চুয়াডাঙ্গা বৃহস্পতিবার , ৯ জানুয়ারি ২০২০
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মার্কিন ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দিল ইরান

সমীকরণ প্রতিবেদন
জানুয়ারি ৯, ২০২০ ১১:১০ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

২২ ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ, ৮০ জন নিহতের দাবি ইরানের, যুক্তরাষ্ট্রের পাল্টা প্রস্তুতি, সেনা সরাচ্ছে কানাডা, তেলের দাম বাড়ল ৪.৫ শতাংশ
সমীকরণ প্রতিবেদন:
ইরান গতকাল ভোরে ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ে ইরাকের পশ্চিমাঞ্চলের আইন আল আসাদ ও কুর্দিস্তানের এরবিলে অবস্থিত দুটি মার্কিন সামরিক ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দিয়েছে। দেশটির বিপ্লবী রক্ষীবাহিনী ওই দুই ঘাঁটিতে ৩০ মিনিটে ২২টি ব্যালাস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ে। ভয়াবহ হামলায় ৮০ জন নিহতের পাশাপাশি ২০০ মার্কিন সন্ত্রাসী আহত হয়েছে বলে দাবি করেছে ইরান। হামলার পরই বেশ কয়েকটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। একটি ভিডিওতে দেখা যায়, মার্কিন ঘাঁটিতে দাউ দাউ আগুন জ্বলছে, শোনা যাচ্ছিল আর্তচিৎকার। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তৎক্ষণাৎ প্রতিক্রিয়ায় বলেন, ‘সব ঠিক আছে’। ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি বলেন, এ হামলা চালিয়ে তাঁর দেশ আমেরিকার ‘মুখে চপেটাঘাত’ করেছে। ইরান বলেছে, জেনারেল সোলাইমানি হত্যার জবাব দেওয়া হয়ে গেছে, আমরা আর যুদ্ধ চাই না।
ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ বলেছেন, ‘প্রতিশোধ নেওয়া হয়ে গেছে। ইরান আর যুদ্ধ চায় না।’ ইরানের সংসদ ‘মজলিস’ তার এক প্রস্তাবে মার্কিন প্রতিরক্ষা সদর দফতর পেন্টাগন ও তার সহযোগী বাহিনীকে সন্ত্রাসী বলে ঘোষণা করেছে। ইরান হুমকি দিয়েছে, তাদের ক্ষেপণাস্ত্র হামলার জবাব দিলে মার্কিন ভূখন্ডে হামলা চালানো হবে। ইরানের হুমকির পরই ইরাক, ইরান, পারস্য উপসাগর ও ওমানের উপসাগরীয় অঞ্চলে বিমানের ওপর বিধিনিষেধ জারি করে যুক্তরাষ্ট্র। এদিকে ইরাক থেকে কানাডা তাদের সেনা সরিয়ে নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে। হামলার প্রতিক্রিয়ায় মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী মার্ক এসপার বলেছেন, ‘আমরা ইরানের সঙ্গে যুদ্ধ শুরু করতে চাই না। তবে যুদ্ধ শুরু হলে তা শেষ করার জন্য আমরা প্রস্তুত রয়েছি।’ ব্রিটেন বলেছে, ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র হামলা বেপরোয়া ও বিপজ্জনক। যুক্তরাষ্ট্র-ইরানের মধ্যকার চলমান অবস্থা পর্যবেক্ষণ করছে যুক্তরাজ্য, কানাডা ও দক্ষিণ কোরিয়া। এদিকে তেহরানে ইউক্রেনের ১৮০ জন যাত্রীবাহী বিমান বিধ্বস্ত হয়ে সবাই নিহত হন। উড়োজাহাজটি বিধ্বস্ত হওয়ার সঙ্গে ইরান-মার্কিন সংঘাতের সম্পর্ক রয়েছে কিনা, তা স্পষ্ট নয়।
৮০ মার্কিন ‘সন্ত্রাসী’ হত্যার দাবি :
ইরাকে মার্কিন দুটি ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ৮০ জন মার্কিন ‘সন্ত্রাসী’ নিহত হয়েছে বলে দাবি করেছে ইরান। হামলায় হেলিকপ্টার ও সামরিক সরঞ্জাম ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ৩০ মিনিটের টানা হামলায় মার্কিন ঘাঁটি পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে যায়। বার্তা সংস্থার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জার্মানি, ডেনমার্ক ও নরওয়ে জানিয়েছে, ইরানের হামলায় তাদের কোনো সেনা হতাহত হয়নি। ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনির কার্যালয়ের এক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে ইরানি টেলিভিশন জানায়, এ ক্ষেপণাস্ত্র হামলাটি ছিল ‘সবচেয়ে দুর্বল’। ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী টুইটে ঘোষণা করেন, তাঁর দেশ আর যুদ্ধ বা উত্তেজনা চায় না। তিনি বলেন, ‘আমাদের জনগণ ও জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাদের ওপর যে ঘাঁটি থেকে কাপুরুষোচিত সশস্ত্র হামলা করা হয়েছে, জাতিসংঘ সনদের ৫১ অনুচ্ছেদ অনুসারে আত্মরক্ষায় ইরান সেখানে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নিয়ে এর (ঘটনার) সমাপ্তি টেনেছে।’
যুদ্ধ নয় শান্তি চাই :
কাসেম সোলাইমানি হত্যার প্রতিশোধ হিসেবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দুটি বিমানঘাঁটিতে ইরান ২২টি ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানোর পর জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ভাষণে তিনি বলেছেন, ‘যুদ্ধ চাই না, শান্তি চাই। এ ক্ষেত্রে রাশিয়া-চীনসহ ক্ষমতাধর দেশগুলোকে পাশে চাই’। সূত্র : রয়টার্স, বিবিসি। ওয়াশিংটন সময় গতকাল সকালে হোয়াইট হাউস থেকে দেওয়া এ ভাষণে ট্রাম্প দাবি করেন, ‘ইরানের হামলায় কোনো আমেরিকান আঘাতপ্রাপ্ত হননি। আমাদের কেউই হতাহত হননি। আমাদের সব সৈন্য নিরাপদে আছে এবং আমাদের সেনাঘাঁটিতে খুব সামান্য ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।’ ইরানের বিরুদ্ধে তিনি নতুন নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘোষণা দিয়ে বলেন, ‘ইরানের সঙ্গে এমন একটি চুক্তির জন্য আমাদের কাজ করতে হবে, যেটা এই বিশ্বকে আরও নিরাপদ ও শান্তিপূর্ণ করে।’ তিনি ২০১৫ সালে ইরানের সঙ্গে সম্পাদিত পরমাণু চুক্তি বাতিল করে নতুন চুক্তির জন্য চীন ও রাশিয়াসহ বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশগুলোর প্রতি আহ্বান জানান। ট্রাম্প ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স, প্রতিরক্ষামন্ত্রী মার্ক স্পেনসার, পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও এবং ঊর্ধ্বতন সেনা কর্মকর্তাদের পাশে রেখে এই ভাষণ দেন। এর আগে টুইট বার্তায় তিনি বলেন, ‘সব ঠিক আছে! ইরাকের দুটি সামরিক ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে ইরান।’
ইসরায়েল-দুবাইয়ে হামলার হুমকি :
দুই মার্কিন ঘাঁটিতে হামলার জবাব দিলে দুবাই ও ইসরায়েলে হামলার হুমকি দিয়েছে তেহরান ও হিজবুল্লাহ। ইরানের বার্তা সংস্থা তাসনিমকে উদ্ধৃত করে এ খবর দিয়েছে অনলাইন জেরুজালেম পোস্ট। রয়টার্স জানায়, ইরানের পাশের দেশ কুয়েতে আরও ৩ হাজার সেনা পাঠানো হচ্ছে। এক সপ্তাহের বেশি সময় আগে কুয়েতে ৭৫০ মার্কিন সেনা পাঠানো হয়। এ ছাড়া ইরাক, বাহরাইন, কাতার, ওমান, সংযুক্ত আরব আমিরাত, সৌদি আরব, জর্ডানেও উল্লেখযোগ্যসংখ্যক মার্কিন সেনা মোতায়েন রয়েছে।
বাড়ছে তেলের দাম :
আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম বলছে, অপরিশোধিত তেলের দাম এশিয়ার বাজারে কমপক্ষে ৪.৫ শতাংশ বেড়ে প্রতি ব্যারেল বিক্রি হচ্ছে ৬৫.৬৫ মার্কিন ডলারে। বিশ্লেষকরা বলছেন, মধ্যপ্রাচ্যের চলমান পরিস্থিতিতে তেলের সরবরাহ মারাত্মকভাবে বিঘ্নিত হতে পারে। এদিকে জাপানের বেঞ্চমার্ক নিকির শেয়ার সূচকের পতন ঘটেছে ২২৫ পয়েন্ট; যা শতকরা ২.৫ ভাগের বেশি। পশ্চিমা দেশগুলোতেও একই অবস্থা।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।