চুয়াডাঙ্গা শনিবার , ৩ জুলাই ২০২১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

সঙ্কটে মানুষের পাশে বিএনপি নেতা টিপু তরফদার

সমীকরণ প্রতিবেদন
জুলাই ৩, ২০২১ ৮:১৭ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

Girl in a jacket

মোজাম্মেল শিশির, দামুড়হুদা:
সারা বিশ্বে করোনা নামক মরণব্যধিতে তরতাজা প্রাণ ঝরছে প্রতিনিয়ত। বাংলাদেশের করোনা পরিস্থিতিও উদ্বেগজনক হারে বাড়ছে। আর এই সঙ্কটকালে মানুষ মানুষের জন্য, অসহায় মানুষের পাশে থাকাটাই হলো মনুষ্যত্বের কাজ। আর তেমনই নজরবিহীন দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপির অন্যতম নেতা বিঅ্যান্ডটি গ্রুপের চেয়ারম্যান, বিশিষ্ট শিল্পপতি ইঞ্জিনিয়ার মোখলেছুর রহমান টিপু তরফদার। চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের কোনো মানুষ যেন অক্সিজেনের অভাবে মৃত্যু না হয়, তার জন্য দামুড়হুদা ও ও জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অক্সিজেন প্লান্ট তৈরি করে দিয়েছেন। ১ হাজার ৮০ জন করোনা আক্রান্তদের বাড়িতে নগদ টাকাসহ খাদ্য-সামগ্রী পৌছে দিচ্ছেন প্রতিনিয়িত।
জানা যায়, দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা পুরাতন বাজার পাড়ার জেলা বিএনপির অন্যতম নেতা বিএন্ডটি গ্রুপের চেয়ারম্যান বিশিষ্ঠ শিল্পপতি ইঞ্জিঃ মোখলেছুর রহমান টিপু তরফদার ছোট্ট বেলা থেকেই মানুষের পাশে থেকে সহযোগিতা করাই তিনার অভ্যাস তারই আলোকে গত বছর করোনাভাইরাসে যখন মানুষ অক্সিজেনের অভাবে মারা যাচ্ছিল, তখন তিনি দামড়হুদা ও জীবননগর উপজেলার মানুষের কথা ভেবে নিজ অর্থায়নে দুই হাসপাতালে অক্সিজেন প্লান্ট তৈরি করে দেন ইঞ্জিনিয়ার মোছলেছুর রহমান টিপু তরফদার। যেখানে একটি প্লান্টে রয়েছে ৮টি অক্সিজেন সিলিন্ডার, ১০টি বেড ও ২টি সুসজ্জিত কেবিন।
সম্প্রতি দামুড়হুদা, দর্শনা, জীবননগর থানাসহ আশপাশের এলাকায় অতিমহামারি করোনার বিস্তার ও মৃত্যুহার ভয়াবহভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। গণমানুষের কথা চিন্তা করে, বিশেষভাবে যে সমস্ত রোগীর শ্বাসকষ্ট সমস্যা দেখা দিচ্ছে, তাঁদের সুচিকিৎসার জন্য দামুড়হুদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স গত বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে পুনরায় ৮টি ৯.৮ কিউবিক মিটার (৯৮০০) লিটার ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন অক্সিজেন ভর্তি সিলিন্ডার, ৪টি হাই-ফ্লো ও ফ্লো-মিটার, ৪টি ছোট সিলিন্ডারের রেগুলেটর, ১২টি হাই-ফ্লো অক্সিজেন মাস্ক এবং ১২টি নাজুল ক্যানুলা অক্সিজেন মাস্ক হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের নিকট হস্তান্তর করেন।
এদিকে, দামুড়হুদা ও জীবননগর উপজেলায় করোনা আক্রান্ত ব্যক্তিদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রতিটি পরিবারের জন্য ৩০ কেজি চাল, ৫ কেজি আলু, ১ কেজি পেঁয়াজ, ১ কেজি লবণ, ১ কেজি ডাল, ১ কেজি চিনি, ১ লিটার সয়াবিন তেল, ২ শ গ্রাম সরিষার তেল, ১টি সাবান, ১ শাড়ি, ২৪টি খাওয়ার স্যালাইন, ২০ পিস মাস্ক ও এক বোতল হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে যাচ্ছেন। এসব কাজে সার্বিক সহযোগিতা করেন দামুড়হুদা থানা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জহুরুল ইসলামসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।
দামুড়হুদা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবু হেনা মোহাম্মদ জামাল শুভ বলেন, গত বছর ইঞ্জিনিয়ার মোখলেচুর রহমান টিপু তরফদার হাসপাতালে অক্সিজেন প্লান্ট দিয়েছিলেন। তাতে করোনা রোগীদের অক্সিজেনের কোনো ঘাটতি ছিল না। এবারও করোনা রোগী বৃদ্ধি পাওয়ায় আরও ৮টি অক্সিজেন সিলিন্ডার দিয়েছেন। এতে করোনা রোগীরা কিছুটা হলেও ভালো সেবা পাবে।
জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সেলিনা আক্তার শিমু বলেন, গত বছর তিনি জীবননগরবাসীর জন্য এ হাসপাতালে যে অক্সিজেন প্লান্ট দিয়েছিলেন, তাতে এলাকার রোগীরা অনেক উপকৃত হয়েছে। এবার রোগীর সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় তিনি আরও ৮টি অক্সিজেন সিলিন্ডার দিয়েছেন। তাতে করোনা রোগীদের প্রাথমিক চিকিৎসাটি দিতে পারছি।

Girl in a jacket

Girl in a jacket

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।