‘সীমান্তে অবৈধ প্রবেশ পাল্লা দিয়ে বাড়ছে’

24

মহেশপুর সীমান্ত দিয়ে ভারতে প্রবেশকালে আরও ৩১ জন আটক
ঝিনাইদহ অফিস:
অবৈধপথে ভারত থেকে বাংলাদেশ এবং বাংলাদেশ থেকে ভারতে প্রবেশের প্রবণতা ক্রমশই বৃদ্ধি পাচ্ছে। সীমান্তে বিজিবির টহল জোরদার থাকার পরও অনুপ্রবেশ বাড়ছে যেন পাল্লা দিয়ে। এদিকে গতকাল সোমবার মহেশপুর ৫৮ বিজিবি সীমান্তের বিভিন্ন গ্রামে অভিযান চালিয়ে ৩১ জনকে আটক করেছে। এরা সবাই অবৈধপথে বাংলাদেশ থেকে ভারতে প্রবেশ করছিল। তবে কোনো দালাল আটক হয়নি।
মহেশপুর ৫৮ বিজিবির পক্ষ থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, মহেশপুর ব্যাটালিয়ন ৫৮ বিজিবির অধিনস্ত শ্যামকুড় বিওপির দায়িত্বপূর্ণ এলাকার মহেশপুর উপজেলার একাশিপাড়া গ্রামের একটি ইটভাটার সামনে থেকে গতকাল সোমবার যশোর জেলার বাঘারপাড়া থানার পারপুল গ্রামের মৃত আনছার আলীর মেয়ে মোছা. লিপি খাতুন (২৫) ও একই গ্রামের মো. গোলাম রসুলের মেয়ে ও মোছা. সাথি খাতুনকে (১৯) আটক করা হয়। মহেশপুরের মাটিলা বিওপির দায়িত্বপূর্ণ এলাকার মাটিলা গ্রামের একটি মেহগনি বাগানের মধ্যে থেকে ভারতে প্রবেশের সময় নাটোর জেলার সিংড়া থানার বালুঘোরা গ্রামের মৃত খান বাহাদুরের ছেলে মো. আজিম (৪৭), তার স্ত্রী মোছা. আজমিরা খাতুন (২৮) এবং তার শিশুকন্যা মোছা. হালিমাকে (১) আটক করা হয়। গতকাল ভোরে মহেশপুর ব্যাটালিয়ন ৫৮ বিজিবির বাঘাডাংগা বিওপির দায়িত্বপূর্ণ এলাকার কাঞ্চনপুর গ্রাম থেকে খুলানা জেলার বটিয়াঘাটা থানার কুলটিয়া গ্রামের আবুল শেখের ছেলে আসলাদ শেখ (২৮), তার স্ত্রী মোছা. সুমি শেখ (২২), তার শিশুকন্যা মোছা. সুমনা আক্তার হাবিবা (০৭ মাস), নড়াইল জেলার কালিয়া থানার বড়নাল রাজাপুর গ্রামের মো. আলী আকবরের ছেলে মো. মোস্তাফিজুর রহমান (২৪), তার ছেলে মো. আলী মর্তুজা (০৬), একই গ্রামর মৃত মহিউদ্দিন মোল্লার ছেলে শান্ত মোল্লা (২৩), ঢাকা জেলার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ গ্রামের মো. মহিবুল্লাহর মেয়ে হেনা খান (২৫), একই গ্রামের কমল মজুমদারের মেয়ে ছোয়া মজুমদার (২১), ঢাকার তেজগাও থানার মো. কোরবান আলীর ছেলে মুসকান আহমেদ (২০), ফরিদপুর জেলার কোতয়ালী থানার অম্বিকাপুর গ্রামের মো. ইব্রাহিমের মেয়ে সুমাইয়া (২২), জীবননগরের করিমপুর বাজার থেকে খুলনা জেলার বটিয়াঘাটা থানার নারায়নপুর গ্রামের লিয়াকত খানের ছেলে মো. আজিজুর খান (১৯), হাতিরাবাদ গ্রামের ইছাহক আলী শেখের ছেলে মো. সলেমান শেখ (৩১), ফুলবাড়ী গ্রামের মৃত সৈয়দ আলী শেখের ছেলে মো. গাউছ শেখ (৩৫), তার স্ত্রী মোছা. সাবিনা (৩০), মো. সাব্বির হোসেন শেখ (০৮), নড়াইল জেলার কালিয়া থানার বাবুপুর গ্রামের মিকাইল শিকদারের ছেলে মো. শাহিন শেখ (১৯), হাড়িভাংগা গ্রামের মো. তারা মিয়ার ছেলে মুন্না (২২), রাজবাড়ী জেলার কালুখালী থানার হরিনবাড়ীয়া গ্রামের শহিদ শেখের মেয়ে অজিফা খাতুন (২২)। জীবনগর উপজেলার ইসলামী ব্যাংক এলাকা থেকে নড়াইল জেলার কালিয়া থানার নোয়াগ্রামের মৃত গনী শেখের ছেলে মো. মহিদ শেখ (৫৫), একই গ্রামের নজরুল মোল্লার ছেলে মো. জিনায়েদ (২২), তার স্ত্রী মোছা. মিম (২০), একই গ্রামের রাজা মিয়ার ছেলে মিনহাজুল ইসলাম (২০), একই গ্রামের অহিদ মোল্লার ছেলে অভি মোল্লা (২০), একই উপজেলার সুক্তোক গ্রামের লতিফ ফরাজির ছেলে মো. কামরুল ফরাজি (২৪), জসিম শেখের স্ত্রী শিউলি শেখ (৩০) ও নান্নু শেখের স্ত্রী মনিরা বেগমকে (৩০) আটক করা হয়।