মজু’র মাতৃবিয়োগ : দাফন সম্পন্ন : শোক

261

চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপি’র যুগ্ম আহ্বায়ক মজিবুল হক মালিক
বিশেষ প্রতিবেদক:
চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক মুজিবুল হক মালিক মজু ও জেলা চেম্বার অব কমার্সের সিনিয়র সহ-সভাপতি শাহরিন হক মালিকের মাতা শাহারজান খাতুন ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহে………রাজেউন)। তিনি মৃত মৃত এহসানুল হক মালিক’র সহধর্মীনি ছিলেন। গতকাল শুক্রবার সকাল ১০টায় চুয়াডাঙ্গা পৌর শহরের ঝিনাইদহ বাসস্টান্ডস্থ নিজ বাসভবনে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮২ বছর। প্রাণচাঞ্চল্যে পুরো সংসার জীবন পার করে বার্ধক্যেও থাকতেন ছেলে, ছেলেদের বউ, নাতি-নাতনিদের সঙ্গে। তাঁর আরও রয়েছে ৩ মেয়ে, আত্মীয়-স্বজন, পাড়া-প্রতিবেশি ও অসংখ্য গুণাগ্রাহী।
এদিকে গতকাল আসরের নামাজের পর চুয়াডাঙ্গা সিনিয়র আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে নামাজে জানাযা শেষে জান্নাতুল বাকী কবরস্থানে দাফন সম্পন্ন করা হয়। দলমত নির্বিশেষে এতে জানাযায় অংশ নেন হাজারো মানুষ। জানাযা চলাকালে মেঘাচ্ছন্ন/বৈরি আবহাওয়া বিরাজ করলেও তা উপেক্ষা করেই জানাযা শেষ হয়। এরআগে মায়ের আত্মার মাগফেরাত কামনায় সকলের কাছে দোয়া চান বড় ছেলে মজিবুল হক মালিক মজু। এ সময় উপস্থিত ছিলেন আরও তিন ছেলে অ্যাড. মাকসুদুল হক মকসু, শাহরিন হক মালিক ও মাইনুল ইসলাম মালিক হারুন।
শাহারজান খাতুনের মৃত্যুতে তাঁর পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়ে শোক প্রকাশ করেছেন চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপি’র যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাড. ওয়াহেদুজ্জামান বুলা, খন্দকার আব্দুল জব্বার সোনা, অন্যতম সদস্য মো. শরীফুজ্জামান শরীফ, চুয়াডাঙ্গা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাষ্ট্রি’র সভাপতি ইয়াকুব হোসেন মালিক, সহ-সভাপতি মঞ্জুরুল আলম মালিক লার্জ, পরিচালক সালাউদ্দিন মোঃ মর্তুজা, এস,এম তসলিম আরিফ (বাবু), নীল রতন সাহা (নীলু বাবু), এ,কে,এম সালাউদ্দিন মিঠু, আরিফ হোসেন জোয়ার্দ্দার সোনা, তাজুল ইসলাম (তাজু), সেলিম আহমেদ, হারুন অর রশিদ, কিশোর কুমার কুন্ডু, নাসির আহাদ জোয়ার্দ্দার, এ.এন.এম আরিফ, কামরুল ইসলাম হিরা, সুরেশ কুমার আগরওয়ালাসহ বিভিন্ন পর্যায়ের সামাজিক, রাজনৈতিক ও ব্যবসায়ীরা।
এ ছাড়াও দৈনিক সময়ের সমীকরণ পরিবারের পক্ষে শোক প্রকাশ করেছেন প্রধান সম্পাদক নাজমুল হক স্বপন, বার্তা সম্পাদক হুসাইন মালিক, সহ-সম্পাদক সুমন পারভেজ খান, ব্যবস্থাপনা সম্পাদক আমান উল্লাহ আমান, বিশেষ প্রতিবেদক এসএম শাফায়েতসহ বিভাগীয় প্রধান ও প্রতিনিধিরা।