মালয়েশিয়াগামী ৮৪ রোহিঙ্গা উদ্ধার, পাঁচ পাচারকারী আটক

233

সমীকরণ প্রতিবেদন:
কক্সবাজারের টেকনাফ ও পেকুয়া উপজেলায় অভিযান চালিয়ে অবৈধভাবে সাগর পথে মালয়েশিয়াগামী ৮৪ জন রোহিঙ্গা নারী-পুরুষকে উদ্ধার করেছে কোস্টগার্ড ও পুলিশ। উদ্ধার করা রোহিঙ্গাদের মধ্যে ৩১ জন পুরুষ, ৩৮ জন নারী ও ১৫ জন শিশু রয়েছেন। গত শুক্রবার দিবাগত রাতে পৃথক অভিযান চালিয়ে তাদের উদ্ধার করা হয়। এ সময় রোহিঙ্গা পাচারে যুক্ত পাঁচ পাচারকারীকে আটক করা হয়। পেকুয়া থানার ওসি জাকির হোসেন ভূঁইয়া জানান, সাগরপথে ট্রলারযোগে মালয়েশিয়া যাওয়ার জন্য দালালচক্র পেকুয়ার উজানটিয়া জেটিঘাটে লোকজন জড়ো করে। এমন সংবাদে ভিত্তিতে ওই স্থানে অভিযান চালিয়ে ৬৭ জন রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করা হয়। তাদের মধ্যে ২১ জন পুরুষ, ৩১ জন নারী ও ১৫ জন শিশু রয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা কুতুপালং ক্যাম্প থেকে পালিয়ে দালালদের মাধ্যমে সাগরপথে মালয়েশিয়া যাবার জন্য এসেছিলেন বলে জানান। এদিকে, কোস্টগার্ড টেকনাফ স্টেশনের কমান্ডার ফয়েজুল ইসলাম ম-ল জানান, সেন্টমার্টিন সৈকত এলাকায় সমবেত হওয়ার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ১৭ জন রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করা হয়। এ সময় পাচারে জড়িত পাঁচজনকে আটক করা হয়েছে। এদের মধ্য উদ্ধার হওয়া সাতজন নারী এবং ১০ জন পুরুষ রয়েছে। এ ছাড়া মানবপাচারকারী দালাল চক্রের পাঁচ সদস্যকে আটক করা হয়েছে। তাদের টেকনাফ থানায় সোপর্দ করা হয়েছে। উদ্ধারকৃত রোহিঙ্গারা নয়াপাড়া, লেদা ও জাদিমোরা রোহিঙ্গা শরণার্থীশিবিরের বাসিন্দা। উদ্ধার করা ১৭ রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ ও পাচজন পাচারকারীকে আজ শনিবার সকাল ১০টার দিকে টেকনাফ থানায় সোপর্দ করা হয়েছে। তাদের নিজ নিজ শরণার্থীশিবিরে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানান কোস্টগার্ড কমান্ডার ফয়েজুল ইসলাম।