লেখাপড়া শিখে প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে মানুষের মত মানুষ হতে হবে

615

আলমডাঙ্গা ডিগ্রী কলেজে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সাথে মতবিনিময়কালে অধ্যক্ষ গোলাম সরোয়ার মিঠু
আলমডাঙ্গা অফিস: আলমডাঙ্গা ডিগ্রী কলেজের উদ্যোগে উচ্চ মাধ্যমিক ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের দ্বাদশ শ্রেণির ব্যবসায়ী প্রশাসন বিভাগের শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকদের সাথে ক্লাসে নিয়মিত উপস্থিত নিশ্চিতিকরণ, ফলাফল উন্নয়ন, অভিভাবকদের সচেতনতা বৃদ্ধি ও শিক্ষকদের করণীয় শীর্ষক এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় কলেজ মিলনায়তনে মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ কৃষিবিদ গোলাম সরোয়ার মিঠু।
এসময় তিনি বলেন, নিয়মিত ক্লাসের কোন বিকল্প নেই, লেখাপড়া শিখে প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে মানুষের মত মানুষ হতে হবে। নিয়মিত ক্লাস করলে সেই ছাত্র কখনো ফেল করতে পারেনা। তিনি আরো বলেন, প্রাইভেটের উপর নির্ভরতা কমিয়ে ক্লাসমুখী হতে হবে এবং ক্লাসে সকল সমস্যার সমাধান করতে হবে। তিনি শিক্ষকদের উদ্দেশ্য বলেন, নিজেরা প্রাইভেট না পড়ানো, পড়ালেও ক্লাসে উপস্থিতি ও পড়াশুনা নিশ্চিত করণ, সেটা সম্ভব না হলে সেই শিক্ষার্থীকে প্রাইভেট পড়ানো থেকে বিরত থাকতে হবে। যে সমস্ত শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে না বা নিয়মিত ক্লাস করবে না, সর্বশেষ প্রচেষ্টা হিসেবে আমরা তাদের বাড়িতে যাবো। এরপরও যদি কোন শিক্ষার্থী নিয়মিত ক্লাসে উপস্থিত না হই তবে শিক্ষাবোর্ডের নিয়মানুসারে তাকে ফরম পূরণে অংশগ্রহণ করতে দেয়া হবে না।
সভায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ম্যানেজিং কমিটির সদস্য শাহ্ আলম, জিবি সদস্য সহকারী অধ্যাপক রোকনুজ্জামান, হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধান আল মামুন রেজা, প্রেসক্লাবের সভাপতি খন্দকার শাহ্ আলম মন্টু। সভায় শিক্ষার মান উন্নয়নের উপর বক্তব্য রাখেন, সহকারী অধ্যাপক ইকবাল হাসান, প্রভাষক আব্দুল ওয়াদুদ, প্রভাষক মনিরুজ্জামান, প্রভাষক আব্দুল সেলিম, প্রভাষক আমিরুল ইসলাম, অভিভাবক মুসলিমা খাতুন, শুকতারা খাতুন, ফিরোজা খাতুন, সবজান খাতুন, ফহিমা খাতুন, মিসেস বিলকিস সুহান, আফরোজা খাতুন, পারুল খাতুন, হাবিবুর রহমান, শাহাবুদ্দিন, মো. মুকুল, আমিরুল ইসলাম, রওশন আরা, রাফেজা খাতুন, পারভীন সুলতানা, লিয়াকত আলী, আক্তারুজ্জামান, খাইরুল ইসলাম প্রমূখ।
উল্লেখ্য বর্তমান ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ গোলাম সরোয়ার মিঠু লেখাপড়ার মান উন্নয়নের জন্য ও কলেজের শৃংখলা ফিরেয়ে আনার জন্য জোর প্রচেষ্ট চালিয়ে যাচ্ছেন।