মেহেরপুরে যুবলীগের আলোচনা সভা ও দোয়া

178

২১ শে আগস্ট গ্রেনেড হামলায় আইভি রহমানসহ নিহতদের স্মরণে
মেহেরপুর অফিস:
ঢাকার বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট শেখ হাসিনার জনসভায় গ্রেনেড হামলায় আইভি রহমানসহ নিহতদের স্মরণে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার বিকেলে মেহেরপুর পৌর কমিউনিটি সেন্টারে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ মেহেরপুর জেলা শাখার আয়োজনে এ আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।
মেহেরপুর জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক ও পৌর মেয়র মাহফুজুর রহমান রিটন আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশ থেকে আওয়ামী লীগকে নের্তৃত্ব শূন্য করতে চেয়েছিল দেশবিরোধী একটি গ্রুপ। সেই দেশবিরোধী গ্রুপ ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুসহ সপরিবারকে হত্যা করেছিল। দেশের বাইরে থাকায় আল্লাহর রহমতে জননেত্রী শেখ হাসিনা ও তাঁর বোন বেঁচে যায়। পরবর্তীতে শেখ হাসিনার নের্তৃত্বে যখন আওয়ামী লীগ তিল তিল করে গড়ে উঠছিল, ঠিক তখনি ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট আবারও নেত্রীকে হত্যা করার উদ্দেশ্যে গ্রেনেড হামলা চালায় ঘাতকরা। আল্লাহর রহমতে তিনি বেঁচে যান। ওই সময় শহীদ হন প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান পত্নী আইভি রহমানসহ অসংখ্য নেতা-কর্মীরা। ষড়যন্ত্র এখনো চলছে, সারা দেশে জামায়াত-বিএনপি কৌশলে দলে প্রবেশ করে আওয়ামী লীগকে শেষ করার সুক্ষ ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে।
অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন সাবেক ছাত্রনেতা হাসানুজ্জামান হিলন, সদর উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান অপু, শহর যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক শহীদুজ্জামান সুইট, বুড়িপোতা ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি উজ্জ্বল হোসেন, আমঝুপি ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি চমন, কুতুবপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি সাইফুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক রাইহান উদ্দিন মণ্টু, মোনাখালী ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আব্দুল খালেক, দারিয়াপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জুয়েল রানা, সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল ও কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাসুদ রানা।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন পৌর কাউন্সিলর আল মামুন, জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মাহাবুব হাসান ডালিম, ইউনুস আলীসহ বিভিন্ন ইউনিটের যুবলীগের নেতা-কর্মীরা। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সাজিজুর রহমান সাজু। আলোচনা সভা শেষে গ্রেনেড হামলায় নিহত আইভি রহমানসহ নিহতদের স্মরণে দোয়া করা হয়। এর আগে গ্রেনেড হামলায় নিহত শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয় এবং যুবলীগের বিভিন্ন সময়ের কর্মকাণ্ডের ওপর একটি প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়।