চুয়াডাঙ্গা সোমবার , ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

সম্মিলিত প্রচেষ্টায় মেহেরপুরকে উন্নত জনপদ করতে হবে

সমীকরণ প্রতিবেদন
সেপ্টেম্বর ২০, ২০২১ ৮:৩৪ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

কৃষকদের মধ্যে বিভিন্ন উপকরণ বিতরণকালে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন
প্রতিবেদক, মেহেরপুর:
মেহেরপুর জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উদ্যোগে ২০২১-২০২২ অর্থবছরে খরিপ/২০২১-২০২২ মৌসুমে কৃষকদের মধ্যে উচ্চফলনশীল পাট বীজ উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জনের জন্য নাবি পাট বীজ, সারসহ অন্যান্য বীজ বিতরণ করা হয়েছে। গতকাল রোববার বিকেলে মেহেরপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলনকক্ষে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফরহাদ হোসেন প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে মেহেরপুর জেলার ৩টি উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের জন ১৫০ কৃষকের মধ্যে উচ্চ ফলনশীল পাট বীজ (নাবী পারভেজ), ৪০০ জন চাষীর মধ্যে গ্রীষ্মকালীন পেঁয়াজ বীজ সহায়তা প্রদান এবং ১ হাজার ৯১০ জন ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকের মধ্যে মাসকলাই বীজ ও সার বিতরণের উদ্বোধন করেন।
উদ্বোধন অনুষ্ঠানে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘যেকোনো ভালো জিনিস করতে পারলে আমাদের মনে আনন্দ থাকে। বর্তমান সরকার অত্যান্ত দক্ষতার সাথে পরিকল্পনার মধ্যদিয়ে একটা সুন্দর রুপগল্প নিয়ে আমাদের যে মহাপরিকল্পনা, তা প্রধানমন্ত্রী এগিয়ে নিচ্ছেন। আমরা জানি বাংলাদেশ প্রাকৃতিক দুর্যোগের দেশ, এখনো কিন্তু প্রতি বছর প্রাকৃতিক দুর্যোগের সম্মুখীন হই। ছোট বেলায় টিভি-রেডিওতে শুনতাম দেখতাম, সবাইকে উদাত্ত আহ্বান জানানো হতো, আপনাদের যার যা আছে পুরোনো কাপড় থেকে শুরু করে বিভিন্ন জিনিসপত্র দিয়ে বন্যার্তদের পাশে দাঁড়াতে। কিন্তু আজ আমরা দেখি এই টুটাল দায়িত্ব সরকার নিয়েছে। অন্য কোনো সংস্থাকে এগিয়ে আসতে হচ্ছে না। সরকার প্রত্যেকটি জায়গায় অত্যান্ত সক্ষম, তার সাথে প্রতিটি মানুষের দায়িত্ব নিয়েছে। আমরা একটি বড় সক্ষমতার জায়গায় আসতে পেরেছি। এখন প্রতিটি মানুষ স্বীকার করে প্রত্যেকটি উন্নয়নের কথা। আজ এসব সম্ভব হচ্ছে শুধুমাত্র মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য। তিনি অত্যান্ত দূরদর্শিতার সাথে এই করোনা পরিস্থিতিকে মোকাবিলা করে দেশকে এগিয়ে নিয়ে চলেছেন। আজ ক্রিকেট থেকে শুরু করে প্রতিটি জায়গায় একটার পর একটা বিজয়, এগুলো কিন্তু একসাথে সদিচ্ছা না থাকলে হয় না। আসুন আমরা সবাই সম্মিলিতভাবে মেহেরপুরকে উন্নত জনপদ তৈরি করে রেখে যেতে পারি, সেটির জন্য আমরা সবাই কাজ করব।’
এসময় জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেনের পত্নী ও কেন্দ্রীয় যুব মহিলা লীগের সদস্য সৈয়দা মোনালিসা ইসলাম, জেলা প্রশাসক ড. মোহাম্মদ মনসুর আলম খান, পুলিশ সুপার মো. রাফিউল আলম, ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের সুপার ডা. মো. রফিকুল ইসলাম, মেহেরপুর সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. রফিকুল ইসলাম, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক মৃধা মো. মুজাহিদুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) হাফিজ আল আসাদ, গাংনী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এম এ খালেক, মেহেরপুর সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. অলোক কুমার দাস, মুজিবনগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জিয়ার উদ্দিন বিশ্বাস, মেহেরপুর জেলা আনসার কমান্ডেন্ট রাকিবুল ইসলাম, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আসাদুজ্জামান রিপন, গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মৌসুমী খানম, মুজিবনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুজন সরকার, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক অ্যাডভোকেট ইব্রাহিম শাহীন, পিপি পল্লব ভট্টাচার্য প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।