শাকিবকে আমার দায়িত্ব নিতে হবে না : অপু

375

সমীকরণ ডেস্ক: অন্তরাল থেকে ছেলেকে নিয়ে বেরিয়ে আসার পর শাকিব খানের প্রতিক্রিয়ায় অপু বিশ্বাস বলেছেন, তার দায়িত্ব কাউকে নিতে হবে না। আমি ইন্ডিপেন্ডেন্ট মানুষ। আমার দায়িত্ব নিতে কাউকে বলিনি। আমি অপু বিশ্বাস। এটা তো বলাবাহুল্য, বলেছেন অর্ধশত চলচ্চিত্রের অভিনেত্রী অপু। সোমবার এক টেলিভিশনে শিশুসন্তানকে নিয়ে হাজির হয়ে অপু বলেন, তার সঙ্গে ২০০৮ সালে বিয়ে এবং গত বছরের সেপ্টেম্বরে সন্তানের জন্ম হলেও শাকিবের কারণে তা লুকিয়ে রেখেছিলেন তিনি। বিকালে অপুর এই সাক্ষাৎকার প্রচারের পর শাকিব সন্তানের দায়িত্ব নিতে রাজি থাকার কথা জানালেও অপুর দায়িত্ব নেওয়ার কথা অস্বীকার করেন বলে তাকে উদ্ধৃত করে গণমাধ্যমে খবর আসে। এর প্রতিক্রিয়ায় রাজধানীর নিকেতনে নিজের বাসায় অপু সাংবাদিকদের বলেন, ছেলের স্বীকৃতিতেই তিনি খুশি। হ্যাঁ… আমার যেটা দরকার ছিল আমার বেবি আছে, সে আমার হাজবেন্ড, ফিউচার প্ল্যানিং আছে। আমি সেটা দেখব। সে তার বাচ্চার দায়িত্ব নিয়েছে, আমি হ্যাপি। অভিনেত্রী হিসেবে নিজের সক্রিয়তার কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, “আমি ঘরোয়া মেয়েদের মতো আমার দায়িত্ব নিতে বলিনি। আমার একটা লাইফস্টাইল আছে। আমি গেলাম শ্বশুরবাড়িতে, শাশুড়িকে বললাম, মা.. দাও আমি ভাত রান্না করব। আমি তো এমন না। ২০০৬ সালে ‘কোটি টাকার কাবিন’ চলচ্চিত্রের মধ্য দিয়ে শাকিব-অপুর জুটি গড়ে ওঠে। তারপর বেশ কয়েকটি ব্যবসা সফল চলচ্চিত্র আসে তাদের। এসময় তাদের প্রেম ও বিয়ের গুঞ্জনও ছড়িয়েছিল। তবে বিয়ের বিষয়ে তারা অস্বীকার করে আসছিলেন। গত বছরের শুরুতে হঠাৎ অজ্ঞাতবাসে চলে যান অপু; মাস খানেক আগে তিনি ফিরলেও চলচ্চিত্রে শাকিবের সঙ্গে জুটি নিয়ে আরেক অভিনেত্রী শবনম ইয়াসমিন বুবলির সঙ্গে দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়েন তিনি। এর পরই শাকিবকে বিয়ে এবং সন্তান হওয়ার কথা ফাঁস করলেন অপু। বুবলির কারণেই এখন মুখ খুলেছেন কি না- প্রশ্নে অপু বলেন, “বুবলি আমার কাছে ফ্যাক্ট কেন? আমাদের বিয়ে হয়েছে আট বছর হল, আমার ছেলে ছয় মাসে যাচ্ছে। শাকিব অপুকে বিয়ে ও সন্তান হওয়ার কথা সাংবাদিকদের কাছে স্বীকার করেছেন, তবে অপুর আচরণে নাখোশ হয়েছেন তিনি। এখনই কেন প্রকাশ করলেন- জানতে চাইলে অপু বলেন,“আর কিছুদিন পর তার (ছেলের) এক বছর হবে, আমার তার বার্থ ডে করতে হবে না? তার তো একটা সামাজিক অবস্থান পেতে হবে। তার বার্থডের সময়ে যদি আপনাদের বলি, এই সময়ে বাচ্চাকে ঘিরে যদি অনেকগুলো ঘটনা ঘটে যায়,েেস জন্য আমি সবকিছু ভেবেচিন্তে এই সময়টা বেছে নিয়েছি। তবে আমি ভীষণ হ্যাপি। কারণ বাবা তার ছেলেকে নেবে। সামাজিক স্বীকৃতি না থাকায় বাচ্চাকে নিয়ে বাইরে যেতে না পারার কথা বলেন তিনি। শাকিব অস্বীকার করলে কী করতেন- তাও বলেন অপু। এখন যদি সে বলতে চায়, বিয়ের প্রমাণটা যদি শাকিব এখন চায়, সেক্ষেত্রে বলব আমার সমস্ত প্রমাণ শাকিবের কাছে আছে। শাকিব যদি সেটাকে হাইড করে তাহলে বাচ্চার জন্য তাকে আবার আমাকে বিয়ে করতে হবে। শাকিবের বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ করলেও আইনি পদক্ষেপ নেবেন না বলে জানান অপু। আমি এখনও শাকিবের ভালো চাই, ভবিষ্যতেও শাকিবের ভালো চাই। কারণ সে আমার স্বামী। সবচেয়ে বড় কথা সে আমার বাচ্চার বাবা। সবাই সবার পরিবারের ভালো চায়। আমিও আমার পরিবারের ভাল চাই।