মার্কিন সেনারা সন্ত্রাসীদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছে সিরিয়ায়

24

বিশ্ব প্রতিবেদন:
মার্কিন সেনারা অস্ত্র ও সামরিক রসদ নিয়ে সম্প্রতি সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে প্রবেশ করেছে। সেনাবহরের দলটি ইরাকের আধা স্বায়ত্বশাসিত কুর্দি অঞ্চল থেকে সিরিয়ায় প্রবেশ করে বলে জানা গেছে। সিরিয়ার সামরিক বাহিনীর প্রসিকিউটর অফিস থেকে প্রকাশিত নতুন তথ্য-প্রমাণে উঠে এসেছে যে, সিরিয়ায় দখলদার মার্কিন সেনারা উগ্র তাকফিরি সন্ত্রাসীদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছে। প্রসিকিউটর অফিস থেকে নতুন যে ছবি প্রকাশ করা হয়েছে তাতে দেখা যায়- সিরিয়ার দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় আল-তানফ শহরে উগ্রবাদী সন্ত্রাসীরা এবং মার্কিন সেনারা যৌথভাবে টহল দিচ্ছে। শনিবার লেবাননের আল-মায়াদিন টেলিভিশন চ্যানেল এ বিষয়ে একটি প্রতিবেদন প্রচার করেছে। অন্য ছবিতে দেখা যায়- একজন মার্কিন সামরিক ইনস্ট্রাক্টর উগ্রবাদী সন্ত্রাসীদেরকে বুঝিয়ে দিচ্ছেন কিভাবে ৮২ মিলিমিটারের মর্টার ব্যবহার করতে হয়। সিরিয়ার সামরিক প্রসিকিউটরের কার্যালয় থেকে প্রকাশিত তথ্য-প্রমাণে আরো বলা হয়েছে- কিছু কিছু ছবিতে সন্ত্রাসীরা ও তাদের ফিল্ড কমান্ডাররা স্বীকার করেছে যে, তারা সিরিয় এবং রাশিয়ার সেনাদের উপর সরাসরি হামলা এবং হত্যাকাণ্ডে অংশ নিয়েছে। সম্প্রতি সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে প্রবেশ করা মার্কিন সামরিক বহরে ৪৫টি ট্রাক ছিল। এতে সামরিক সরঞ্জামাদি, ফোর হ্ইুল ড্রাইভ গাড়ি এবং জ্বালানি পণ্য ছিল। আর বহরটি ইরাকের ওয়ালিদ সীমান্ত পেরিয়ে সিরিয়ার ভেতরে ঢোকে। সিরিয়ার হাসাকা ও দেইর আয-জাওয়ার প্রদেশে মোতায়েন সামরিক বাহিনীর অবস্থানের দিকে মার্কিন বহর এগিয়ে গেছে বলে স্থানীয় সূত্র জানায়। মার্কিন সেনা সদরদপ্তর পেন্টাগন দাবি করে আসছে- সিরিয়ার তেলক্ষেত্রগুলো সন্ত্রাসীদের হাতে যাতে না পড়ে সেজন্য তারা ওই এলাকায় সেনা মোতায়েন করেছে।