চুয়াডাঙ্গা শনিবার , ২০ আগস্ট ২০১৬
আজকের সর্বশেষ সবখবর

শৈলকুপায় জমি জবরদখল করতে গিয়ে নির্বাচন কমিশনের কর্মচারী আটক

সমীকরণ প্রতিবেদন
আগস্ট ২০, ২০১৬ ২:০৯ অপরাহ্ণ
Link Copied!

ঝিনাইদহ অফিস: ঝিনাইদহের শৈলকুপায় হাসিনা বেগম নামে এক মহিলার জমি জবরদখল করতে গিয়ে স্থানীয় নির্বাচন কমিশনের কর্মচারী রাশেদ শেখ আটক হয়েছেন। এ ঘটনায় ৪ জনকে আসামী করে জমির মালিক হাসিনা বেগম শৈলকুপা থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছেন। মামলায় অভিযুক্তরা হলেন, কবিরপুর গ্রামের আক্কাচ আলীর ছেলে সাজ্জাদ হোসেন, হাবিবুর রহমান গাজীর ছেলে রাজিব শেখ ও তার ভাই শৈলকুপা নির্বাচন কমিশনে কর্মরত রাশেদ শেখ এবং সাজ্জাদের স্ত্রী রাশিদা বেগম। হাসিনা বেগম জানান, শুক্রবার সকালে আসামী রাশেদকে থানায় ধরে এনেছে এস,আই সঞ্জয় কুমার মন্ডল। ভূমিদস্যূ রাশেদ তাকে ও তার বোন শাহিদা বেগমকে মারধর করেন। খোজ নিয়ে জানা যায়, রাশেদ শৈলকুপা উপজেলা নির্বাচন কমিশন কমিশনে কর্মরত আছেন। এছাড়াও এলাকায় তার বিরুদ্ধে মদ খেয়ে মাতলামী ও নারী কেলেংকারীরও অনেক অভিযোগ রয়েছে। এলাকাবাসীর প্রশ্ন এমন চরিত্রহীন মাতাল ব্যক্তি নির্বাচন কমিশনের মতো একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানে কি ভাবে চাকরী করেন? এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জেলা নির্বাচন অফিসের এক কর্মকর্তা জানান, রাশেদ আমাদের রেভিনিউ ভূক্ত কর্মচারী না, সে আউট সোসির্ং প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে মাস্টার রোলে শৈলকুপা উপজেলা নির্বাচন কমিশনে কর্মরত রয়েছেন। অভিযোগ পাওয়া গেছে, গত ১লা আগষ্ট বিকালে পৌর এলাকার ৯ নং ওয়ার্ডের কবিরপুর নতুন ব্রীজের দক্ষিন পার্শ্বে অবস্থিত হাসিনা খাতুনের নিজ নামীয় ৭ শতক জমিতে ঘর নির্মাণ করে জবরদখল করে নেয় স্থানীয় ভূমিদস্যূ সাজ্জাদ, রাজিব, রাশেদ ও রাশিদা। এসময় জমির মালিক হাসিনা বেগম ও তার বোন শাহিদা বেগম জমি দখলে বাধা দিলে হত্যার উদ্দেশ্যে তাদেরকে লোহার রড, রামদা, চাইনিজ কুড়াল, সাবল ও হাতুড়ি দিয়ে বেধড়ক মারপিট করে ভূমিদস্যূরা। এসময় তাদের কাছে থাকা স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকা ছিনিয়ে নেয় ভূমিদস্যূরা। পরে স্থানীয়রা আহত হাসিনা ও তার বোন শাহিদাকে উদ্ধার করে শৈলকুপা হাসপাতালে ভর্তি করে।  এদিকে শৈলকুপা থানার ওসি তরিকুল ইসলাম মামলা দায়েরের বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, জমি দখলের বিষয়টি মিমাংশার উদ্দেশ্যে রাশেদ নামে একজনকে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।