চুয়াডাঙ্গা বুধবার , ১১ জানুয়ারি ২০২৩
আজকের সর্বশেষ সবখবর

সরকারবিরোধীদের গণ-অবস্থান আজ

যুগপৎ বিক্ষোভ সমাবেশ ১৬ ও ২৫ জানুয়ারি
সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
জানুয়ারি ১১, ২০২৩ ৭:৫৬ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

Girl in a jacket

সমীকরণ প্রতিবেদন:
সরকারবিরোধী যুগপৎ আন্দোলনের দ্বিতীয় কর্মসূচি হিসেবে আজ গণ-অবস্থানে মাঠে নামছে বিএনপিসহ সমমনা বিভিন্ন দল ও জোট। কর্মসূচি সফলে ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। রাজধানীতে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে মূল শোডাউন করবে বিএনপি। সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ৪ ঘণ্টার এই কর্মসূচিতে নেতা-কর্মীদের ঢল নামবে বলে বিএনপি মহানগর নেতারা জানিয়েছেন। অবস্থান কর্মসূচি পালন শেষে নতুন কর্মসূচির ঘোষণা দেয়া হবে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে আগামী ১৬ জানুয়ারি বিক্ষোভ সমাবেশ ও ২৫ জানুয়ারি ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবসে’ সমাবেশ। এ ছাড়া বিএনপি ১৯ জানুয়ারি শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের জন্মদিন উপলক্ষে নানা কর্মসূচি পালন করবে। গণ-অবস্থান কর্মসূচির মাধ্যমে আজ বুধবার দেশব্যাপী শক্তির মহড়া দিতে চায় বিএনপিসহ সরকারবিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো। রাজধানী ঢাকাসহ সব বিভাগে এই গণ-অবস্থান পালিত হবে। কারাগারে থাকায় বিগত কর্মসূচিতে থাকতে না পারলেও আজ ঢাকায় এ কর্মসূচির নেতৃত্বে থাকবেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। সরকারের পদত্যাগ এবং নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনসহ ১০ দফা দাবি এবং রাষ্ট্র মেরামতের ২৭ দফা নিয়ে যুগপৎ আন্দোলন শুরু করেছে বিএনপি। গণ-অবস্থান কর্মসূচিতে বিএনপি ছাড়াও মাঠে থাকবে বেশ কয়েকটি দল ও জোট। পাশাপাশি সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ এবং আরও ১৫টি সংগঠনও থাকবে মাঠে।
গণ-অবস্থান কর্মসূচি করতে বাধা নেই: বিএনপির পূর্বঘোষিত গণ-অবস্থান কর্মসূচি করতে কোনো বাধা নেই বলে জানিয়েছেন দলের ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা: এ জেড এম জাহিদ হোসেন। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কার্যালয় থেকে বেরিয়ে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা জানান। অধ্যাপক জাহিদ হোসেন বলেন, আমরা ডিএমপি কমিশনারের সঙ্গে সফল আলোচনা করেছি। বিএনপির অবস্থান কর্মসূচি করতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে আর বাধা নেই। আজ পূর্বনির্ধারিত যে কর্মসূচি তা সকাল ১০টা থেকে বেলা ২টা পর্যন্ত কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে করা হবে। আজকের কর্মসূচি সমন্বয়ের জন্য বিএনপির সিনিয়র নেতাদের দায়িত্ব বণ্টন করে দেয়া হয়েছে। মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটি সদস্য ডক্টর খন্দকার মোশাররফ হোসেন ও মির্জা আব্বাস থাকবেন কেন্দ্রীয় কর্মসূচির নেতৃত্বে। এ ছাড়া গণতন্ত্র মঞ্চ বেলা ১১টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে, ১২ দলীয় জোট বিজয় নগর পানির ট্যাংক এলাকায়, জাতীয়তাবাদী সমমনা জোট পুরানা পল্টন প্রীতম হোটেলের উল্টো দিকে, কাওরান বাজার এফডিসি সংলগ্ন দলীয় কার্যালয়ের সামনে এলডিপি, জাতীয় প্রেস ক্লাবের পূর্ব প্রান্তের সামনে বাম গণতান্ত্রিক ঐক্য জোট অবস্থান নিয়ে কর্মসূচি পালন করবে। ঢাকার বাইরে রাজশাহীতে স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান, ময়মনসিংহে স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, চট্টগ্রামে স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, বরিশালে স্থায়ী কমিটির সদস্য সেলিমা রহমান, রংপুরে স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, কুমিল্লায় ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু, খুলনায় ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, ফরিদপুরে ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আহমেদ আজম খানের নেতৃত্বে হবে গণ-অবস্থান।
সূত্র মতে, যুগপৎ আন্দোলনের দ্বিতীয় কর্মসূচি গণ-অবস্থানে বড় জমায়েতের প্রস্তুতি নিয়েছে বিএনপি। বিভাগীয় শহরে গণ-অবস্থান কর্মসূচি সফল করতে বিএনপি এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সব জেলা, মহানগর, উপজেলা, পৌর, থানা, ইউনিয়ন এবং ওয়ার্ড ইউনিটের নেতারা এরই মধ্যে গণসংযোগ, কর্মিসভা, লিফলেট বিতরণসহ প্রস্তুতিমূলক সব ধরনের কার্যক্রম শেষ করেছে। দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর মুক্তি পাওয়ায় নেতাকর্মীদের মধ্যে স্বস্তি ফিরেছে। তাই নেতাকর্মীরা এ কর্মসূচি সফলে অধিক গুরুত্ব দিচ্ছেন। সব ধরনের প্রস্তুতিও প্রায় সম্পন্ন। বিএনপির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা জানান, গণ-অবস্থান যাতে শান্তিপূর্ণ ও সুশৃঙ্খলভাবে হয়, সে জন্য দলের স্থায়ী কমিটির সদস্যদের বিশেষ দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। এ ছাড়া বহুল আলোচিত ১০ ডিসেম্বরের কর্মসূচির আগে দলের মহাসচিব আটক হওয়ায় তিনি সেই কর্মসূচিতে থাকতে পারেননি। এবার থাকবেন। ফলে সমাগমও অনেক বেশি হবে এমনই ধারণা করছেন নেতাকর্মীরা। বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর কর্মসূচি প্রসঙ্গে বলেন, এ পর্যন্ত বিএনপি যতগুলো কর্মসূচি পালন করেছে, প্রতিটিতে নেতা-কর্মীদের পাশাপাশি বিপুলসংখ্যক সাধারণ মানুষ অংশ নিয়েছে। এই কর্মসূচির ব্যতিক্রম নয়। নেতাকর্মীদের পাশাপাশি সাধারণ মানুষের উপস্থিতিতে কর্মসূচি সফল হবে।

Girl in a jacket

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।