সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ নিয়ন্ত্রণে পুলিশ এখন যথেষ্ট সক্ষম ও জনবান্ধব

263

মেহেরপুরে মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদবিরোধী জনসমাবেশে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন
মেহেরপুর অফিস:
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, ‘দশ-এগারো বছর আগে আপনারা যে পুলিশ বাহিনী দেখেছেন, এখনকার পুলিশ আর সেই জায়গায় নেই। সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ নিয়ন্ত্রণে পুলিশ এখন যথেষ্ট সক্ষম ও জনবান্ধব।’ গতকাল রোববার বিকেলে মেহেরপুর শহরের শহীদ ড. সামসুজ্জোহা পার্কে অনুষ্ঠিত মেহেরপুর জেলা পুলিশের আয়োজনে মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদবিরোধী জনসমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ২০০৮ সালে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষণা দিয়েছিলেন, বাংলাদেশকে বদলে দেবেন। তিনি এরই মধ্যে বাংলাদেশকে বদলে দিয়েছেন। জঙ্গি ও মাদক নিয়ন্ত্রণে জিরো টলারেন্স নীতির ঘোষণা করেছেন তিনি। বাংলাদেশে আগে যে মাদক নিয়ন্ত্রণ বিভাগ ছিল, সেটা গুটি কয়েক জনবল নিয়ে খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে চলত। কিন্তু বর্তমান সরকার মাদক নিয়ন্ত্রণ বিভাগকে জনবলসহ পুরোপুরি ঢেলে সাজিয়েছে। মাদক নিয়ন্ত্রণে ইতিমধ্যে এই বিভাগ সফলতার সঙ্গে সক্রিয় ভূমিকা পালন করছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, ‘মেহেরপুরের আইনশৃংখলা পরিস্থিতি অনেক ভালো অবস্থানে। কমেছে মাদকাসক্ত ও কারাগারে বন্দির সংখ্যা। এ চিত্র যদি সারা দেশে হতো, তাহলে আমরা আমাদের কাক্সিক্ষত বাংলাদেশ পেয়ে যেতাম।’ এ জন্য তিনি মেহেরপুর জেলা পুলিশকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, মাদকাসক্ত ঐশির মতো আর যেন কেউ বাবা-মাকে হত্যা করতে না পারে, সে জন্য দিন-রাত কাজ করছে পুলিশসহ প্রশাসনের সব বিভাগ।
মেহেরপুরের পুলিশ সুপার এস এম মুরাদ আলীর সভাপতিত্বে সমাবেশে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ও মেহেরপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য ফরহাদ হোসেন, মেহেরপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য সাহিদুজ্জামান খোকন, খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি ড. খ. মহিদ উদ্দিন বিপিএম (বার), জেলা প্রশাসক মো. আতাউল গনি, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ খালেক, সহসভাপতি আব্দুল হালিম ও জেলা কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সভাপতি ডা. এম এ বাশার। জনসমাবেশ মেহেরপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম রসুল, পৌর মেয়র মাহফুজুর রহমান, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাড. ইয়ারুল ইসলামসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশ নেন।