সোয়াতের কসাইকে মৃত্যুদ- দিল পাকিস্তান

369

1483075925

বিশ্ব ডেস্ক: পাকিস্তানের সামরিক আদালত শীর্ষ তালেবান নেতা মুসলিম খানকে মৃত্যুদ- দিয়েছে। ‘সোয়াতের কসাই’ বলে খ্যাত এই জঙ্গির বিরুদ্ধে সামরিক, বেসামরিকসহ ৩১ ব্যক্তিকে হত্যার অভিযোগ রয়েছে। দেশটির নতুন সেনাপ্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়ার অনুমোদিত আটজন মৃত্যুদ-প্রাপ্ত ব্যক্তির একজন মুসলিম খান। ২০১৪ সালে পেশওয়ারে একটি স্কুলে গণহত্যার পরে এই সামরিক আদালত প্রতিষ্ঠা করা হয় যার মেয়াদ আগামী সপ্তাহে শেষ হচ্ছে। এছাড়া মৃত্যুদ-প্রাপ্ত অন্য ব্যক্তিরা হচ্ছেন ২০১৫ সালে করাচিতে ইসমাইলি শিয়াদের বাসে হামলা চালানো চারজন বন্দুকধারী ও মানবাধিকারকর্মী সাবিন মাহমুদকে হত্যাকারীরা। চরম নৃশংসতার জন্য সোয়াতের কসাই বলে পরিচিত মুসলিম খানের রাজনীতি শুরু ধর্মনিরপেক্ষ রাজনৈতিক দলের ছাত্র সংগঠনে। কিন্তু তালেবানপূর্ব যুগে ১৯৯০ সালে তার মতাদর্শগত দিক দিয়ে আমূল পরিবর্তন আসে। ২০০৭ সালে সোয়াত উপত্যকার তালেবানের প্রধান মুখপাত্র হয়ে ওঠেন তিনি। ২০০৯ সালে গ্রেফতার হওয়ার আগ পর্যন্ত সেখানের তালেবান জঙ্গিগোষ্ঠীর প্রধান চরিত্র ছিলেন তিনি। সোয়াতে তালেবানের হত্যা, শিরশ্ছেদ ও স্কুল ধ্বংসের কারণে তাকে ‘সোয়াতের কসাই’ আখ্যা দেয়া হয়।