সব প্রস্তুতি সম্পন্ন, পর্যবেক্ষণে সিসি ক্যামেরা

393

চুয়াডাঙ্গায় আ.লীগের জনসভা আজ, তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা
নিজস্ব প্রতিবেদক:
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ‘ভ্যাকসিন হিরো’ ও ‘চ্যাম্পিয়ন অব স্কিল ডেভেলপমেন্ট ফর ইয়ুথ’ পুরস্কার অর্জনে চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের বিশাল জনসভা আজ। জনসভা উপলক্ষে শহীদ হাসান চত্বরে প্রস্তুত বিশাল মঞ্চ। চারদিকে লাগানো হয়েছে মাইক। জনসভাকে কেন্দ্র করে যেকোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা মোকাবিলায় রাত থেকেই শহরজুড়ে নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেছে পুলিশ। এ ছাড়াও থাকবে তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা। পর্যবেক্ষণ হবে সিসি ক্যামেরায়।
জনসভার উদ্দেশ্য ও প্রস্তুতি প্রসঙ্গে জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা টিকাদান কর্মসূচিতে ব্যাপক সাফল্যের স্বীকৃতি স্বরুপ জাতিসংঘের সদর দপ্তরে ‘ভ্যাকসিন হিরো’ পুরস্কার ও যুবকদের দক্ষতা বৃদ্ধিতে ‘চ্যাম্পিয়ন অব স্কিল ডেভেলপমেন্ট ফর ইয়ুথ’ পুরস্কারে ভূষিত হওয়ায় এবং মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও সব অপশক্তির বিরুদ্ধে অগ্রণী ভূমিকা পালন করায় চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বৃহস্পতিবার বেলা তিনটায় শহীদ হাসান চত্বরে (চৌরাস্তার মোড়) বিশাল জনসভার আয়োজন করা হয়েছে। জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেবেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন। জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য হাজী আলী আজগার টগরের সভাপতিত্বে জনসভায় বক্তব্য দেবেন জেলা, উপজেলা, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।’
জনসভার দিন সড়কে যানবাহন চলাচল ব্যবস্থা নিয়ে নিজেদের পরিকল্পনার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘জেলার ৩৮টি ইউনিয়ন, ৪টি পৌরসভা ও উপজেলা থেকে জনসভায় ৩৫ হাজার লোকসমাগম হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তাই শহরজুড়ে যেন কোনো প্রকার বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি না হয়, এ কথা মাথায় রেখে রুটপ্লান তৈরি করা হয়েছে। যানবাহন চলাচলে অসুবিধার কথা মাথায় রেখে দুই ঘণ্টা বাস-ট্রাকসহ ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধ রেখে তা শহরের বাইরে সুবিধাজনক স্থানে থামিয়ে রাখা হবে। অন্যান্য যানবাহন চলাচলে ট্রাফিক বিভাগের সঙ্গে আলোচনা করে বিকল্প রাস্তা নির্ধারণ করা হবে। এ ছাড়া জনসভায় আগত যানবাহনগুলো রাখার জন্য দৌলাতদিয়াড় বিএডিসি (বীজ), টাউন ফুটবল মাঠ, পুরাতন স্টেডিয়াম মাঠ ও সরকারি কলেজ চত্বর নির্ধারণ করা হয়েছে।’
এ প্রসঙ্গে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু জিহাদ ফখরুল আলম খান সময়ের সমীকরণকে বলেন, রাত থেকেই দেড় শতাধিক পুলিশ সদস্য মাঠে নেমেছেন। পাশপাশি সাদা পোশাকেও দায়িত্ব পালন করছেন পুলিশ সদস্যরা। জনসভাকে কেন্দ্র করে পুলিশের পক্ষ থেকে তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। পুরো জনসভাস্থল সিসি ক্যামেরার মাধ্যমে পর্যবেক্ষণ করা হবে। এ ছাড়া জনসভায় আসা যানবাহনগুলো শহরের বাইরে নির্দিষ্ট কয়েকটি স্থানে রাখা হবে। আর ভারী যানবাহনগুলো কিছু সময়ের জন্য বন্ধ থাকবে। ট্রাফিক বিভাগের পক্ষ থেকে আলাদা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে, যেন কোনোভাবেই চলাচলে জনদুর্ভোগ সৃষ্টি না হয়।