চুয়াডাঙ্গা মঙ্গলবার , ৬ অক্টোবর ২০২০
আজকের সর্বশেষ সবখবর

সৌদি প্রবাসীদের কর্মক্ষেত্রে ফেরা

সমীকরণ প্রতিবেদন
অক্টোবর ৬, ২০২০ ৮:৩৯ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

Girl in a jacket

দুর্ভোগের অবসান হোক
সমীকরণ প্রতিবেদন:
সৌদি প্রবাসীদের ফেরাতে বাংলাদেশ বিমান এয়ারলাইন্স ও সাউদিয়া নানা উদ্যোগ নেয়া সত্ত্বেও দেশে এসে আটকে পড়া এসব মানুষের দুর্ভোগ যেন কিছুতেই কাটছে না। রোববারও হাজার হাজার বিক্ষুব্ধ প্রবাসীকে টিকিট ও টোকেনের দাবিতে রাজপথে বিক্ষোভ করতে দেখা গেছে। তারা দিনভর সড়ক অবরোধ করে রাখার পর বিকেলে সৌদি এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ ভিসার মেয়াদ অনুযায়ী টিকিট-টোকেন দেয়ার সিদ্ধান্ত জানায়। কিন্তু এতেও প্রবাসীদের দুর্ভোগ কমেনি। দেশের দূর-দূরান্ত থেকে আসা নারী-পুরুষ রোদ-বৃষ্টিতে ভিজে টিকিট-টোকেনের জন্য অপেক্ষা করেছেন। আশপাশে খাবারের দোকান বা রেস্তোরাঁ না থাকায় তাদের দুর্ভোগ আরও বেড়েছে। অনেকে অসুস্থও হয়ে পড়েছিলেন। অনেক প্রবাসীর অভিযোগ- এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষের অব্যবস্থাপনার কারণে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। আবার অনেকে বলেছেন, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বা সংশ্লিষ্টরা যদি তাদের কিছু খাবার বিতরণ করত, তাহলে এত কষ্ট হতো না। দেশের রেমিটেন্স যোদ্ধাদের এ দুর্ভোগ দুঃখজনক। ভুলে গেলে চলবে না, একক দেশ হিসেবে সবচেয়ে বেশি রেমিটেন্স আসে সৌদি আরব থেকে। দেশের অর্থনীতিতে রেমিটেন্সের অবদান কী, তা বলার অপেক্ষা রাখে না।
করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে প্রবাসীরা ছুটি কাটাতে দেশে এসেছেন। এখন তারা যদি সময়মতো তাদের কর্মক্ষেত্রে পৌঁছতে না পারেন, তাহলে তারা চাকরি হারাতে পারেন। সেটা শুধু তাদের জন্যই নয়, দেশের জন্যও ক্ষতির কারণ হবে। উল্লেখ্য, ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে কাজে ফেরার বাধ্যবাধকতা আরোপ করেছিল সৌদি কর্তৃপক্ষ। জানা যায়, সৌদি আরব থেকে ছুটিতে দেশে এসে আটকা পড়েছেন প্রায় ৮০ হাজার প্রবাসী কর্মী। এখন তাদের কাজে ফিরে যাওয়ার সুযোগ এলেও ফ্লাইটের অভাবে তৈরি হয়েছে অনিশ্চয়তা। ফলে বাধ্য হয়ে হাজার হাজার প্রবাসী গত সেপ্টেম্বরের তৃতীয় সপ্তাহ থেকে রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ করছেন। তাদের টানা তিনদিনের বিক্ষোভের পর পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছিলেন, বাংলাদেশের শ্রমিকদের ইকামার (কাজের অনুমতি) মেয়াদ আরও ২৪ দিন বৈধ থাকবে এবং প্রয়োজনে সময় আরও বাড়ানো হবে। এরপর থেকে সৌদি এয়ারলাইন্স ও বাংলাদেশ বিমান টিকিট দেয়া শুরু করে। কিন্তু এ ক্ষেত্রে কিছু জটিলতা রয়েই গেছে। যেমন রোববার দেখা গেছে, ফরম প্রদানে বিলম্বের কারণে তা নিতে প্রবাসীদের মধ্যে কাড়াকাড়ি পড়ে গিয়েছে। অনেকের ফরম বৃষ্টিতে ভিজে গেছে। আবার ফরমে সঠিকভাবে তথ্য-উপাত্ত না লিখতে পারায় ঝামেলায় পড়েন অনেকে। বিপুলসংখ্যক প্রবাসীর উপস্থিতির কারণে এ ক্ষেত্রে শৃঙ্খলা বজায় রাখা কঠিনও বটে। তবে সেক্ষেত্রে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে প্রবাসীদের জন্য সহায়তামূলক ব্যবস্থা নেয়া যেত। এতে তাদের দুর্ভোগ কম হতো। সারা বিশ্বের শ্রমবাজার করোনায় বিপর্যস্ত। উৎপাদন, নির্মাণ, সেবা- সব খাতের পরিস্থিতিই নাজুক। এখন যখন শ্রমবাজারগুলো ধীরে ধীরে পুনরায় চালু হচ্ছে, তখন সেসব বাজার ধরে রাখার জন্য শুরু থেকেই আমাদের তৎপর হতে হবে। কোনোভাবেই যেন কোনো শ্রমবাজার হাতছাড়া হয়ে না যায় সে ব্যাপারে সংশ্লিষ্টদের সজাগ থাকতে হবে। আমাদের প্রত্যাশা, টিকিট-টোকেনের জন্য সৌদি প্রবাসী কর্মীরা যে দুর্ভোগের সম্মুখীন হচ্ছেন, অচিরেই তার অবসান হবে।

Girl in a jacket

Girl in a jacket

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।