চুয়াডাঙ্গা সোমবার , ১১ অক্টোবর ২০২১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ষষ্ঠীপূজার মধ্যদিয়ে শারদীয় দুর্গোৎসব শুরু হচ্ছে আজ

সমীকরণ প্রতিবেদন
অক্টোবর ১১, ২০২১ ৮:২৪ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

Girl in a jacket

প্রস্তুত চুয়াডাঙ্গা জেলার ১১৭টি পূজা মণ্ডপ, নিরাপত্তার দায়িত্বে সহস্রাধিক পুলিশ-আনসার
রুদ্র রাসেল:
দেবীর বোধন ও ষষ্ঠী পূজার মাধ্যমে আজ শুরু হচ্ছে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। তিথি অনুযায়ী আজ সোমবার সন্ধ্যায় দুর্গোতিনাশিনী দেবী দুর্গার বোধন, আমন্ত্রণ ও অধিবাস। ভক্তের ভক্তি, নিষ্ঠা আর পূজার আনুষ্ঠানিকতায় মাতৃরূপে দেবী দুর্গা অধিষ্ঠিত হবেন মণ্ডপে মণ্ডপে। তিথির কারণে একই দিনে মহাষষ্ঠী পূজা হবে। দেবী দুর্গার আগমনে উচ্ছ্বসিত ভক্তকুল। জেলা জুরে হিন্দু ধর্মালম্বীদের মধ্যে চলছে উৎসবের আমেজ। এদিকে, গতকাল রাত থেকেই জেলার সবকয়টি পূজা মণ্ডপে যে কোন অপৃতিকর ঘটনা এড়াতে পুলিশের চলমান ছিল।
পুরাণ মতে, রাজা সুরথ প্রথম দেবী দুর্গার আরাধনা শুরু করেন। বসন্তকালে তিনি এই পূজা আয়োজন করেছিলেন বলে এ পূজাকে বাসন্তী পূজা বলা হয়। কিন্তু রাজা রাবণের হাত থেকে স্ত্রী সীতাকে উদ্ধারের জন্য রাজা দশরথের পুত্র রামচন্দ্র শরত্কালে দুর্গাপূজার আয়োজন করেছিলেন। তাই শরত্কালের এই পূজাকে অকাল বোধনও বলা হয়। বাঙালির হৃদয়ে শরৎকালের দুর্গার অধিষ্ঠান কন্যারূপে।
প্রতিবছর বিভিন্ন বাহনে সপরিবারে শ্বশুরবাড়ি কৈলাস থেকে কন্যারূপে দেবী মর্ত্যলোকে আসেন বাপের বাড়ি বেড়াতে। তাই দেবীকে বরণে আয়োজনের কমতি থাকে না। এরই মধ্যে পাঁচ দিনব্যাপী পূজার সব প্রস্তুতি শেষ। মহালয়ার মধ্য দিয়ে পূজার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়েছে। আজ মহাষষ্ঠীর পর আগামীকাল মহাসপ্তমী।
জানা যায়, আজ থেকে চুয়াডাঙ্গার পাঁচটি থানার মোট ১১৭টি পূজা মণ্ডপে অনুষ্ঠিত হচ্ছে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। এর মধ্যে চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় পূজা মণ্ডপের সংখ্যা ২৪ টি, আলমডাঙ্গা থানায় পূজা মণ্ডপের সংখ্যা ৩৮টি, দামুড়হুদা থানায় পূজা মণ্ডপের সংখ্যা ১৪টি, জীবননগর থানায় পূজা মণ্ডপের সংখ্যা ২৩টি ও দর্শনা থানায় পূজা মণ্ডপের সংখ্যা ১৮টি।
পূজা মণ্ডপের নিরাপত্তায় জেলার ১১৭টি পূজা মণ্ডপকে অধিক গুরুত্বপূর্ণ, গুরুত্বপূর্ণ ও সাধারণসহ তিন ভাগে ভাগ করেছে জেলা পুলিশ। অধিক গুরুত্বপূর্ণ পুজা মণ্ডপগুলোর নিরাপত্তা দায়িত্বে একজন এসআই, দুইজন পুলিশ কনস্টেবল, একজন পিসি, একজন এসিপি, তিনজন পুরুষ আনসার ও দুইজন মহিলা আনসারসহ ১০ জন। গুরুত্বপূর্ণ পুজা মণ্ডপগুলোর নিরাপত্তা দায়িত্বে থাকবে দুইজন পুলিশ কনস্টেবল, একজন পিসি, একজন এসিপি, দুইজন পুরুষ আনসার ও দুইজন মহিলা আনসারসহ আটজন এবং সাধারণ পুজা মণ্ডপগুলোর নিরাপত্তা দায়িত্বে থাকবে দুইজন পুলিশ কনস্টেবল, একজন এসিপি, দুইজন পুরুষ আনসার ও দুইজন মহিলা আনসারসহ সাতজন। সব মিলিয়ে জেলার ১১৭টি পূজা মণ্ডপের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকবে ৬৩৪ জন পুলিশ সদস্য ও ৭৪৭ জন আনসার সদস্য।

Girl in a jacket

Girl in a jacket

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।