চুয়াডাঙ্গা রবিবার , ১১ ডিসেম্বর ২০১৬
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মাছেরদাড়ি গ্রামে পূর্ব শত্রুতার জেরে সংঘর্ষ এলাকায় আতঙ্ক : নারীসহ আহত ৩

সমীকরণ প্রতিবেদন
ডিসেম্বর ১১, ২০১৬ ১২:১৩ অপরাহ্ণ
Link Copied!

gশহর প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গা মাছেরদাড়ি গ্রামে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে তুমুল সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। জানা গেছে, গতকাল রাত ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আহত হয় নারী পুরুষসহ ৩জন। আহতরা হলো- মাছেরদাড়ি গ্রামের মৃত ইন্নাত আলীর ছেলে ইদ্রিস আলী (৪৫), একই এলাকার মৃত সাহেব আলীর ছেলে সোহান আলী (১৬) ও মৃত সাহেব আলীর স্ত্রী সামসুন্নাহার (৩৫)। ইদ্রিস আলী সাংবাদিকদের বলেন, গত রাত সাড়ে ৯টার দিকে মান্নানের ছেলে মিদুল (৯) প্রসাব করতে উঠে। ওত পেতে ছিলো মাছেরদাড়ি গ্রামের মোস্তফার ছেলে শাহিন (৩০), ধনুর ছেলে সাগর (২৪) আরো ৪/৫জন। এরা মিদুলকে মুখ বেঁধে নিয়ে যায় একটি পায়খানার হাউজের পাশে। একজন মিদুলের একহাত ধরে ছিলো আর একজন পায়খানার হাউজের মুখ ভাংছিলো। এই সুযোগে মিদুল হাত কামড় দিয়ে পালাতে চেষ্টা করে কিন্তু মিদুল পড়ে যায়। এক পর্যায়ে হাতাহাতি হয় মিদুলের সাথে। মিদুলের মেজ মা টের পেয়ে বাইরে এসে টর্চলাইট মারতেই সবাই পালিয়ে যাই। মিদুল শারীরিকভাবে ও মানসিক ভাবে অসুস্থ হয়ে যায়। তাকে দ্রুত চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসি এবং সে প্রাথমিক চিকিৎসায় সুস্থ হয়। এ খবর এলাকায় জানাজানি হলে গতকাল রাতে ইদ্রিস, সোহান, সামছুন্নাহার এর বাড়ি এসে ভাংচুর করে ও হেসো কাচি দিয়ে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকে। স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। সামছুন্নাহার জানান, আমার ছোট ছেলেকে ১০/১২জন মিলে মারতে থাকে। আমি ঠেকাতে গেলে আমাকেও মারতে থাকে এবং ইদ্রিস আলী ঠেকাতে গেলে তাকে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকে। এরা হলো- মাছেরদাড়ি গ্রামের মৃত বাতেন আলীর ছেলে আশোক আলী (৪০), আশোক আলীর ছেলে রিপন (২২), মোস্তফা আলীর ছেলে শাহীন (২০), মৃত বাতেন আলীর মারফোত আলী (৪০), আব্দুল আলীর ছেলে কবির (৩৫), হোসেন আলীর ছেলে মিলন (২৫), মৃত বাতেন আলীর ছেলের হোসেন ও আরো ১০-১৫জন। আমাদেরকে শারীরিক ভাবে নির্যাতন করে। এই ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এ ঘটনার আজ মামলা হতে পারে বলে জানা যায়।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।