চুয়াডাঙ্গা সোমবার , ২৭ ডিসেম্বর ২০২১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ভোট কারচুপি, কেন্দ্র দখল ও অনিয়মের অভিযোগে চার প্রার্থীর ভোট বর্জন, একটি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ স্থগিত

নিজস্ব প্রতিবেদক:
ডিসেম্বর ২৭, ২০২১ ১০:০২ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

বিচ্ছিন্ন কিছু অভিযোগ ছাড়া ভোট সুষ্ঠু হয়েছে : ডিসি নজরুল ইসলাম

আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নের একটি ভোটকেন্দ্রে ভোট গ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। বেলা দুইটায় ইউনিয়নটির ভুলটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের কার্যক্রম স্থগিত করা হয়। এদিকে, ব্যাপক ভোট কারচুপি, কেন্দ্র দখল ও অনিয়মের অভিযোগে কুতুবপুর ও আলুকদিয়া ইউপির চার স্বতন্ত্র প্রার্থী ভোট বর্জন করেছেন। ভোট চলাকালীন সময়ে তাঁরা সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যেমে এ তথ্য জানান। ভোট বর্জন করা প্রার্থীরা হলেন- আলুকদিয়া ইউপির স্বতন্ত্র প্রার্থী ইসলাম উদ্দীন, কুতুবপুর ইউপির স্বতন্ত্র প্রার্থী শাখাওয়াত হোসেন টাইগার, জুয়েল রানা ও নজরুল ইসলাম।

এদিকে, কুতুবপুর ইউনিয়নের নবীননগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে বিভিন্ন অনিয়ম ও ভোট কারচুপির অভিযোগ তোলেন ভোটররা। এসময় সেখানে স্থানীয়দের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। বেলা ১১টার দিকে ওই কেন্দ্রে পরির্দশনে যান চুয়াডাঙ্গার জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার ও পুলিশ সুপার (এসপি) জাহিদুল ইসলাম। এসময় ডিসি-এসপি বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগকারী সাধারণ ভোটার ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের শান্ত করার চেষ্টা করেন। একপর্যায়ে সেখান থেকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসার আগেই ডিসি-এসপি ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন। পরে চুয়াডাঙ্গা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ মহসীনের নেতৃত্বে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

কুতুবপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চশমা প্রতীকের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী জুয়েল রানা বলেন, ‘ভোটের আগের দিন শনিবার রাত থেকেই বিভিন্নভাবে আমার কর্মী-সর্মথকদের ভয়-ভীতি প্রদর্শন করে আসছিল প্রতিদ্বন্দ্বীরা। আজ (গতকাল) সকালে ভোট শুরু হওয়ার পর থেকেই সকল কেন্দ্রে  থেকে আমার নির্বাচন এজেন্টদের মারধর করে বের করে দেওয়া হয়েছে। তারা নিজে হাতে ব্যালট পেপার সিল মেরে নিয়েছে। আমার ভোটাররা ভোট দিতে না পেরে আমার বাড়িতে এসে কান্নায় ভেঙে পড়ছেন। এই নির্বাচনে ভোটাররা সুষ্ঠু পরিবেশ না পাওয়ায় আমি ভোট বর্জনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছি। এই নির্বাচন সুষ্ঠু হয়নি।’

১ নম্বর আলুকদিয়া ইউনিয়ন পরিদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র আনারস প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী ইসলাম উদ্দীন বলেন, ‘আমার প্রতীক আনারস। রোববার সকালে ভোট গ্রহণ শুরু হয়। আমি এই এলাকার জনপ্রিয় চেয়ারম্যান, আমার জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত। যে কারণে আজ (গতকাল রোববার) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ভোটের সময় আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী আবুল কালাম আজাদের লোকজন আমার পোলিং এজেন্ট ও কর্মীদেরকে জোরপূর্বক প্রশাসনের সহযোগিতায় সকল কেন্দ্র থেকে বের করে দিয়ে কেন্দ্র দখল করে জোরপূর্বক নৌকা প্রতীকে সিল মেরে নেয়।’

রিটার্নিং অফিসার কামরুল হাসান জানান, নির্বাচনী এলাকায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় ভুলটিয়া ভোট কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। সিদ্ধান্তের পর দুপুর ২টা থেকে ওই ভোট কেন্দ্রে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে।

চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার বলেন, বিচ্ছিন্ন কিছু অভিযোগ ছাড়া সুষ্ঠুভাবে ভোট গ্রহণ হয়েছে। যে কেন্দ্রগুলোতে অভিযোগ রয়েছে, সেসব বিষয়গুলো তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। এদিকে, ভোট কারচুপি, কেন্দ্র দখল ও অনিয়মের অভিযোগে আলুকদিয়া ইউপির স্বতন্ত্র প্রার্থী ইসলাম উদ্দীন, কুতুবপুর ইউপির স্বতন্ত্র প্রার্থী শাখাওয়াত হোসেন টাইগার, জুয়েল রানা ও নজরুল ইসলাম ভোট বর্জন করেছেন।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।