চুয়াডাঙ্গা বুধবার , ৩ জানুয়ারি ২০১৮
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মন্ত্রীর আশ্বাস নয়, এমপিওভুক্তির ডেডলাইন চান শিক্ষকরা

সমীকরণ প্রতিবেদন
জানুয়ারি ৩, ২০১৮ ১২:০৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

নন-এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের টানা অনশনে অসুস্থ ৩৯ শিক্ষক ঢামেকে
সমীকরণ ডেস্ক: মন্ত্রীর আশ্বাস নয়, সুনির্দিষ্ট সময়সীমা বেঁধে না দেওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন নন-এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীরা। গতকাল মঙ্গলবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত অনশনরত ৩৯ জন শিক্ষক অসুস্থ হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এদের মধ্যে গুরুতর অসুস্থ হওয়ায় তাদের সভাপতিসহ কয়েকজনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এর আগে সকাল সাড়ে ১১টার দিকে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এসে তাদের দাবি মেনে নেওয়ার আশ্বাস দেন। কিন্তু কত দিনের মধ্যে তাদের দাবি পূরণ করা হবে, সে বিষয়ে মন্ত্রী কিছুই বলেনি।
শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, ‘শিক্ষা মন্ত্রণালয় আপনাদের এমপিওভুক্তির বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বের সাথে দেখছে। আমাদের মন্ত্রণালয়ের অর্থের সীমাবদ্ধতা আছে, যার কারণে আজ সকালে আমি অর্থমন্ত্রীর সাথে দেখা করেছিলাম। তিনি আমাকে এমপিওভুক্তির ব্যবস্থা করে দিবেন বলে জানিয়েছেন। তার কাছ থেকে এখানে এসেছি, আমরা নীতিমালা অনুসারে আপনাদের এমপিওভুক্তির ব্যবস্থা করবো। আমি কথা দিচ্ছি আপনাদের দাবি খুব দ্রুতই পূরণ করা হবে। তাই আপনারা অনশন ভেঙে বাড়িতে ফিরে যান।’ তবে মন্ত্রীর আশ্বাসে তারা আশ্বস্ত হননি। তারা সময় বেঁধে দেওয়ার দাবি জানালে মন্ত্রী কিছু না বলে জায়গা ত্যাগ করেন। নন-এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশন কেন্দ্রীয় কমিটির কেন্দ্রীয় সদস্য রাশেদুল ইসলাম রাশেদ বলেন, তিন দিন ধরে অনশন করায় ইতোমধ্যে ৩৯ জন অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। এদের মধ্যে আমাদের সংগঠনের সভাপতি অধ্যক্ষ গোলাম মাহমুদুন্নবী ডলারসহ ৭ জন গুরুতর অসুস্থ হওয়ায় তাদের মেডিকেলে ভর্তি করা হয়েছে।
এসময় তিনি বলেন, আমাদের এখানে ৫২৪২টি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা আছেন। আন্দোলনে যুক্ত হতে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে আরো শিক্ষকরা আসছেন। মন্ত্রী চলে যাওয়ার পর মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন কর্মকর্তারা এসেছিলেন, কিন্তু আমরা কোনো রকম আশান্বিত হতে পারছি না। সুনির্দিষ্ট সময়সীমা বেঁধে না দিলে আন্দোলন প্রত্যাহার করব না।
বিকেলে সরেজমিন দেখা যায়, তিন দিন ধরে আমরণ অনশনে থাকায় অনেক শিক্ষক দুর্বল হয়ে পড়েছেন। অনেকের স্যালাইন চলছে। এছাড়া দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে শিক্ষকদের যুক্ত হতে দেখা যাচ্ছে। আন্দোলনকারী শিক্ষকরা বলেন, এর আগেও মন্ত্রী আমাদেরকে এমন আশা দিয়েছেল। আমরা তার এ কথায় আন্দোলন বন্ধ করতে পারি না। আমরা সরকারের কাছ থেকে সুনির্দিষ্ট সময় চাই। কবে নাগাদ এমপিওভুক্তি করা হবে সেটা বলতে হবে। ২০১৭-১৮ অর্থবছরের মধ্যে এমপিও করে দিতে হবে প্রতিষ্ঠানগুলোকে।
প্রসঙ্গত, গত ২৬ ডিসেম্বর থেকে নন-এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারীরা অবস্থান কর্মসূচি পালন করছিল। তাদের দাবি পূরণের ব্যাপারে সরকারের পক্ষ থেকে কোনো আশ্বাস না আসায় ৩১ ডিসেম্বর থেকে আমরণ অনশন কর্মসূচি শুরু করেন তারা।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।