চুয়াডাঙ্গা বৃহস্পতিবার , ২৮ ডিসেম্বর ২০১৭
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মিন্টুকে জেলহাজতে প্রেরণ করা হলেও; আজ আবার আদালতে আনা হবে

সমীকরণ প্রতিবেদন
ডিসেম্বর ২৮, ২০১৭ ১১:০১ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

চুয়াডাঙ্গায় টহলকালিন সময়ে টাউন দারোগা ওহিদের উপর হামলাকারী সন্ত্রাসী
নিজস্ব প্রতিবেদক: চুয়াডাঙ্গা সদর ফাঁড়ির টিএসআই ওহিদুল ইসলাম ওহিদের উপর হামলাকারী সন্ত্রাসী মিন্টুকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। গতকাল বুধবার চুয়াডাঙ্গা সদর থানা পুলিশ থেকে তাকে আদালতে নিয়ে আসলে আদালত তাকে জেল হাজতে পাঠায়। আজ বৃহস্পতিবার তাকে আবারো আদালতে হাজির করা হবে বলে জিআর অফিস থেকে জানা গেছে। চুয়াডাঙ্গা সদর পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই নুর হোসেন বাদী হয়ে ১৮৭৮ সনের অস্ত্র আইনের ১৯-এ অবৈধ অস্ত্র নিজ দখলে রাখার অপরাধে চুয়াডাঙ্গা ফার্মপাড়ার বদরউদ্দীন ওরফে বুদুর ছেলে অভিযুক্ত মিন্টু (৩২) ও ৯ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরো ১০-১২ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। মামলায় অভিযুক্ত অন্যান্যরা হলো- চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার ফার্মপাড়ার নাজিম উদ্দীনের ছেলে জ্বীম (২৮), দুখু, শফিকের ছেলে জনি ও রনি, জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে ছোট জনি, মস্তান দুখুর ছেলে দিপু, ফজলু মিস্ত্রীর ছেলে শফিক টেরী এবং সাহেব আলীর ছেলে মিঠু। মামলায় অভিযুক্তদের আটকের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানা গেছে।
উল্লেখ্য, গত ২৫শে ডিসেম্বর সোমবার চুয়াডাঙ্গা ফার্মপাড়া-হকপাড়ায় নারী ঘটিত বিবাদের জের ধরে দু’গ্রুপের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের সময় পুলিশি টহল পার্টির টিএসআই ওহিদুল ইসলাম ওহিদের উপর দেশীয় অস্ত্র রাম দা দিয়ে হামলা চালায় সন্ত্রাসী মিন্টু। এসময় রাম দা’য়ের কোপ তার ডান কাধে লাগে। গুরতর আহত অবস্থায় টহলরত পুলিশের অন্যান্য সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। ঘটনাস্থল থেকেই হামলাকারী সন্ত্রাসী মিন্টুকে আহত অবস্থায় দেশীয় অস্ত্র রাম দা সহ পুলিশ আটক করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। পরে তার অবস্থার অবনতি দেখা দিলে পুলিশি পাহারায় তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। ঘটনার পরদিনও হামলাকারী মিন্টু ও ৯ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরো ১০-১২ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন সদর ফাঁড়ির এসআই নুর হোসেন। গত মঙ্গরবার রাতে তাকে রাজশাহী থেকে চুয়াডাঙ্গা সদর থানা হাজতে নিয়ে আসা হয়।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।