চুয়াডাঙ্গা শনিবার , ৩১ জুলাই ২০২১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মেহেরপুর-চুয়াডাঙ্গায় করোনা ও উপসর্গে ১১ জনের মৃত্যু

সমীকরণ প্রতিবেদন
জুলাই ৩১, ২০২১ ৮:২৮ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

Girl in a jacket

সারা দেশে আরও ২১২ জনের প্রাণহাণি, শনাক্ত ১৩ হাজার ৮৬২ জন
নিজস্ব প্রতিবেদক:
সারা দেশে মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ২১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৩ হাজার ৮৬২ জনের শরীরে। এদিকে, গতকাল চুয়াডাঙ্গায় করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে আরও ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে। তবে গতকাল জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ কুষ্টিয়া পিসিআর ল্যাব থেকে কোন ফলাফল পাইনি। তবে গতকাল জেলায় নতুন ৯ জন সুস্থ হয়েছে। মেহেরপুরে নতুন করে আরও ৮০ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। একই সময়ে করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু হয়েছে তিন জনের।
চুয়াডাঙ্গা:
চুয়াডাঙ্গায় করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে নতুন করে আরও ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে করোনা আক্রান্ত দুজন ও উপসর্গ নিয়ে আরও চারজনের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শুক্রবার জেলায় করোনা আক্রান্ত দুজন, ইয়োলো জোনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুজন এছাড়াও উপসর্গ নিয়ে অন্য দুজনের মৃত্যু হয়েছে নিজ বাড়িতে চিকিৎসাধীন অবস্থায়। গতকাল চুয়াডাঙ্গায় নতুন কেউ করোনা শনাক্ত হয়নি। এখন পর্যন্ত জেলায় মোট করোনা শনাক্তের সংখ্যা ৫ হাজার ৯৯৪ জন। গতকাল জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ এ তথ্য নিশ্চিত করে।
জানা যায়, গতকাল জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ কুষ্টিয়া পিসিআর ল্যাবে পরীক্ষিত কোনো নমুনার ফলাফল পাইন। গতকাল জেলায় করোনা থেকে আরও ৯১ জন সুস্থ হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় মোট সুস্থ হয়েছে ৩ হাজার ৯৯৪ জন। গতকাল জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ করোনা পরীক্ষার জন্য কোন নমুনাও সংগ্রহ করেনি।
গতকাল সদর হাসপাতালে ইয়োলো জোনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু দুজন হলেন- চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার সাবদারের ছেলে ইমরুল ও মেহেরপুর সদর উপজেলার মোতলেব জোয়ার্দ্দারের মেয়ে ছিরপান খাতুন (৯৬)।
চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. এ এস এম ফাতেহ্ আকরাম জানান, গতকাল জেলায় করোনা আক্রান্ত দুজন ও উপসর্গ নিয়ে ইয়োলো জোনে আরও দুজনের মৃত্যু হয়েছে। মৃত্যুর পর নিহতদের শরীর থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। উক্তা নমুনাগুলি কুষ্টিয়া পিসিআর ল্যাবে করোনা পরীক্ষার জন্য পেরণ করা হবে। গতকালই করোনা প্রটোকলে নিহতের লাশ পরিবারের সদস্যদের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে। তবে স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্য মতে জেলায় আক্রান্ত হয়ে হোম ও প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশনে মৃত্যু হয়েছে মোট ১৬১ জনের ও জেলার বাইরে মৃত্যু হয়েছে আরও ১৭ জনের। তিনি আরও জানান, এখন পর্যন্ত চুয়াডাঙ্গায় জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের ৮৫ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে ৭১ জন সুস্থ হয়েছেন বাকী ১৪ জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
চুয়াডাঙ্গা সিভিল সার্জন অফিসের সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী জেলা থেকে এ পর্যন্ত মোট নমুনা সংগ্রহ ২১ হাজার ২৬৩টি, প্রাপ্ত ফলাফল ২১ হাজার ৮৮৭টি, পজিটিভ ৫ হাজার ৯৯৪ জন। জেলায় বর্তমানে ১ হাজার ৯১৫ জন হোম আইসোলেশন ও হাসপাতাল আইসোলেশনে রয়েছে। এর মধ্যে হোম আইসোলেশনে আছে ১ হাজার ৭৩৭ জন ও হাসপাতাল আইসোলেশনে ৮৫ জন। জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত মোট মৃত্যু হয়েছে ১৭৮ জনের। এর মধ্যে জেলায় আক্রান্ত হয়ে জেলার হোম ও প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশনে মৃত্যু হয়েছে ১৬১ জনের। এছাড়া চুয়াডাঙ্গায় আক্রান্ত অন্য ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে জেলার বাইরে।
মেহেরপুর:
মেহেরপুরে নতুন করে আরও ৮০ জনের শরীরে করোনা আক্রান্ত হয়েছে। একই সময়ে মৃত্যু হয়েছে আরও তিনজনের। এর মধ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে একজন ও উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু হয়েছে আরও দুজনের। গতকাল নতুন আক্রান্তদের মধ্যে সদর উপজেলার ৪৭ জন, গাংনীতে ২২ জন, মুজিবনগর ১১ জন। গতকাল শুক্রবার রাতে মেহেরপুর সিভিল সার্জন ডা. নাসির উদ্দিন এ তথ্য নিশ্চিত করেন। সূত্রে আরও জানা যায়, গতকাল মেহেরপুর স্বাস্থ্য বিভাগ পিসিআর ল্যাব থেকে প্রাপ্ত আরও ২৫৭টি নমুনার ফলাফল প্রকাশ করে। এর মধ্যে ৮০টি নমুনায় করোনা শনাক্ত হয়েছে। এনিয়ে বর্তমানে মেহেরপুর জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছে ৫৮৯ জন। মোট আক্রান্তদের মধ্যে সদর উপজেলায় ১৯৮ জন, গাংনী উপজেলায় ২৭৭ জন এবং মুজিবনগর উপজেলায় ১১৪ জন। এ পর্যন্ত মেহেরপুরে মোট মৃত্যু হয়েছে ১৩৬ জনের। মৃতদের মধ্যে সদরের ৬১ জন, গাংনীর ৪৬ জন ও মুজিবনগরের ২৯ জন রয়েছে।
সারাদেশ:
দেশে প্রতিদিন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দুই শতাধিকের ওপরে মৃত্যু হচ্ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে আরও ২১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ২০ হাজার ৪৬৭ জনে। এর আগে ২৭ জুলাই দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ ২৫৮ জনের মৃত্যু হয়েছিলো। গতকাল শুক্রবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩ হাজার ৮৬২ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশে শনাক্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১২ লাখ ৪০ হাজার ১১৫ জনে।
গত ২৪ ঘণ্টায় ৪৮ হাজার ৫৬৮ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। তবে পরীক্ষা করা হয়েছে ৪৫ হাজার ৪৪টি নমুনা। যেখানে শনাক্তের হার ৩০ দশমিক ৭৭ শতাংশ। এ পর্যন্ত শনাক্তের মোট হার ১৬ দশমিক ০৮ শতাংশ। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, একদিনে নতুন করে সুস্থ হয়েছেন ১৩ হাজার ৯৭৫ জন। এ নিয়ে সুস্থ হয়ে ওঠা রোগীর সংখ্যা ১০ লাখ ৬৪ হাজার ১৯৫ জন।
বয়সভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা যায়, মারা যাওয়া ২১২ জনের মধ্যে ৯১ থেকে ১০০ বছরের মধ্যে ছয়জন, ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে ১১ জন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে ৩২ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ৬৯ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ৪৮ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ২৫ জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ১৫ জন, ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে পাঁচজন, ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে একজন রয়েছে।
২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়াদের মধ্যে পুরুষ ১১৯ জন ও মহিলা ৯৩ জন। যাদের মধ্যে বাসায় ৯ জন ছাড়া বাকিরা হাসপাতালে মারা গেছেন। একই সময়ে বিভাগওয়ারী পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ঢাকা বিভাগে সর্বোচ্চ ৬৫ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ৫৩ জন, রাজশাহী বিভাগে ১৩ জন, খুলনা বিভাগে ৩৬ জন, বরিশাল বিভাগে ১১ জন, সিলেট বিভাগে ১৭ জন, রংপুর বিভাগে ৯ জন ও ময়মনসিংহ বিভাগে ৮ জন মারা গেছেন। গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম ৩ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত প্রথম একজনের মৃত্যু হয়।

Girl in a jacket

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।