সোনার বাংলা বিনির্মাণে করোনা কাটিয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয়

31

সারা দেশের ন্যায় চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর ও ঝিনাইদহে স্বল্প পরিসরে আ.লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্যাপন
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কখনো নীতি-আদর্শ থেকে বিচ্যুত হয়নি -এমপি ছেলুন জোয়ার্দ্দার
সমীকরণ প্রতিবেদন:
করোনাদুর্যোগে মানুষের পাশে থাকার অঙ্গীকার, সাম্প্রদায়িক বিষবৃক্ষের মূলোৎপাটন করে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণ এবং শেখ হাসিনার নেতৃত্বে করোনাসহ যেকোনো দুর্যোগ কাটিয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয়ে গতকাল বুধবার ঢাকাসহ সারা দেশে পালিত হয়েছে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। প্রতিবছর জাঁকজমকপূর্ণ কর্মসূচি থাকলেও এবার করোনার কারণে ছিল না কোনো বড় আনুষ্ঠানিকতা। সীমিত পরিসরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি ও মাজারে শ্রদ্ধা নিবেদন, গরিব অসহায়দের মধ্যে খাদ্য বিতরণ, বৃক্ষরোপণসহ নানা কর্মসূচির মাধ্যমে পালন করা হয় দেশের প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক দলটির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। প্রতিবছরের মতো এবারে আওয়ামী লীগের জন্মদিনে নিষেধাজ্ঞার কারণে নামতে পারেনি মানুষের ঢল। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর দিনটি স্মরণ করতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিবিজড়িত ধানমণ্ডি ৩২ নম্বরে এসেছিলেন মাস্ক পরে ও শারীরিক দূরত্ব মেনে আওয়ামী লীগের সীমিত সংখ্যক নেতাকর্মী। মুখ মাস্ক আর দূরত্ব বজায় রেখেই বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তারা। প্রথমে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরে, সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি দলীয় নেতাদের সঙ্গে নিয়ে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেন। বর্তমান এই সময়ে করোনাকে জয় করে জনগণের সুরক্ষা নিশ্চিত করাই দলের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ বলে মনে করেন শ্রদ্ধা জানাতে আসা নেতারা। নানা ঘাত-প্রতিঘাত সহ্য করে দেশবাসীর ভাগ্যোন্নয়নে কাজ করে যাওয়ার আশা তাদের। সাম্প্রদায়িক বিষবৃক্ষের মূলোৎপাটন করে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বিনির্মাণই আওয়ামী লীগের অঙ্গীকার। এদিকে, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সারা দেশের ন্যায় চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর ও ঝিনাইদহে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছেন দলটির নেতা-কর্মীরা। আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক ও বিভিন্ন উপজেলা থেকে প্রতিবেদকের পাঠানো প্রতিবেদন-
চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের কর্মসূচি:

\

চুয়াডাঙ্গায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্যাপিত হয়েছে। চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে গতকাল বুধ্বার সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে জেলা আওয়ামী লীগের নতুন কার্যালয়ে জাতীয় পতাকা ও সাংগঠনিক দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। পতাকা উত্তোলনের পর জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃত্বিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়। জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ও চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এবং সাংগঠনিক দলীয় পতাকা উত্তোলন করেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাবেক মেয়র রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন।
এসময় এমপি ছেলুন জোয়ার্দ্দার বলেন, অনেক ঘাত-প্রতিঘাত অতিক্রম করেও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কখনো নীতি-আদর্শ থেকে বিচ্যুত হয়নি। গণমানুষের অধিকার আদায় ও জনগণের কল্যাণেই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সবসময় কার্যক্রম পরিচালনা করেছে এবং সে ধারা অব্যাহত থাকবে। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সভাপতি, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে চলেছে। তারই নেতৃত্বে এই করোনা মহামারিকেও অতিক্রম করে বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে।
তিনি আরও বলেন, যেকোনো দুর্যোগ কিংবা দেশের যেকোনো সংকটে মানুষের পাশে দাঁড়ানোই হলো আওয়ামী লীগের ঐতিহ্য। আওয়ামী লীগ সংকটে মানুষের পাশে থেকে দেশের মানুষের আস্থা ভালোবাসা অর্জন করছে। আওয়ামী লীগ দেশের জনগণের জন্যই কাজ করে, আর জনগণই মূল শক্তি এই দলটির। পরে করোনায় আক্রান্ত হয়ে আওয়ামী লীগ নেতাদের মৃত্যুতে রুহের মাগফিরাত কামনা, বঙ্গবন্ধুসহ জাতীয় চার নেতা ও দেশবাসীর জন্য দোয়া করা হয়।
এসময় উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মুন্সি আলমগীর হান্নান, মুফতি মাসুদুজ্জামান লিটু বিশ্বাস, পৌর মেয়র জাহাঙ্গির আলম মালিক, দপ্তর সম্পাদক অ্যাড. আবু তালেব বিশ্বাস, ক্রীড়া সম্পাদক আরশাদ উদ্দিন চন্দন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. তালিম হোসেন, উপপ্রচার সম্পাদক শওকত আলী বিশ্বাস, কার্যনির্বাহী সদস্য ও জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাড. বেলাল হোসেন।
এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) আলাউদ্দিন হেলা, যুবলীগের সাবেক আহ্বায়ক আরেফিন আলম রঞ্জু, যুবলীগ নেতা আব্দুল কাদের, টিপু সুলতান, ছাত্রলীগের সভাপতি মোহাইমেন হাসান জোয়ার্দ্দার অনিক, সহসভাপতি সাহাবুল হোসেন, সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান গরিব রুহানি মাসুম, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহাজাদী মিলি, জেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি আফজাজুল হক বিশ্বাস, সাধারণ সম্পাদক রিপন মন্ডল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম কেতু, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুন নাহার কাকলী, মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান নাবিলা রুকসানা ছন্দা, পৌর মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাফিয়া সাহাব, পৌর আওয়ামী লীগের সব ওয়ার্ডের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ ও অঙ্গ ও সহযোগী এবং ভাতৃপ্রতিম সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
আলমডাঙ্গা:


আলমডাঙ্গায় আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্যাপন করা হয়েছে। আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনগুলো দিবসটি উপলক্ষে নানা কর্মসূচি পালন করে। গতকাল বুধবার সকালে উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন, সন্ধ্যায় আলোচনা সভা, দোয়া মাহফিল ও কেক কাটা হয়। পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি দেলোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আলমডাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র হাসান কাদির গনু। প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ইয়াকুব আলী মাস্টার।
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশবিষয়ক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম খান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি বিশিষ্ট ব্যবসায়ী শিক্ষানুরাগী আলহাজ্ব লিয়াকত আলী লিপু মোল্লা, সহসভাপতি খন্দকার হামিদুল ইসলাম আজম ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক কাজী রবিউল হক।
পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মতিয়ার রহমান ফারুকের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী খালেদুর রহমান অরুন, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সালমুন আহম্মেদ ডন, আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল মালেক, ঠান্ডু রহমান, পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের ক্রীড়া সম্পাদক মহিদুল ইসলাম মহিদ, জেলা মৎসজীবী লীগের আহ্বায়ক শাহাবুল হক, পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক সাইফুর রহমান পিণ্টু, কৃষ্ণ বিশ্বাস, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু মুসা, পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, মহাসিন কামাল, আলমডাঙ্গা উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি এম আজিজুল হক, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মিজানুর রহমান, মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী সাহিদা খাতুন, পৌর মহিলা লীগের সম্পাদক ও পৌর কাউন্সিলর রাবেয়া খাতুন, মহিলা নেত্রী জাহানারা খাতুন, ডালিম রানী, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা রেজাউল হক তবা, পরিমল ঘোষ কালু, সোনাউল্লাহ, জাহাঙ্গীর হোসেন, দিনেশ বিশ্বাস, শহিদুল মোল্লা, যুবলীগ নেতা সাজ্জদুল ইসলাম স্বপন, শিলকন জোয়ার্দ্দার, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সোহেল রানা শাহিন, কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি আশরাফুল হক, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি নয়ন সরকার, ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক নাহিদ হাসান তমাল, আলম হোসেন, সৈকত খান, কাজী চন্দন, মৃডেল মৃধা, পাপ্পু, মুক্তার আলী প্রমুখ।
দর্শনা:


দর্শনা পৌর আওয়ামী লীগো আয়োজনে গৌরব, সাফল্য ও সংগ্রামের ৭২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করা হয়েছে। গতকাল বুধবার দর্শনা পৌর আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে সকাল ৯টায় জাতীয় পতাকা ও দলীয় পতাকা উত্তোলন শেষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুস্পমাল্য অর্পন করা হয়। এসময় পতাকা ও পুস্পমাল্য অর্পণ করেন দর্শনা পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও দামুড়হুদা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলী মুনছুর বাবু। আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের ধর্মবিষয়ক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীন, পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী শহিদুল ইসলাম, দর্শনা পৌর নাগরিক কমিটির সদস্যসচিব গোলাম ফারুক আরিফ, যুবলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম হুকুমসহ আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।
মুজিবনগর:

?

মুজিবনগর কমপ্লেক্সে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ, সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের মধ্যদিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্যাপিত হয়েছে। গতকাল বুধবার সকাল ১০টায় মুজিবনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব আমাম হোসেন মিলুর উদ্যোগে দিবসটি উদ্যাপন করে মুজিবনগর উপজেলা আওয়ামী লীগ। এসময় সেখানে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়।
জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও বাগোয়ান ইউপি চেয়ারম্যান আয়ুব হোসেন, সদস্য রফিকুল ইসলাম তোতা, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক নাসিরউদ্দীন বাবলু, ইউপি আওয়ামী লীগের সভাপতি মুজিবুর রহমান মধু, মোস্তাকিম হক খোকন কমান্ডার, রফিকুল ইসলাম রফা, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি কামরুল হাসান চাঁদু, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহসভাপতি মতিউর রহমান মতিন, দোলন প্রমুখ পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন। পরে সেখানে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা ও দোয়া মহাফিল অনুষ্ঠিত হয়।