চুয়াডাঙ্গা সোমবার , ৩১ জুলাই ২০১৭
আজকের সর্বশেষ সবখবর

সময়ানুবর্তিতায় বরকত

সমীকরণ প্রতিবেদন
জুলাই ৩১, ২০১৭ ৭:০৫ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

ধর্ম ডেস্ক: মানুষের জীবনের প্রতিটি মুহূর্তই অতি মূল্যবান। অহেতুক বা কর্মহীন কাটানোর মতো সময় মানুষের জীবনে থাকার কথা নয়। যারা জীবনের প্রতিটি মুহূর্ত কাজে লাগিয়েছেন তারাই দুনিয়াতে সার্থক হয়েছেন। আর যারা সময় নষ্ট করেছেন তাদের আক্ষেপ ছাড়া আর কিছুই নেই। জীবনের সময়গুলো কাজে লাগানোর একটি বড় উপায় হলো সময়ানুবর্তিতা। সময়ের কাজ সময়ে করা, রুটিন ধরে কাজ সম্পাদন এটা ইসলামেরও নির্দেশ। সময়ের কাজ সময়ে না করলে সারা জীবন পস্তাতে হয়। শয়তান মানুষের পেছনে সব সময় লেগে আছে। মানুষ ভালো কাজ করে সফল হয়ে যাক এটা শয়তান কখনো চায় না। শয়তানের সব ষড়যন্ত্র ছিন্ন করে সফল হওয়ার একমাত্র উপায় হলো সময়ানুবর্তিতার মাধ্যমে জীবনের প্রতিটি মুহূর্ত কাজে লাগানো। উম্মতের রুহানি ডাক্তার খ্যাত মাওলানা আশরাফ আলী নবী (রহ.) বলেন, ‘সংক্ষেপে তাসাওউফের নির্যাস হলো, ইবাদত করতে অলসতাবোধ হলে অলসতার মোকাবিলা ওই ইবাদতের মাধ্যমেই করা। আর কোনো গুনাহ করার ইচ্ছা জাগলে তার মোকাবিলাও গুনাহটি বর্জন করার মাধ্যমেই করা। এটাই সমস্ত আধ্যাত্মিকতার সারকথা।’ রাসূল (সা.) বলেন, ‘মরণ আসার আগেই জীবনের মূল্যায়ন করো।’ ইসলামের শিক্ষা হলো ফজরের নামাজের পর আল্লাহর কাছে এই দোয়া করবে হে আল্লাহ আজকের দিনটি শুরু হচ্ছে, জীবনকর্মে প্রবেশের সময় শুরু হয়েছে। দয়া করে এই দিনটির প্রতিটি মুহূর্তকে সঠিকভাবে ব্যয় করার তাওফিক দান করুন। অর্থহীন কাজে যেন দিনটি ফুরিয়ে না যায়। বরং কল্যাণমূলক কাজে দিনটিকে ব্যয় করার তাওফিক আমাকে দান করুন। তারপর রাতে শোয়ার সময় দিনটির হিসাব নেবে সকালে যে যে প্রতিজ্ঞা করেছিলে, তার সঙ্গে গোটা দিনটার কী পরিমাণ ঘনিষ্ঠ ছিল। কোন কোন ক্ষেত্রে তোমার বিচ্যুতি হয়েছিল। বিচ্যুত অংশের জন্য আল্লাহর কাছে তাওবা-ইসতেগফার করবে। আবদুল্লাহ ইবনে উমর (রা.) বলেন, ‘যখন সকাল বেলায় উপনীত হবে, তখন সন্ধ্যার অপেক্ষা করো না এবং সন্ধ্যায় সকালের অপেক্ষা করো না। নিজেকে কবরবাসীর একজন মনে করো।’ একজন মুমিনের দিন-রাতের কোনো সময়ই পরিকল্পনাহীন কাটতে পারে না। সময়ের একটি পূর্ণাঙ্গ রুটিন তার কাছে থাকতে হবে। সময় ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে জীবনে অনেক বরকত আসে। পুরো সময়টাকে যারা পরিকল্পিতভাবে ব্যয় করতে পেরেছেন তারাই কিছু একটা করতে পেরেছেন।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।