চুয়াডাঙ্গা রবিবার , ৫ জুন ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

যে ৪ খাবারে নিয়ন্ত্রণে থাকবে উচ্চ রক্তচাপ

সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
জুন ৫, ২০২২ ৩:২৫ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

স্বাস্থ্য প্রতিবেদন: হাইপারটেনশন কিংবা উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা হল নীরব ঘাতক। উচ্চ রক্তচাপের পিছনে জিনগত কারণ দায়ী হলেও অনিয়ন্ত্রিত জীবনধারাকে কোনও ভাবেই উপেক্ষা করা যায় না। কর্মক্ষেত্র হোক বা পারিবারিক জীবনে দীর্ঘদিন ধরে মাত্রাতিরিক্ত মানসিক চাপও প্রভাব ফেলে রক্তচাপের ওপর। আর একবার শরীরে হাইপারটেনশনের সমস্যা দেখা দিলে, তখন প্রতিদিন ওষুধ খাওয়া ছাড়া কোনও উপায় থাকে না।  এখান থেকে বাড়ে শ্বাসকষ্ট, কিডনির অসুখ, রক্ত জমাট বাধা, স্ট্রোক, হার্ট অ্যাটাক-সহ হৃদরোগের নানা সমস্যা। তাই উচ্চ রক্তচাপ থাকলে একদিনও বাদ দেওয়া যাবে না প্রেশারের ওষুধ। এর পাশাপাশি সুস্থ থাকার জন্য আপনি সাহায্য নিতে পারে ঘরোয়া প্রতিকারের। তবে সবচেয়ে ভাল হয় যদি আপনি ডায়েটের মাধ্যমে নিজের যত্ন নিতে পারেন। বেশ কিছু ফল ও সবজি আছে যা প্রতিদিন খেলে নিয়ন্ত্রণে থাকবে উচ্চ রক্তচাপ। সেগুলো কী কী চলুন দেখে নেওয়া যাক- সবুজ শাকসবজি- উচ্চ রক্তচাপকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে পালংশাক, লেটুসের মতো সবজিগুলো ডায়েটে রাখা জরুরি। এই ধরনের সবজিগুলোর মধ্যে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, ক্যালশিয়াম এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে। পটাশিয়াম কিডনি থেকে প্রস্রাবের মাধ্যমে অতিরিক্ত সোডিয়াম নির্গত করতে সাহায্য করে। এতে রক্তচাপ ও কিডনির স্বাস্থ্য ভাল থাকে। কলা- কলাও পটাশিয়াম সমৃদ্ধ। এটিও উচ্চ রক্তচাপকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। বিটরুট- উচ্চ রক্তচাপে আক্রান্ত ব্যক্তিদের রক্তচাপ কমাতে এক গ্লাস বিটের রসই যথেষ্ট। বিটরুটে রয়েছে উচ্চ মাত্রার খাদ্যতালিকাগত নাইট্রেট, যা শরীর জৈবিকভাবে সক্রিয় নাইট্রাইট এবং নাইট্রিক অক্সাইডে রূপান্তরিত করে। মানবদেহে নাইট্রিক অক্সাইডে রক্তনালীগুলিকে শিথিল এবং প্রশস্ত করে তোলে। রসুন- এটি একটি অ্যান্টিবায়োটিক এবং অ্যান্টিফাঙ্গাল খাবার, যা পেশী শিথিল করে এবং রক্তনালীগুলিকে প্রসারিত করে, যার ফলে রক্তচাপ কমাতে সাহায্য করে।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।