মেমনগর বিডি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্রী ইভা ও শোভা বাঁচতে চাই

441

SAM_3157

দর্শনা অফিস: মেমনগর বিডি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্রী যমজ দুই বোন ইভা (১৩)ও শোভা (১৩) সৎ মায়ের অত্যাচার থেকে বাঁচতে চাই। সৎ মা এবং তার বাবার  অত্যাচারে দুই বোন কয়েকবার আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে বলে জানা গেছে। বিগত ১৫বছর আগে পারকৃষ্ণপুর গ্রামের ফকির মোহাম্মদের ছেলে আলাউদ্দিনের আলমডাঙ্গার জামজামি গ্রামের সাথে সাবিনা খাতুনের সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের দুই বছর পর ইভা ও শোভা এই দুই যমজ বোনের জন্ম হয়। সাবিনা খাতুনের দুই কন্যা সন্তান হওয়ায় তার স্বামী আলাউদ্দিন তার উপর প্রায় প্রায় নির্যাতন শুরু করে। এরপরও সাবিনা মেয়ে দুটির দিকে চেয়ে ৭বছর ধরে সংসার করে। এত কিছুর পরও গত ৮বছর আগে আলাউদ্দিন তার স্ত্রী সাবিনাকে তালাক দিয়ে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়। এরপর সাবিনা খাতুন জয়নগর গ্রামের মোতালেবের ছেলে মাজেদুর রহমানের সাথে বিয়ে করে। এদিকে ইভা ও শোভা বাবা আলাউদ্দিনের কাছে থেকে বড় হয়। মেধাবী এই দু’বোন বর্তমানে মেমনগর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেনীর প্রথম ও দ্বিতীয় স্থান অধিকারী। দুই বোনের মধ্যে ইভার রোল নং ০১ এবং শোভার রোল নং ০২। এত ভালো ছাত্রী হওয়ার পরও তার সৎ মা ও বাবা তাদের লেখাপড়া বন্ধ করে বিয়ে দিতে চায়। ইভা ও শোভা বিয়েতে রাজি না হওয়ায় তাদের দু’বোনের প্রতি সৎ মা ও বাবা চরমভাবে অত্যাচার নির্যাতন করে চলছে। তাদের ঠিকতম খেতে দিচ্ছে না বলেও ইভা ও শোভার আপন মা সাবিনা অভিযোগ করেছেন। ফলে অসহায় ইভা ও শোভা মানবেতর জীবন যাপন করছে। এদিকে মা সাবিনা তার মেয়েদ্বয়কে ফেরত নিতে চাইলেও সৎ মা ও তাদের বাবা ফেরত না দিয়ে তাদের প্রতি অত্যাচার করছে। বেশ কয়েকবার দু’বোন আত্মহত্যা করার চেষ্টাও করেছে। গ্রামের অনেকেই জানান, এভাবে তাদের প্রতি অত্যাচার চলতে থাকলে যেকোন সময় এই দু’বোন বাধ্য হয়েই আত্মহত্যার পথ বেছে নিতে পারে। এ ব্যাপারে ইভা ও শোভাকে বাঁচাতে মানবধিকার কর্মীদের প্রতি দৃষ্টি আর্কষন করেছে এলাকাবাসী।