা গেছে, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, দ্য ভিঞ্চি, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, আইনস্টাইনসহ বিখ্যাত বহু মানুষদের স্কেচ এঁকেছে চুয়াডাঙ্গা ভি জে সরকারি উচ্চবিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র ইমরান আহসান। তার পেনসিলে আঁকা প্রতিটা ছবিই যেন জীবন্ত, হাতে আঁকা ছবি অথচ দেখে বোঝার উপায় নেই। ছবিগুলো যে শুধুমাত্র পেন্সিলে আঁকা তা ভাবারও উপায় নেই। বয়সে কিশোর হলেও, তার হাতে আঁকা স্কেচগুলো বড় বড় শিল্পীর আঁকা স্কেচের তুলনায় কোনো অংশে কম নয়।
কয়েকদিন আগে টানা ছয় দিন ধরে একটি বড় মাপের ব্যানার পেপারের ওপরে শুধুমাত্র পেনসিল দিয়ে ইমরান এঁকেছে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের ৮ ফুট দৈর্ঘ্য ও ৬.৫ ফুট প্রস্থের একটি স্কেচ। যা দেখতে অসাধারণ লাগছে। বঙ্গবন্ধুর প্রতি ভালোবাসা ও অমূর্ত চিত্র আঁকার প্রতি ইমরানের আলাদা মনোযোগ ও প্রবল ইচ্ছা নিয়ে ইমরান ওই স্কেচটি এঁকেছে।
কিশোর এই চিত্রশিল্পী ইমরান আহসান বলেন, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি আমি আগেও এঁকেছি। জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার স্যারকে উপহারও দিয়েছে। তারাও খুশি হয়েছেন। প্রথম থেকেই পেনসিলে বঙ্গবন্ধুর একটা বড় স্কেচ করার ইচ্ছা ছিল আমার। গত কয়েকদিন আগে একটি বড় মাপের ব্যানার পেপার সংগ্রহ করে টানা ছয়দিন ধরে স্কেচটি এঁকেছি। সোমবারেই এটি আঁকার কাজ শেষ করেছি।’
ছবি আঁকার প্রতি তাঁর প্রবল আগ্রহ আছে জানিয়ে ইমরান আহসান বলেন, ‘ছোট বেলা থেকেই ছবি আঁকার বড় শখ আমার। যদিও তেমন কোথাও শেখার সুযোগ হয়নি, তবুও নিজে নিজেই চেষ্টা করি। প্রথম প্রথম যেমন আঁকতাম, এখন তাঁর থেকে অনেক ভালো করি। প্রথম দিকে তেমন সহযোগিতা বা উৎসাহও পাইনি কারো। এখন অনেকেই প্রশংসা করেন। ভালো লাগে। স্বপ্ন দেখি একজন বড় আর্টিস হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলব।’
কিশোর ইমরান আরও বলেন, ‘আমি ছবি আঁকাটা সব সময়ই উপভোগ করি। ভালো লাগে আঁকতে। তাই পড়াশোনার ফাঁকে যতটুকু সময় পাই, ছবি আঁকি। বঙ্গবন্ধুর কয়েকটি সুন্দর ছবি এঁকেছি আমি। বিশেষ করে বঙ্গবন্ধুর এই বড় স্কেচটি আমার খুব ইচ্ছা ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে তুলে দেওয়ার।
এদিকে, ইমরানের আঁকা স্কেচটি তাঁর ব্যক্তিগত ফেসবুক একাউন্টে পোস্ট করার পর থেকেই সেটি প্রচুর পরিমাণে শেয়ার হচ্ছে। আবার ফেসবুক ভিত্তিক বিভিন্ন গ্রুপে স্কেচটি পোস্ট দিচ্ছেন গ্রুপগুলোর অ্যাডমিনরা। এরপর থেকেই জেলার সুধিজনসহ সর্বমহলে দশম শ্রেণির ছাত্রের আঁকা স্কেচটি প্রশংসিত হচ্ছে। অনেকেই বলছেন, সুযোগ দেওয়া হলে, ইমরান অনেক বড় চিত্রশিল্পী হবে।

Girl in a jacket

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।