চুয়াডাঙ্গা সোমবার , ২৮ নভেম্বর ২০১৬
আজকের সর্বশেষ সবখবর

যে দেশে হানিমুনের ন্যুড ফটোশ্যুট হয়!

সমীকরণ প্রতিবেদন
নভেম্বর ২৮, ২০১৬ ৬:১৩ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

ddd

বিস্ময় ডেস্ক: এক সময় বিয়ে বা বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানে ভিডিও-ফটোগ্রাফি করা হত। সেই দিন আর নেই। এখন ওয়েডিং ফটোগ্রাফির যুগ। সঙ্গে প্রি-ওয়েডিং ফটোগ্রাফি। পুরো প্যাকেজিং, রয়্যাল, ক্রিয়েটিভ, রোমান্টিক – বিভিন্ন কনসেপ্টে ফটো শ্যুটিং। কিন্তু এর সঙ্গে এবার যুক্ত হয়েছে ন্যুড ফটোশ্যুট। ভারতে এ ধরনের ফটোশ্যুটের আগ্রহ দিন দিন বাড়ছে বলে দেশটির একটি সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশ করা হয়েছে। ন্যুড ফটোশ্যুটের এমন অফার পেয়েছেন ফটোগ্রাফার প্রিয়াঙ্কা সাচার। সম্প্রতি লখনউ-এর এক হবু বর প্রিয়াঙ্কাকে অনুরোধ করেছেন স্ত্রী-র সঙ্গে তার নগ্ন ছবি তুলতে। প্রিয়াঙ্কা বলেন, ‘বিয়ের রাতে একটা ঘনিষ্ঠ দৃশ্য, একটা নগ্ন শ্যুট চাইছিলেন সেই হবু বর। কিন্তু বিষয়টা অস্বস্তিকর বলে এড়িয়ে যাই।’ সিঙ্গল ন্যুড ফটোগ্রাফি এর আগে করে থাকলেও কোনো দম্পতির থেকে এই প্রথম এমন অনুরোধ পেয়েছেন বলে জানান প্রিয়াঙ্কা। একই অভিজ্ঞতা দিল্লির ফটোগ্রাফার ফয়জন প্যাটেলের। দিল্লিরই এক ব্যক্তির থেকে এরম অফার পেয়েছিলেন ফয়জন। ফটোগ্রাফার বলেন, ‘আমি তাকে জিজ্ঞাসা করেছিলাম, আগে ওই মহিলার থেকে নিশ্চিত হতে। আর তাছাড়া এমন কাজ আমি অনলাইনও দিতে পারব না। আমার লাভ নেই কোনো। তার উপর অস্বস্তিকর তো বটেই।’ মুম্বাইয়ের এক জুটির কাছ থেকে এমনই অফার পেয়েছিলেন চ-ীগড়ের ফটোগ্রাফার নীতিন দাংওয়াল। নীতিন বলেন, ‘ভদ্রতার খাতিরে আমি না বলতে পারিনি। তাই অনেক বেশি ফি হাঁকাই। যাতে তাঁরা না বলে দেন। কিন্তু আশ্চর্য, তাতেও রাজি হয়ে যান ওই স্বামী-স্ত্রী। এরপর আমি যে তৈরি নই, সেটা জানাতে বাধ্য হই।’ তবে উলটো অভিজ্ঞতা রয়েছে ফটোগ্রাফার অমিত মহেন্দ্রুর। চলতি বছরের মার্চে এক ঘজও জুটির সঙ্গে সেমি-ন্যুড ফটোশ্যুট করেন অমিত। অভিজ্ঞতা জানাতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘আমার থেকে ওরা বেশি অস্বস্তিতে পড়ছিল। কিন্তু, সব ঠিকঠাক ছিল।’ ওই ফটোশ্যুটের জন্য বিশাল অংকের টাকা দাবি করেন বলেও জানান অমিত। অধিকাংশ ফটোগ্রাফারদের মতে, প্রি ওয়েডিং শ্যুটে একে অপরকে চুমু খাওয়া আগেও চলত। কিন্তু ন্যুড ফটোগ্রাফির চাহিদা সদ্য বাড়ছে।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।