সামাজিক আন্দোলনে সকলে এগিয়ে আসুন, আপনাদের সাথে থাকবো-জেলা প্রশাসক জিয়াউদ্দীন আহমেদ

305

চুয়াডাঙ্গায় আত্মবিশ্বাসের শিক্ষাবৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক জিয়াউদ্দীন আহমেদ
সামাজিক আন্দোলনে সকলে এগিয়ে আসুন, আপনাদের সাথে থাকবো
DSCN9580

স্টাফ রিপোর্টার: বেসরকারি সেবা ও ক্ষুদ্র ঋণদানকারী সংস্থা আত্মবিশ্বাসের আয়োজনে চুয়াডাঙ্গা ও ঝিনাইদহের অতিদরিদ্্র সদস্যের সন্তানদেরকে শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করা হয়েছে। সহযোগিতা করছে পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশন (পিকেএসএফ)।
গতকাল শুক্রবার সকাল ১০টায় চুয়াডাঙ্গা চেম্বার ভবনে শিক্ষাবৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে আত্মবিশ্বাস নির্বাহী পরিষদের সভাপতি মো. সাহেবজাদা হক ডেভিডের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক জিয়াউদ্দীন আহমেদ।
অভিভাবকদের সচেতন হওয়ার নির্দেশনা দিয়ে জেলা প্রশাসক বলেন, শিক্ষার্থীদের পারিবারিক ও সামাজিক জ্ঞান মাধ্যমিক পর্যায়ে হয়ে থাকে। তাই এখন থেকেই তাদের প্রতি বিশেষ নজর দিতে হবে। তিনি বলেন, আমি আমার একজন সহকর্মীকে পাঠিয়েছিলাম একটি পার্কে। সবাই ক্লাস করছে। ছেলে মেয়ে জোড়ায় জোড়ায় কোচিং ক্লাস করছে। প্রথমবার তাদেরকে সতর্ক করে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। বলেছি, এর পরেরবার বাবা-মা এসে নিয়ে যেতে হবে। তাই খোঁজ নিন প্রতিদিন আপনার সন্তান সকাল ৬টায় কোচিং এ গিয়ে কোন পার্কে ঘুরছে। ব্যক্তিগত সম্মান রক্ষার্থে সময় থাকতে সচেতন হোন।
তিনি আরো বলেন, শিক্ষা মানুষের মূল্যবোধ জাগ্রত এবং জাতিকে সমৃদ্ধ করে। শিক্ষার্থীদের প্রকৃত মানুষ গড়ে তুলতে পিতা-মাতা, অভিভাবক, শিক্ষক-শিক্ষিকা, প্রতিবেশীসহ সমাজ সহায়ক প্রতিষ্ঠানের ভূমিকা অপরিসীম।
প্রধান অতিথি বলেন, সামাজিক আন্দোলনে সকলে এগিয়ে আসুন, আমি আপনাদের সাথে থাকবো। শৃঙ্খলা ও মানসম্মত সমাজ গঠনে সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন।
আত্মবিশ্বাসের প্রশাসনিক কর্মকর্তা শাহেদ হাসান হালিমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আসাদুল হক বিশ্বাস, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মৃণাল কান্তি দে। স্বাগত বক্তব্য রাখেন আত্মবিশ্বাসের নির্বাহী পরিচালক মো. আকরামুল হক বিশ্বাস। এ ছাড়াও আত্মবিশ্বাসের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা, কর্মচারী, মাঠকর্মী ও সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানে চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার কার্পাসডাঙ্গা এলাকার অতিদরিদ্র সদস্যের সন্তান মো. আব্দুস সালাম, আলমগীর হোসেন, সুলতান মাহমুদ, লিপি খাতুন এবং ঝিনাইদহ জেলার কালিগঞ্জ এলাকার নাসরিন নাহার, রাব্বি হোসেন, ইব্রাহিম হোসেন, সোমা দাস ও সাইমুন রাজন এ্যানি’র হাতে ১২ হাজার টাকা করে সর্বমোট ১ লক্ষ ৮হাজার টাকার চেক তুলে দেওয়া হয়।